কারও ওপর নির্ভরশীল নন, ৯৮ বছর বয়সেও ছোলা বিক্রি করে সংসার চালান বৃদ্ধ

কারও ওপর নির্ভরশীল নন, ৯৮ বছর বয়সেও ছোলা বিক্রি করে সংসার চালান বৃদ্ধ

বয়স তাঁর ৯৮, মাথায় পাকা চুল, মুখ-ভর্তি পাকা দাড়ি, বয়সের ভারে খানিক নুব্জ, কিন্তু তাও কারও ওপর নির্ভরশীল নন, বৃদ্ধ এই বয়সেও আত্মনির্ভর

বয়স তাঁর ৯৮, মাথায় পাকা চুল, মুখ-ভর্তি পাকা দাড়ি, বয়সের ভারে খানিক নুব্জ, কিন্তু তাও কারও ওপর নির্ভরশীল নন, বৃদ্ধ এই বয়সেও আত্মনির্ভর

  • Share this:

    #রায়বরেলি: বয়স তাঁর ৯৮, মাথায় পাকা চুল, মুখ-ভর্তি পাকা দাড়ি, বয়সের ভারে খানিক নুব্জ, কিন্তু তাও কারও ওপর নির্ভরশীল নন, বৃদ্ধ এই বয়সেও আত্মনির্ভর ! প্রকৃত অর্থেই আত্মনির্ভর! আজও তিনি খেটে নিজের অর্থ-সংস্থানের ব্যবস্থা করেন! লখনৌ শহর থেকে ৭৯ কিমি দূরে রাস্তার ধারে ছোলা সেদ্ধ বিক্রি করে দিন গুজরান করেন ৯৮ বছর বয়সি বিজয় পাল সিং। ঠোঁটের কোনায় হাসি ফুটিয়ে বলেন, রোজগার করতেই হবে এমনটা নয়, সুস্থ-সবল থাকার জন্যই এখনও কাজ করে চলেছি!

     ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসনের তরফে বৃদ্ধের হাতে পুরস্কার বাবদ তুলে দেওয়া হয় নগদ ১১,০০০ টাকা। দেওয়া হয় লাঠি, শাল ও একটি সম্মানের শংসাপত্র-ও।

    বিজয় পাল সিং-এর গল্প সামনে আসে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রাস্তার ধারে একটা লম্বামতো কাঠের টেবিলের সামনে দাঁড়িয়ে অশীতিপর বৃদ্ধ। ব্যস্ত হাতে তৈরি করছেন ছোলা মাখা, ছোলার সঙ্গে লেবু মাখতে মাখতে বলছেন, '' আমার পরিবার বড় ঠিকই, কিন্তু এই বয়সে কাজ না করলেও চলে যেত, তবু আমি পরিশ্রমের মধ্যেই থাকি... এতে সুস্থ থাকা যায়!''

    রায়বরেলির ডিসট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট বৈভব শ্রীবাস্তব জানান, সরকারি প্রকল্পের আওতায় বিজয় পাল সিং একটি বাড়িও পাবেন। তিনি আরও বলেন, '' ভিডিওটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরও নজরে এসেছে। শৌচাগার সংস্কারের জন্য সরকারের তরফে 'বাবা'-কে আর্থিক সাহায্য করা হয়েছে। 'বাবা'-র যা-যা প্রয়োজন, প্রশাসন নিশ্চয়ই দেখবে। উনি আমাদের সবার অনুপ্রেরণা।''

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: