Home /News /national /

Farmer Protest Song: জয়ের উচ্ছ্বাস, বিয়ের অনুষ্ঠানেও শোনা যাচ্ছে 'কৃষকদের' এই গান!

Farmer Protest Song: জয়ের উচ্ছ্বাস, বিয়ের অনুষ্ঠানেও শোনা যাচ্ছে 'কৃষকদের' এই গান!

Farmer Protest Songs

Farmer Protest Songs

কয়েক মাসব্যাপী কৃষি আন্দোলনকে মহিমান্বিত করে এমন গান এখন হরিয়ানার অনেক বিয়ের অনুষ্ঠানেই বাজতে শুরু করেছে। (Farmer Protest Song)

  • Share this:

#চণ্ডীগড়: এক অবিশ্বাস্য ঘটনার সাক্ষী থাকল ফতেহাবাদের ভুথান কালান গ্রাম। গ্রামে এই দিন বিবাহের অনুষ্ঠান হঠাৎই হয়ে উঠেছিল কৃষকদের জয়ের আনন্দ উৎসব। (Farmer Protest Song)

বিয়ে চলাকালীন যখন ৫৬ বছর বয়সী গ্রামের এক বাসিন্দা চেলু রামকে নাচের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বলা হয়, তখন তিনি কৃষকদের গান বাজাতে বলেন। শীঘ্রই হরিয়ানার লোকগান মোদিজি থারি তোব কড়ে, হম দিল্লি আগে বাজানো শুরু হলে চেলু রাম সহ গ্রামবাসীরা নাচের অনুষ্ঠানে যোগ দেন। (Farmer Protest Song)

তবে এই চিত্র শুধু ভুথান কালানেই সীমাবদ্ধ নয়। কয়েক মাসব্যাপী কৃষি আন্দোলনকে মহিমান্বিত করে এমন গান এখন হরিয়ানার অনেক বিয়ের অনুষ্ঠানেই বাজতে শুরু করেছে। (Farmer Protest Song)

আরও পড়ুন: মমতার ম্যারাথন বৈঠক, কলকাতার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা TMC-র! জায়গা পেলেন ফিরহাদও

গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) ঘোষণা অনুযায়ী তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন ফিরিয়ে নেওয়া হয়। পরবর্তী বড় কোনও ঘটনা না ঘটা পর্যন্ত এই গানেই মুখরিত হয়ে উঠবে কৃষকদের আনন্দ অনুষ্ঠান।

বিয়ের অনুষ্ঠানের জনপ্রিয় হওয়ার আগে, মোদিজি থারি তোব কড়ে, হম দিল্লি আগে গানটি সমগ্র উত্তর ভারত জুড়ে হাজার হাজার কৃষককে প্রতিবাদ করতে অনুপ্রাণিত করেছিল। অনেকেই গানটিকে মোবাইলের রিংটোন, কলারটিউন হিসেবেও ব্যবহার করেছে।

কালানের মতো একইভাবে রোহতক গ্রাম নিবাসী এক্স-সার্ভিসম্যান অজয় ​​হুদার (Ajay Hooda) লেখা আরেকটি লোক গান কদর কিসান কি-ও (Kadar Kissan Ki) দেশের বিভিন্ন স্থানে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় লক্ষ লক্ষ দর্শকরা এই গানটি শেয়ার করেছেন। এই গানে কৃষকদের আত্মহত্যার জলন্ত সমস্যাকে তুলে ধরা হয়।

আরও পড়ুন: প্রকাশিত হল ২০২২-এর রাজ্য সরকারি ছুটির তালিকা, পুজোয় এবার একটানা কতদিন?

গীতিকার অজয় ​​হুদা ওই সময় জানিয়েছিলেন ‘কদর কিসান কি’ গানটি YouTube, Facebook এবং Instagram-এর মতো বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের অন্তত ১,৭০০টি চ্যানেল বা গ্রুপে আপলোড করা হয়েছে।

গানের উদ্দেশ্য সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে হুদা বলেছিলেন, “এই দেশে কেবল দুই দেবতা রয়েছে- একজন কিষাণ এবং অন্যজন জওয়ান। একজন জওয়ান বেতন পান এবং দেশের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকেন। ঠিক সেই ভাবেই অন্যজন সারা দেশের মানুষকে খাওয়ান। কিন্তু তা সত্ত্বেও কৃষকরা প্রতিকূল আর্থিক পরিস্থিতির সম্মুখীন। আমি কৃষকদের নিয়ে গান লিখে শুধুমাত্র তাদের সমস্যাগুলোকেই তুলে ধরতে চেয়েছিলাম।” ফতেহাবাদের আরেক কৃষক নেতা মনদীপ নাথওয়ানের (Mandeep Nathwan) কথায় “শুধু গান নয়, কৃষকের পতাকাও এখন সারা দেশ জুড়ে গর্বের প্রতীক হয়ে উঠেছে।” তাই বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে যে কোনও অনুষ্ঠানই এখন কৃষকদের আনন্দ জয়ের ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে হরিয়ানায়।

Published by:Raima Chakraborty
First published:

Tags: Farm Law, Farmer Protest, Farmers Bill, Narendra Modi

পরবর্তী খবর