Home /News /local-18 /
Animals in Dooars: বন্যরা ফিরছে আপন ছন্দে! কোথায় কেমন বেড়েছে সংখ্যা? বিস্তারিত রিপোর্ট

Animals in Dooars: বন্যরা ফিরছে আপন ছন্দে! কোথায় কেমন বেড়েছে সংখ্যা? বিস্তারিত রিপোর্ট

লললল

লললল

Animals in Dooars: ডুয়ার্সের পর্যটনে খুশির খবর, জলদাপাড়ায় গন্ডারের সংখ্যা বাড়ছে।

  • Share this:

    #জলপাইগুড়ি: পুজোর আগে ভিস্তাডোম আর টয়ট্রেনের জোড়া উপহারে পর্যটন যেন নিজের সুস্বাস্থ্য ফিরে পেয়েছিল। এবার ডুয়ার্সের পর্যটনে খুশির খবর হল জলদাপাড়ায় গন্ডারের সংখ্যা বাড়ছে।

    আর সেজন্য জঙ্গলের ভেতর থেকে বেরিয়ে এসে কখনও তারা বাইসনকে ঢুসো দিতে ব্যস্ত, কখনও নদীর জলে আপন মেজাজে স্নান করতে, আবার কখনও নিজেদের মধ্যেই খুনসুটি করতে। একথা স্পষ্ট যে তাদের সংখ্যা এই করোনাকালে যথেষ্ট পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে।

    এদিকে এদিন জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানে এতগুলো গন্ডারকে একসঙ্গে দেখতে পেয়ে খুশি পর্যটকরাও। অপরদিকে, এই করোনাকালে গরুমারা জাতীয় উদ্যানেও বেড়েছে পশুর সংখ্যা। একই চিত্র শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি (Bengal Safari - Siliguri) ও দার্জিলিংয়ের পদ্মজা নাইডু হিমালয়ান জুলজিক্যাল পার্কেও (Padmaja Naidu Himalayan Zoological Park - Darjeeling zoo)।

    সলিটারি নেচার অ্যান্ড অ্যানিম্যাল প্রোটেকশন ফাউন্ডেশনের (Solitary Nature and Animal Protection Foundation - SNAP) কর্নধার ও প্রধান কৌস্তভ চৌধুরী বলেন, '১৯৮৫-৮৬ সালে জলদাপাড়াতে মাত্র ১৪টি গন্ডার ছিল। এরপরই বনদপ্তর নড়েচড়ে বসে। তারপর ২০১৫ এর শেষের দিকে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ২০৪টিতে। ফের ২০১৯ সালে অর্থাৎ করোনার ঠিক পূর্ববর্তী সময়ে মাংসাশী ও তৃণভোজী প্রাণীদের গণনা করা হয়।

    বনাঞ্চলের ২১৭ বর্গকিলোমিটার এলাকায় চালানো গণনায় ২৩১ - ২৩৭টি গন্ডারকে চিহ্নিত করা যায়। যারমধ্যে পুরুষ গন্ডারের সংখ্যা ৯৭টি ( প্রাপ্তবয়স্ক - ৬৮টি, উপবয়স্ক - ২৬টি ও শিশু - ৬টি ) রয়েছে। পাশাপাশি, মহিলা গন্ডারের সংখ্যা ৯১টি ( প্রাপ্তবয়স্ক - ৫৬টি, উপবয়স্ক - ২৭টি ও শিশু - ৮টি ) রয়েছে। এদের প্রত্যেককেই চিহ্নিত করা গিয়েছে। তবে এখনও ৪৩টি অচিহ্নিত গন্ডারও এই জলদাপাড়ার বনাঞ্চলে রয়েছে। পরিসংখ্যানে বলা যায়, ২০২১ এর শেষে ২৫০টিরও বেশি গন্ডার লক্ষ্য করা যাবে।

    এ প্রসঙ্গে জলদাপাড়া ন্যাশানাল পার্কের (Jaldapara National Park) বন-আধিকারিক (Divisional Forest Officer - DFO) দীপক এম. বলেন, '১৯৮৫ সালে গন্ডার বিপন্ন হয়ে যাওয়ার মুখে চলে এসেছিল। তারপর থেকে আমরা বিভিন্ন সময়ে সচেতনা বৃদ্ধি (awareness camp), হোডিং (Hoarding), ব্যানার (banners) প্রভৃতির মাধ্যমে মানুষকে বনমুখী করার চেষ্টা করি। যাতে মানুষ ও বন্যপ্রাণ সংঘাত রোখা যায়। পাশাপাশি, গন্ডারের এই অভূতপূর্ব সংখ্যাবৃদ্ধি অনেকাংশে পর্যটনের জন্যও সুখবর। মানুষ আসুক, বন্যপ্রাণ উপভোগ করুক এবং বন্যপ্রাণের গুরুত্ব বুঝতে পারুক সদা এই চেষ্টা থাকবে আমাদের।'

    একইভাবে, করোনাকালে বন্য প্রাণীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি (Bengal Safari - Siliguri) চিড়িয়াখানাতেও। রয়েল বেঙ্গল টাইগারের (Royal Bengal Tiger) সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে ২০২০ সালের অগাস্ট মাসে। এখন সেখানে রয়েল বেঙ্গল টাইগারের (Royal Bengal Tiger) সংখ্যা ৭টি। এছাড়া, হিমালয়ান ব্ল্যাক বিয়ারের (Himalayan Black Bear) সংখ্যা ৪টি এবং লেপার্ডের (Leopard) সংখ্যা ৫টি। যা যথেষ্ট ইতিবাচক বলে জানান শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারির (Bengal Safari - Siliguri) ডাইরেক্টর (Director) বাদল দেবনাথ।

    তিনি বলেন, 'করোনা মানুষের জন্য অভিশাপ হলেও বন্যপ্রাণের জন্য আর্শীবাদই বটে। যানবাহন না চলায় দূষণ যেমন রোধ হয়েছে, তেমনই বনাঞ্চলগুলিতে বন্যপ্রাণের প্রজননও যথেষ্ট পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। যা প্রকৃতির জন্য আর্শীবাদ। আমাদের বেঙ্গল সাফারিতে সাধারণত যে পশু আছে সেগুলো ক্যাপ্টিভ (captive) ও সেমিক্যাপ্টিভ (semi-captive) চরিত্রের। উদাহরণস্বরূপ, লেপার্ড ক্যাট (leopard cat), জঙ্গল ক্যাট (jungle cat), কমন সিবেট (common civet), ফিশিং ক্যাট (fishing cat), সম্বর (sambar), গন্ডার (rhino), স্পটেড বিয়ার (spoated bear), লেসার ক্যাট (leaser cat), পরকিউপাইন (porcupine) যথেষ্ট পরিমাণে সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।'

    একই সুর শোনা যায় দার্জিলিংয়ের পদ্মজা নাইডু হিমালয়ান জুলজিক্যাল পার্কের (Padmaja Naidu Himalayan Zoological Park - Darjeeling zoo) বর্তমান আধিকারিক বাসভারাজ হোলেয়াচি বলেন, 'বর্তমানে দার্জিলিং চিড়িয়াখানায় রেড পান্ডা (Red panda) ৫টি, স্নো লেপার্ড (snow leopard) ৪টি, হিমালয়ান তার (Himalayan Tahr) ২টি, মারখোর (markhor) ৫টি, লেপার্ড ক্যাট (leopard cat) ৩টি, ব্লু শিপ (blue sheep) ৩টি, হিমালয়ান গোরাল (Himalayan Goral) ৪টি এবং সম্বর হরিণ (sambar deer) ১টি রয়েছে। যা যথেষ্ট ইতিবাচক।'

    ভাস্কর চক্রবর্তী

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Animals in Dooars, Dooars tour, Jaldapara, Rhinos

    পরবর্তী খবর