Home /News /national /
Loudspeaker in Uttar Pradesh: যোগীর কড়া নির্দেশ, উত্তরপ্রদেশে ধর্মীয় স্থানে ৬০৩১ টি লাউডস্পিকার সরাল পুলিশ

Loudspeaker in Uttar Pradesh: যোগীর কড়া নির্দেশ, উত্তরপ্রদেশে ধর্মীয় স্থানে ৬০৩১ টি লাউডস্পিকার সরাল পুলিশ

Yogi orders to remove Loudspeakers: নির্দেশিকায় বলা হয় শব্দ যেন ধর্মীয় প্রাঙ্গণের ভেতরেই থাকে, তাতে অন্য কারও যেন অসুবিধা না হয়।

  • Share this:

    #উত্তরপ্রদেশ: উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন ধর্মীয় স্থান থেকে ৬,০৩১ টি ​​অননুমোদিত লাউডস্পিকার সরিয়ে নিল পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নির্দেশের পরেই এমন পদক্ষেপ। উত্তরপ্রদেশের ২৯,৬৭৪ টি জায়গায় লাউডস্পিকারের শব্দের মাত্রাও কমানো হয়েছে। ৩০ এপ্রিলের মধ্যে যেসব জায়গায় লাউডস্পিকারের আওয়াজ শব্দসীমা অতিক্রম করেছে সেই বিষয়ে রিপোর্ট চেয়েছে সরকার। সংবাদ মাধ্যমকে আইন ও শৃঙ্খলার অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রশান্ত কুমার বলেন, “মানুষজন নিজেরাই লাউডস্পিকার সরাতে সহযোগিতা করছে এবং নিজেরাই সরিয়েও দিচ্ছে। এই অভিযান চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত।”

    আরও পড়ুন- ৩০ বছর ধরে শৌচাগারে শিঙাড়া ভাজছিল এই রেস্তোরাঁ! কড়া ব্যবস্থা নিল প্রশাসন

    সম্প্রতি, মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ ধর্মীয় স্থানগুলিতে লাউডস্পিকারের শব্দের মাত্রা কমিয়ে নির্দিষ্ট মানের করার নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গেই নির্দেশিকায় বলা হয় শব্দ যেন ধর্মীয় প্রাঙ্গণের ভেতরেই থাকে, তাতে অন্য কারও যেন অসুবিধা না হয়।

    এই আদেশের পরেই, পুলিশ আধিকারিকরা রাজ্যের ধর্মীয় স্থানগুলি থেকে লাউডস্পিকার সরিয়ে নেওয়া এবং শব্দ কমানোর বিষয়টি নিশ্চিত করছেন। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, আগ্রা অঞ্চলে ৩০ টি অননুমোদিত লাউডস্পিকার সরানো হয়েছে এবং ৯০৫ টি জায়গায় শব্দের মাত্রা কমানো হয়েছে।

    মীরাটে জোনে মোট ১,২১৫ টি অননুমোদিত লাউডস্পিকার সরানো হয়েছে, বরেলিতে ১,০৭০ টি, লখনউতে ৯১২ টি, কানপুরে ১,০৫৬ টি, প্রয়াগরাজে ১টি, গোরখপুরে ২ টি, বারাণসীতে ১,৩৬৬ টি, গৌতম বুদ্দ নগরে ১৯ টি, লখনউ কমিশনারেট এবং বারাণসী কমিশনারেটে ১৭০টি।

    আরও পড়ুন- "কোভিড-১৯ চ্যালেঞ্জ এখনও শেষ হয়নি": শিশুদের টিকাকরণ নিয়ে উদ্বিগ্ন নরেন্দ্র মোদি

    মীরাটে শব্দসীমা কমানো হয়েছে ৫,৯৭৬ টি স্থানে, বরেলিতে ৬,২৫৭ টি স্থানে, লখনউতে ৬,৪০০ টি স্থানে, কানপুরে ১,৭১৩ টি স্থানে, প্রয়াগরাজে ১,০৭৩ টি স্থানে, গোরখপুরে ২,৭৬৭ টি স্থানে, বারাণসীতে ২,৪১৭ টি স্থানে, লখনউ কমিশনারেটের ১২৩৫ টি স্থানে, কানপুর কমিশনারেটের ৯৫ টি স্থানে, গৌতম বুদ্ধ নগরে ৪৬২টি এবং বারাণসী কমিশনারেটের ৩৭৪ টি স্থানে ।

    কর্তৃপক্ষ লাউডস্পিকার ব্যবহারের বিষয়ে ৩৭,৩৪৪ জন ধর্মীয় নেতার সঙ্গে কথা বলেছে। রমজান মাস শেষ হওয়ার পরপরই ৩১,০০০ টি স্থানে ২৯ এপ্রিল আলবিদা (রমজানের শেষ শুক্রবার)  অনুষ্ঠিত হবে। স্পর্শকাতর স্থানে পুলিশ বাহিনীকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Yogi Adityanath

    পরবর্তী খবর