• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ১১হাজার রোগীর চিকিৎসায় বরাদ্দ ১জন সরকারি চিকিৎসক, মোদির নয়া স্বাস্থ্যবিমায় কি ঘাটতি পূরণ হবে ?

১১হাজার রোগীর চিকিৎসায় বরাদ্দ ১জন সরকারি চিকিৎসক, মোদির নয়া স্বাস্থ্যবিমায় কি ঘাটতি পূরণ হবে ?

A Network18 creative by Mir Suhail.

A Network18 creative by Mir Suhail.

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: রবিবার ঝাড়খণ্ডে সরকারি উদ্যোগে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্বাস্থ্যবিমার সূচনা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ এই যোজনার ফলে উপকৃত হবেন প্রায় ১০ কোটি পরিবার ও প্রত্যেকটি পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিমা দেওয়া হবে । মূলত অর্থনৈতিকভাবে অনগ্রসর পরিবারগুলিকে এই সুবিধা দেওয়া হবে । এই বিমা পাওয়ার জন্য মোবাইল নম্বর, রেশন কার্ড সহ বেশ কয়েকটি নথিপত্র জমা দিতে হবে ।

    বেশ কয়েকমাস আগে একটি সমীক্ষা প্রকাশ্যে এসেছিল ৷ সেই সমীক্ষা অনুযায়ী, দেশের ১১ হাজার মানুষের চিকিৎসার জন্য বরাদ্দ রয়েছে মাত্র ১জন সরকারি ডাক্তার ৷ পাশাপাশি দেশের প্রত্যন্ত গ্রামের বাসিন্দারা সরকারি চিকিৎসা থেকেই বঞ্চিত রয়েছেন ৷ সেক্ষেত্রে আয়ূষ্মান ভারত সূচনা করার মারফত চিকিৎসকদের ঘাটতি পূরণের চেষ্টা করছে মোদি সরকার ? বলে রাখা ভাল, এই স্বাস্থ্যবিমায় চিকিৎসকদের ঘাটতি পূরণ হবে না ঠিকই ৷ তবে, চিকিৎসা ব্যবস্থায় খরচ বেশ কিছুটাই লঘু হতে চলেছে ৷ এমনটাই মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ৷

    আরও পড়ুন: "ফের বাড়ল জ্বালানির দাম ! দেখে নিন কলকাতায় পেট্রোল-ডিজেলের দাম কত ?"

    বিহারের চিকিৎসা ব্যবস্থা আরও শোচনীয় ৷ ওই রাজ্যে ২৮,৩৯১ জন রোগীর চিকিৎসা করেন একজন সরকারি চিকিৎসক ৷ পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশেরও একই হাল ৷ ১৯,৯৬২ জনের চিকিৎসার দায়িত্ব ১জন সরকারি চিকিৎসকের উপরে ৷

    এই প্রকল্প প্রসঙ্গে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস বলেন, এই যোজনা মারফত রাজ্যের ৫৭ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন ৷

    দেশের প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলিতে মেডিকেল অফিসারের পদ খালি রয়েছে প্রায় ৬৫.৮ শতাংশ ৷ যার জেরে প্রত্যন্ত গ্রামের সরকারি হাসপাতাল গুলিতে উপচে পড়ে রোগীর ভিড় ৷ কিন্তু চিকিৎসকের অভাবে অতিরিক্ত গাঁটের কড়ি খরচ করে সকলকে শহরে আসতে হয় ৷ বেশ কিছু ক্ষেত্রে ঋণ নিয়েও চিকিৎসা করাতে হয় ৷ তবে, এই বিমা চালু হলে সেই সমস্ত সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন দেশবাসী ৷

    তবে, এই নয়া যোজনা সূচনা করার জেরে দেশের সমস্ত সরকারি হাসপাতালে এবং বেশ কিছু বেসরকারি হাসপাতালেও ই বিমার সুবিধা মিলবে ৷ এই প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি পরিবার বছরে ৫ লাখ টাকার বিমা পাবে ৷

    First published: