Home /News /nadia /
Nadia: ৩৫০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করল ভীমপুর থানার পুলিশ

Nadia: ৩৫০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করল ভীমপুর থানার পুলিশ

জেলায় একাধিক নিষিদ্ধ নেশার দ্রব্য পাচারের ঘটনা উঠে আসছে প্রায়সই। পুলিশ অত্যন্ত তৎপরতার সাথে জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে একাধিক নিষিদ্ধ দ্রব্য পাচারের খবর পেয়ে সেগুলিকে আটক করে।

  • Share this:

    #ভীমপুর: জেলায় একাধিক নিষিদ্ধ নেশার দ্রব্য পাচারের ঘটনা উঠে আসছে প্রায়সই। পুলিশ অত্যন্ত তৎপরতার সাথে জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে একাধিক নিষিদ্ধ দ্রব্য পাচারের খবর পেয়ে সেগুলিকে আটক করে। ঠিক তেমনই বড়সড় সাফল্যের মুখ দেখল ভীমপুর থানার পুলিশ। প্রায় ৩৫০০ বোতল নিষিদ্ধ ফেনসিডিল উদ্ধার করে পুলিশ। ফেনসিডিল হল একটি নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ। এই কাশির সিরাপ প্রায়শই দেখা যায় বাংলাদেশে পাচার হতে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জেলার একাধিক সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে এই নিষিদ্ধ ফেনসিডিল ও পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জানা যায়, গোপন সূত্রে ভীমপুর থানার পুলিশ খবর পায় পাচারের। সেইমত মঙ্গলবার গভীর রাতে পুলিশ নাকা চেকিং চালায় কৃষ্ণগঞ্জ মাজদিয়া সড়কের কুলগাছি এলাকায়। সেই সময় একটি গাড়িকে দেখে সন্দেহ হলে গাড়িটিকে থামায় ভীমপুর থানার পুলিশ। পুলিশকে দেখেই গাড়ির ড্রাইভার ও খালাসী চম্পট দেয়। এরপরই পুলিশ গাড়িটিকে আটক করে এবং গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৩৫০০ বোতল নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ ফেনসিডিল।

    এই পাচারের সঙ্গে কে বা কারা যুক্ত তার তদন্ত শুরু করেছে ভীমপুর থানার পুলিশ। প্রসঙ্গত, প্রায়শই জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করা হচ্ছে নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য। ফেনসিডিল তার মধ্যে অন্যতম। ফেনসিডিল হল একটি কাশির সিরাপ, যা আমাদের দেশে সম্পূর্ণরূপে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

    আরও পড়ুনঃ দীর্ঘদিন ধরে স্টেশনে ভাঙা শেড, অসুবিধায় নিত্যযাত্রীরা

    জেলার একাধিক এলাকা থেকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে একাধিক ফেনসিডিল ও পাচারকারীদের গ্রেপ্তার করেছে ইতিমধ্যেই। বেশ কিছু নিষিদ্ধ ফেনসিডিল পাচার হয়ে থাকে সীমান্তের ওপারে বাংলাদেশে। এই কাশির সিরাপ মূলত মাদকদ্রব্য হিসেবেই বিক্রি করে থাকেন দুষ্কৃতীরা। এবং তা পাচার করা হয় সীমান্তবর্তী একাধিক জেলা থেকেই।

    আরও পড়ুনঃ দীর্ঘদিন ধরে পরিশ্রুত পানীয় জল না মেলায় ক্ষোভ এলাকাবাসীদের

    তার মধ্যে অন্যতম নদিয়া, মুর্শিদাবাদ ও উত্তর ২৪ পরগনা। আবারও নদিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা ভীমপুর থেকে আটক করা হয় ৩৫০০ বোতল ভর্তি ফেনসিডিল সমেত একটি গাড়ি। এত পরিমাণ ফেনসিডিল কোথা থেকে এল এবং কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তার তদন্ত শুরু করেছে ভীমপুর থানার পুলিশ।

    Mainak Debnath
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Nadia

    পরবর্তী খবর