Home /News /national /
PM Narendra Modi: গুজরাতের রূপরেখা আমূল বদলে দিয়েছেন মোদি, ভূয়সী প্রশংসা ভূপেন্দ্র প্যাটেলের

PM Narendra Modi: গুজরাতের রূপরেখা আমূল বদলে দিয়েছেন মোদি, ভূয়সী প্রশংসা ভূপেন্দ্র প্যাটেলের

Modi granted the permission to Gujarat’s long-standing demand for the closure of Sardar Sarovar Dam gates. Another significant gift from Modi to Gujarat is the high-speed bullet train. (PTI File Photo)

Modi granted the permission to Gujarat’s long-standing demand for the closure of Sardar Sarovar Dam gates. Another significant gift from Modi to Gujarat is the high-speed bullet train. (PTI File Photo)

PM Narendra Modi: “প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদির মেয়াদের একটি মূল বৈশিষ্ট্য ছিল বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে বৈঠক পরিচালনার জন্য নয়াদিল্লি ছাড়াও অন্যান্য রাজ্যকে সমান অগ্রাধিকার দেওয়া। এই ধরনের ব্যক্তিত্বদের স্বাগত জানানোর জায়গাগুলির জন্য গুজরাত অবশ্যই তার তালিকার শীর্ষে রয়েছে। ” জানালেন প্যাটেল।

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল ৷  ভারতের এই নতুন পরিচয় যে তিনি তৈরি করেছেন, এর বীজ বপন করা হয়েছিল তখন, যখন তিনি গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রথম নর্মদা যোজনার অধীনে সর্দার সরোবর বাঁধের গেট বন্ধ করার অনুমোদন দিয়েছিলেন। এই প্রকল্পকে সেই রাজ্যের লাইফলাইন বলে মনে করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়েছিল যা মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান এবং মহারাষ্ট্রের সমস্যাগুলি সমাধান করে রিপোর্ট জমা দেয়। কমিটির সম্মতিতে, গেটগুলি শেষ পর্যন্ত ২০১৭ সালের ১৬ জুন বন্ধ করা হয়৷ গেটগুলি বন্ধ করার ফলে বাঁধের ধারণক্ষমতা ৩.৭৫ গুণ বেড়ে যায়৷

    দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা সমাধান করেন মোদি ৷ ২০১৫ সালের মার্চ মাসে গুজরাত সরকারকে রাজ্যের অগ্রাধিকার এবং প্রয়োজনের জন্য অপরিশোধিত তেলের রয়্যালটি হিসাবে ৭৬৩ কোটি টাকা প্রদানের অনুমোদন দেন। বিষয়টি তখন সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন থাকায় এটি রাজ্যের পক্ষে আরেকটি বড় সিদ্ধান্ত ছিল।

    রাজ্যে একটি অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস (AIIMS)-এর মতো প্রতিষ্ঠান তৈরির দাবি ছিল৷ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মোদি সেই প্রয়োজনটি বুঝতে পেরেছিলেন। তাই প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে স্বাস্থ্যসেবা পরিকাঠামোকে শক্তিশালী করার জন্য তাঁর সংকল্প বাস্তবায়িত করেছিলেন মোদি৷ কারণ তিনি রাজকোটে AIIMS প্রতিষ্ঠার অনুমোদন দিয়েছিলেন এবং পরে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন।

    আরও পড়ুন- করোনার মতোই মহামারী ডেকে আনতে পারে কি মাঙ্কিপক্স ভাইরাস? কী বলছেন বিজ্ঞানীরা?

     বাতিঘর প্রকল্পের অধীনে নগর বিষয়ক মন্ত্রকের একটি উচ্চাভিলাষী প্রকল্পে ঘর সরবরাহ করা হয়। এই প্রকল্পের অধীন রাজ্যগুলি হল ত্রিপুরা, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, তামিলনাড়ু এবং গুজরাত। লাইট হাউস প্রকল্পের অধীনে রাজকোট শহরে ১,১৪৪টি বাড়ি তৈরি করা হচ্ছে।

    গুজরাতকে দেওয়া মোদির আরেকটি উল্লেখযোগ্য উপহার হল হাই-স্পিড বুলেট ট্রেন। জাপানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের উপস্থিতিতে ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭-এ এই প্রকল্পের ভিত্তি স্থাপন করেছিলেন মোদি। সম্প্রতি, জানা গিয়েছে যে এই প্রকল্পের অধীনে গুজরাত থেকে ৯৮ শতাংশ জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে৷

    আরও পড়ুন-দক্ষিণবঙ্গে বাড়বে গরম ও অস্বস্তি, কলকাতা ও অন্যান্য জেলায় বৃষ্টির সম্ভাবনা কবে ? জেনে নিন

    গত কয়েক বছরে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি গুজরাটের একটি ল্যান্ডমার্ক হয়ে উঠেছে। ১৮২ মিটার লম্বা এই মূর্তিটি দেখার জন্য সারা বিশ্ব থেকে পর্যটকরা এখানে যান। গত মাসে, মোদি জামনগরে WHO গ্লোবাল সেন্টার ফর ট্র্যাডিশনাল মেডিসিন (GCTM) এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন৷ রাজকোটের গ্রিনফিল্ড বিমানবন্দরের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা দিয়ে সজ্জিত করার সুবিধাও দিয়েছেন। আহমেদাবাদ-রাজকোট হাইওয়েতে অবস্থিত বিমানবন্দরটি ১,৪০৫ কোটি টাকার আনুমানিক ব্যয়ে এক হাজার হেক্টরেরও বেশি জমিতে নির্মিত হচ্ছে। এই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর অনেক বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে এবং দেশের রফতানি বাড়াবে বলে আশা করা হচ্ছে।

    “প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদির মেয়াদের একটি মূল বৈশিষ্ট্য ছিল বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে বৈঠক পরিচালনার জন্য নয়াদিল্লি ছাড়াও অন্যান্য রাজ্যকে সমান অগ্রাধিকার দেওয়া। এই ধরনের ব্যক্তিত্বদের স্বাগত জানানোর জায়গাগুলির জন্য গুজরাত অবশ্যই তার তালিকার শীর্ষে রয়েছে। ” জানালেন প্যাটেল।

    সময়টা নেহাত কম নয়। আট বছর! আর এই আট বছর কিন্তু জনগণের সিদ্ধান্ত বা মত পরিবর্তনের জন্য যথেষ্ট। নরেন্দ্র মোদি এই ধরনের প্রতিকূলতাকে আমল দেননি। বরং প্রতিবন্ধকতা লঙ্ঘন করার প্রবণতাই তাঁর মধ্যে লক্ষ্য করা গিয়েছে৷ প্রধানমন্ত্রী হিসাবে আট বছর পূর্ণ করেছেন৷ ২০২৪-এর আসন নির্বাচনের ভিতও তিনি শক্ত করছেন ক্রমশ৷ উত্তর প্রদেশ এবং বিহারের মতো গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যগুলিতে বিপুল ভোটে জয় এমনটিতেই বুঝিয়ে দিয়েছে যে দেশের বৃহত্তর জনগণ তাঁর দলের পক্ষেই রয়েছে। কোভিড মোকাবিলায় যে ভূমিকা মোদি নিয়েছেন, তার প্রশংসা করেছেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। কোয়াড সম্মেলনে  ভূয়সী প্রশংসিত হয়েছেন মোদি। পাশাপাশি মুদ্রাস্ফীতি ইস্যু, চিন-ভারত সম্পর্ক, লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে (এলএসি) ক্রমাগত স্থবিরতা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের পরে পরিবর্তিত পরিস্থিতিগুলিকে তিনি চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়েছেন। মোকাবিলাও করেছেন। রাজনীতিকদের মতে, মোদি নেতৃত্বাধীন সরকার কখনও টার্গেট করেছে হিন্দুত্ববাদকে, কখনও গ্রামীণ ভোটারকে। অন্যদিকে বিরোধী দলের শুধুমাত্র যে একটি শক্তিশালী মুখের অভাব রয়েছে তাই নয়, তাদের স্ট্র্যাটেজিরও অভাব রয়েছে। া

    Published by:Rachana Majumder
    First published:

    Tags: Gujarat, PM Narednra Modi

    পরবর্তী খবর