• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • পথকুকুরকে তুলে নিয়ে গেল ব্ল্যাক প্যান্থার, ভাইরাল ভিডিও দেখলে শিউড়ে উঠবেন!

পথকুকুরকে তুলে নিয়ে গেল ব্ল্যাক প্যান্থার, ভাইরাল ভিডিও দেখলে শিউড়ে উঠবেন!

সিসিটিভি-তে ওঠা ওই ভিডিও-তে দূর থেকে একটি ব্ল্যাক প্যান্থারকে কোনও বাড়ির উঠোনে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে।

সিসিটিভি-তে ওঠা ওই ভিডিও-তে দূর থেকে একটি ব্ল্যাক প্যান্থারকে কোনও বাড়ির উঠোনে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে।

সিসিটিভি-তে ওঠা ওই ভিডিও-তে দূর থেকে একটি ব্ল্যাক প্যান্থারকে কোনও বাড়ির উঠোনে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে।

  • Share this:
#কর্নাটক: অতি সম্প্রতি কর্নাটকের কাবিনি ফরেস্টে ব্ল্যাক প্যান্থারের রাজকীয় চালচলনের ছবি শোরগোল ফেলে দিয়েছিল। এবার একই প্রাণীর এক ভয়ঙ্কর ও নির্দয় ভিডিও ভাইরাল হল সোশ্যাল মিডিয়ায়। রাস্তার এক কুকুরকে মুখে করে নিয়ে অন্ধকারে মিলিয়ে গেল সে। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন সুধা রমেন নামের এক ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস (Indian Forest Service) বা আইএফএস (IFS) কর্তা। সিসিটিভি-তে ওঠা ওই ভিডিও-তে দূর থেকে একটি ব্ল্যাক প্যান্থারকে কোনও বাড়ির উঠোনে এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে। পা টিপে টিপে সন্তর্পণে নিজের লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে আসছে প্রাণীটি। যদিও তার লক্ষ্য ক্যামেরায় দৃশ্যমান নয়। তবু কিছু একটা যে ঘটতে চলেছে, তা বোঝাই যাচ্ছে। তাই রুদ্ধশ্বাস ভিডিও থেকে এক মুহুর্তের জন্যও কিছুতেই চোখ সরানো যাবে না। ঘটনাটি গভীর রাতের বলেই মনে করা হচ্ছে। টিমটিমে আলোর নিচে ওই কালো প্রাণীকে সাক্ষাৎ মৃত্যুর দূত বলে মনে হতে পারে অনেকের। মনে হতে পারে যেন এক লহমায় সবকিছু লন্ডভন্ড করে দিতে পারে ওই ব্ল্যাক প্যান্থার। কিন্তু লক্ষ্য যে অন্য দিকে। ধীরে ধীরে এগিয়ে আসা হিংস্র প্রাণীটি আচমকাই ক্ষিপ্র হয়ে ক্যামেরা থেকে ছিটকে বেরিয়ে যায়। পর মুহুর্তে কুকুরকে মুখে তুলে নিয়ে ফের একই রাস্তা দিয়ে অন্ধকারে মিলিয়ে গেল ওই ব্ল্যাক প্যান্থার। ইতিমধ্যে আর্তনাদ করে চলেছে ওই সারমেয়। কিন্তু তা শোনার জন্য আশেপাশে হাজির ছিল না কেউ। ফলে অসহার আত্মসমর্পণ ছাড়া ওই বেচারা কুকুরের কাছে আর কোনও পথ ছিল না। ঘটনাটি কোন এলাকার, তা অবশ্য জানানো হয়নি। ভিডিও পোস্ট করার পাশাপাশি ওই আইএফএস অফিসার লিখেছেন, কালো হলেও এই প্রাণী চিতা বাঘেরই সমান। কুকুরের মাংস যে এ ধরনের প্রাণীদের পছন্দের আহার, তাও জানাতে ভোলেনি সুধা রমেন নামে ওই মহিলা। যা দেখে শিহরিত হয়েছেন নেটিজেনরা। ভিডিও-তে প্রায় ৩০ হাজার ভিউ পড়ে গিয়েছে। নেটিজেনদের তরফে নানা প্রতিক্রিয়াও নজর কেড়েছে। কেউ লিখেছেন যে তাঁর এলাকায় রাস্তার কুকুরের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে। তা থেকে মুক্তি পেতে এ ধরনের ব্ল্যাক প্যান্থারকে তিনি ভাড়া নিতে চান। কেউ প্রকৃতির নিজস্ব খেয়ালকে গুরুত্ব দিয়েছে। বাস্তুতন্ত্রের এই নিয়মকে মানুষ নিজে হাতে ধ্বংস করে বলে লিখেছেন এক নেটিজেন। কেউ বেচারা কুকুরের জন্য দুঃখপ্রকাশ করে প্রকৃতির দান বলে পরিস্থিতি মেনেও নিয়েছেন। এক নেটিজেন তো আবার এক নিজস্ব অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন। জানিয়েছেন যে প্রতি রাতে তাঁর এলাকা একাধিক কুকুরের চিৎকার শোনা যাতে। একদিন সকালে সারমেয়দের দলের এক সদস্য হারিয়ে যায়। বন্য চিতাবাঘের পেটে ওই কুকুরের হাড়-মাস গিয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই নেটিজেন।
First published: