Home /News /national /
BJP: হাজির মাত্র সাত জন, শিক্ষক দুর্নীতি নিয়ে সংসদ চত্বরে ধরনা বাংলার বিজেপি সাংসদদের

BJP: হাজির মাত্র সাত জন, শিক্ষক দুর্নীতি নিয়ে সংসদ চত্বরে ধরনা বাংলার বিজেপি সাংসদদের

সংসদ ভবনে বাংলার বিজেপি সাংসদদের বিক্ষোভ৷

সংসদ ভবনে বাংলার বিজেপি সাংসদদের বিক্ষোভ৷

বিজেপি-র অভিযোগ, প্রাথমিকে দুর্নীতিতে সরাসরি জড়িত রাজ্য সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন বিজেপি সাংসদরা।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি : গান্ধি মূর্তির পাদদেশে দলের বিক্ষোভ প্রদর্শনে নেই বঙ্গ বিজেপির অধিকাংশ সাংসদ। ১৬ জনের মধ্যে হাজির মাত্র ৭ জন সাংসদ। আজ সকালে সভা শুরুর আগে গান্ধি মূর্তির পাদদেশে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন রাজ্য বিজেপি সাংসদরা। উপস্থিত ছিলেন রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, লকেট চট্টোপাধ্যায়, জ্যোতির্ময় সিং মাহাতো।

যদিও দলের প্রাক্তন রাজ্যসভাপতি এবং সর্বভারতীয় সহ সভাপতি, সাংসদ দিলীপ ঘোষকে দেখা যায়নি এই বিক্ষোভ প্রদর্শনে। বিজেপি-র অভিযোগ, প্রাথমিকে দুর্নীতিতে সরাসরি জড়িত রাজ্য সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন বিজেপি সাংসদরা।

আরও পড়ুন: 'দল, মন্ত্রিসভাকে অসম্মান করবেন না!' পার্থ কাণ্ডের মধ্যেই মন্ত্রীদের বললেন মমতা

সুকান্ত মজুমদার বলেন, "আমরা বলছি, পার্থ চট্টোপাধ্যায় প্রাথমিকে দুর্নীতির তদন্তে গ্রেফতার হয়েছেন। তিনি একা এত বড়ো দুর্নীতি করতে পারেন না। তৃণমুল কংগ্রেস এমন একটি দল যেখানে প্রার্থী নির্বাচন করা, টিকিট দেওয়া সব সিদ্ধান্তই নেন নেত্রী। ফলে তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারে এত বড় কাণ্ড ঘটেছে, অথচ মুখ্যমন্ত্রী কিছু জানেন না, এটা হতে পারে না। রাজ্য জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের যে খাদ্যশৃঙ্খল রয়েছে, তাতে যে নেতারা জড়িত, তাঁদেরও গ্রেফতার করা প্রয়োজন।"

আরও পড়ুন: বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভায় রদবদল, বাদ যাবেন চার থেকে পাঁচ জন ! নবান্নে বড় ঘোষণা মমতার

যদিও বিজেপির বিক্ষোভকে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূ সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি দাবি করেছে,৭-৮ জন বিজেপি সাংসদ নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেছেন তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে। সেই কারণেই গড়হাজির ছিলেন তাঁরা।

একই সঙ্গে বিজেপি সাংসদদের উদ্দেশে তিনি বলেছেন, "শিক্ষক নিয়োগের দুর্নীতির তদন্ত করছে ইডি। সিবিআই, ইডির সবই কেন্দ্রীয় এজেন্সি। তাহলে কাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করছেন বিজেপি সাংসদরা?" এ দিকে, রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগে জট কাটতে চলেছে। এসএসসি নবম-দ্বাদশ ২০১৬ আন্দোলনকারী চাকরিপ্রার্থীদের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে ইতিমধ্যেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক হয়েছে। তাঁর ক্যামাক স্ট্রিট অফিসে হয় সেই বৈঠক। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও ছিলেন বৈঠকে।

রাজ্যের শাসক দলের বক্তব্য, অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এই সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী। তবে এর বেশ কিছু প্রশাসনিক ও আইনি জটিলতা আছে। সেই জট কাটানোর পথ খোঁজা চলছে দু' তরফেই। বৈঠকের গতি প্রকৃতিকে আন্দোলনকারীরাও ইতিবাচক বলে জানিয়েছেন।  আগামী ৮ অগাস্ট পরবর্তী বৈঠক হবে ব্রাত্য বসুর দফতরে। সেখানে কমিশনের চেয়ারম্যানও থাকবেন।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: BJP

পরবর্তী খবর