Home /News /malda /
Malda News- জল থৈ থৈ বোরো ধানের জমি! লাগাতার ঝড় বৃষ্টিতে মাথায় হাত কৃষকদের

Malda News- জল থৈ থৈ বোরো ধানের জমি! লাগাতার ঝড় বৃষ্টিতে মাথায় হাত কৃষকদের

হাটু

হাটু জলে ধান কাটছেন কৃষক ও শ্রমিকের

মালদহ জেলা জুড়ে লাগাতার ঝড়-বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত বোরো ধান চাষিরা। গত এক সপ্তাহ ধরে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে ব্যাপক বৃষ্টিপাত হয়েছে। নীচু এলাকার জমিগুলি চলে গিয়েছে জলের তলায়। এমন অবস্থায় ধান কাটতে চরম সমস্যায় পড়ছেন কৃষকেরা

  • Share this:

    #মালদহ- আবহাওয়ার পূর্বাভাস পেয়ে কৃষকদের আগে থেকেই সতর্ক করা হয়েছিল জেলা কৃষি দফতরের তরফ থেকে। তবে সেই সময় মাঠের ধান ঠিকমতো না পাকায় চাষিরা কাটতে পারেননি। সেই সময় মালদহ জেলার বিভিন্ন প্রান্তে, মাঠে ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ ধান পেকেছিল। জেলা কৃষি দফতরের সতর্কবার্তা না শোনায় অবশেষে ক্ষতির মুখে পড়তে হল মালদহ জেলার বিস্তৃর্ণ এলাকায় বোরো ধান চাষিদের। যদিও সে সময় আবহাওয়া খারাপ হতে থাকায় ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস পেয়ে বেশ কিছু কৃষক ধান কাটতে শুরু করেছিলেন। তবে লাগাতার মালদহ জেলায় কালবৈশাখীর ঝড়-বৃষ্টির জেরে কয়েক হাজার বিঘা জমির ধান নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এমন অবস্থায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন বোরো ধান চাষিরা।

    বোরো ধান তোলার মুহূর্তে গত সোমবার থেকে কয়েক দফায় জেলাজুড়ে বৃষ্টিপাত সাথে ঝড় হয়েছে। এই বৃষ্টিতে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পুরাতন মালদহের বোরো ধান চাষিরা। পুরাতন মালদহের বিস্তৃর্ণ এলাকাজুড়ে নীচু জমিতে বোরো ধান চাষ হয়। নীচু এলাকায় বৃষ্টির জল জমে যাওয়ায় জলের তলায় চলে গিয়েছে ধানের গাছ।

    আরও পড়ুন- বেড়েছে বাল্যবিবাহ ও শিশু শ্রমিকের সংখ্যা, শিশু সুরক্ষা নিয়ে বৈঠক মালদহে

    এখন জলমগ্ন হয়ে রয়েছে পুরাতন মালদহ ব্লকের যাত্রাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের মেহেরপুর, হালনা সহ বিভিন্ন এলাকা। ধানের জমিগুলি এখন বিশাল জলাশয়ে পরিণত হয়েছে। এই অবস্থায় কোনরকমে ভেজা ধান কাটার কাজ শুরু করেছেন চাষিরা। জলমগ্ন জমিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তাই প্রশাসনের সহযোগিতার আবেদন জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত চাষিরা।

    আরও পড়ুন- ধুঁকছে প্রাচীন বাংলার তাঁত শিল্প, পেটের তাগিদে এবার অন্যত্র কাজ খুঁজছেন শিল্পীরা!

    মালদহ জেলা কৃষি দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি বোরো মরশুমে মালদহ জেলায় মোট ৬৫ হাজার ৪৪২ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। আবহাওয়া খারাপ হওয়ার পূর্বাভাস পেয়ে জেলা কৃষি দফতরের পক্ষ থেকে অগ্রিম ধান কেটে নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছিল কৃষকদের কাছে। তবে মাঝে মধ্যেই জেলাজুড়ে ঝড় বৃষ্টির কারণে ধান কাটতে পারেননি কৃষকেরা।

    মালদহ জেলার হবিবপুর, বামনগোলা, পুরাতন মালদহ, গাজোল সহ অধিকাংশ ব্লকে ধান চাষ হয়ে থাকে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ২৯.২ মিলিমিটার। বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাপক ঝড়-বৃষ্টি হয়েছে জেলায়। মালদহ জেলা কৃষি দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এখন পর্যন্ত জেলায় ৪ হাজার ৪৬০ হেক্টর জমির বোরো ধান ঝড়-বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

    Harashit Singha
    First published:

    Tags: Farmers, Kalbaishakhi, Malda, Paddy, Rainfall

    পরবর্তী খবর