• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • শ্মশানপাড়ে বসবাস, চোখ রাঙাচ্ছে করোনাতঙ্ক, চায় ভ্যাকসিন

শ্মশানপাড়ে বসবাস, চোখ রাঙাচ্ছে করোনাতঙ্ক, চায় ভ্যাকসিন

শ্মশানপাড়ে বসবাস, চোখ রাঙাচ্ছে করোনাতঙ্ক, চায় ভ্যাকসিন

শ্মশানপাড়ে বসবাস, চোখ রাঙাচ্ছে করোনাতঙ্ক, চায় ভ্যাকসিন

ভ্যাকসিন চাই, এই দাবিতে এবার পথে নামলেন দুর্গাপুরের বীরভানপুর সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দারা। তাদের অভিযোগ, বীরভানপুর মহাশ্মশানে কোভিড ?

  • Share this:

    ভ্যাকসিন চাই, এই দাবিতে এবার পথে নামলেন দুর্গাপুরের বীরভানপুর সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দারা। তাদের অভিযোগ, বীরভানপুর মহাশ্মশানে কোভিড আক্রান্ত হয়ে মৃতদের দাহ করা হচ্ছে। তাই স্থানীয় বাসিন্দারা আশঙ্কা করছেন, সেখান থেকে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ভয় রয়েছে। সেজন্যই তারা ভ্যাকসিনের দাবিতে পথে নেমেছেন।

    দুর্গাপুর ব্যারেজ সংলগ্ন বীরভানপুর গ্রাম। কমবেশি সেখানে ৫ হাজার লোকের বসবাস। সেখানেই হয়েছে দুর্গাপুরের একমাত্র মহাশ্মশানটি। বীরভানপুর মহাশ্মশানে দাহ করা হচ্ছে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতদের দেহ। দিনভর ওই এলাকায় মানুষের যাতায়াত লেগেই থাকে। বিভিন্ন জায়গার মানুষ সেখানে আসেন। কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দারা এখনও ভ্যাকসিন পাননি। তারা বলছেন, বীরভানপুর সংলগ্ন এলাকায় বহু মানুষের বসবাস। কিন্তু সেখানে দিনভর যাতায়াত লেগে থাকার জন্য এবং কোভিড আক্রান্তদের দেহ দাহ করার জন্য, সেখানে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সেজন্যই তারা ভ্যাকসিন চাইছেন।

    স্থানীয় মানুষের অভিযোগ, এই বিষয়ে তারা মহকুমা শাসকের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন। কিন্তু সে অর্থে কোনো সদুত্তর মেলেনি। তারা বলছেন, বাড়িতে অনেক বৃদ্ধ, বৃদ্ধা এবং বাচ্চারা রয়েছে। তাদের অনেকের হয়তো মহকুমা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভ্যাকসিন নিতে যাওয়ার ক্ষমতা নেই। তাই তারা আবেদন জানিয়েছিলেন, স্থানীয় এলাকায় ক্যাম্প করে শ্মশান সংলগ্ন বাসিন্দাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হোক। কিন্তু প্রশাসনের তরফ সে অর্থে কোনো সদুত্তর না পেয়ে তারা প্রতিবাদে নেমেছেন।

    এদিন শ্মশান সংলগ্ন রাস্তায় তারা প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে বিক্ষোভ দেখান। ভ্যাকসিন চাই দাবিতে, আওয়াজ তোলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শ্মশান সংলগ্ন রাস্তায় প্রতিবাদের ফলে রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে কিছুক্ষণ প্রতিবাদ চলার পরে, প্রশাসনের আশ্বাসে তারা বিক্ষোভ, অবরোধ তুলে নেন। কিন্তু তারা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, তাদের ভ্যাকসিন না দেওয়া হলে, আগামী দিনে তারা একই দাবিতে আবার প্রতিবাদে সামিল হবেন।

    এমনিতেই বীরভানপুর মহাশ্মশানকে কেন্দ্র করে মাঝেমধ্যেই অভিযোগ ওঠে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, মহাশ্মশানের চুল্লি থেকে ধোঁয়া বেরোনোর যে চিমনিটি রয়েছে, সেখানে ফাটল দেখা দিয়েছে। সেখানে থেকেই এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। তাছাড়াও দিন কয়েক আগেই শ্মশান সংলগ্ন রাস্তার পাড়ে ব্যবহৃত পিপিই কিট পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল। যা নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন স্থানীয় মানুষ। তারপর ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভে সামিল হলেন তাঁরা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: