• Home
  • »
  • News
  • »
  • local-18
  • »
  • শিশুদের মস্তিষ্কে লকডাউনের প্রভাব, কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা দেখুন...

শিশুদের মস্তিষ্কে লকডাউনের প্রভাব, কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা দেখুন...

পাশাপাশি শিশুরা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বাড়িতে আটকে থাকায় তাদের মধ্যে ধরা পড়ছে নানা মানসিক সমস্যাও। বাস্তবিক জগতের চেয়ে বেশি তাদের মন পড়ে রয়েছে ভার্চুয়াল জগতে।

পাশাপাশি শিশুরা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বাড়িতে আটকে থাকায় তাদের মধ্যে ধরা পড়ছে নানা মানসিক সমস্যাও। বাস্তবিক জগতের চেয়ে বেশি তাদের মন পড়ে রয়েছে ভার্চুয়াল জগতে।

পাশাপাশি শিশুরা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বাড়িতে আটকে থাকায় তাদের মধ্যে ধরা পড়ছে নানা মানসিক সমস্যাও। বাস্তবিক জগতের চেয়ে বেশি তাদের মন পড়ে রয়েছে ভার্চুয়াল জগতে।

  • Share this:

    করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যজুড়ে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ সরকারি ও বেসরকারি স্কুল গুলি। অনলাইনের মাধ্যমে স্কুলগুলি ক্লাস শুরু করলেও, এর ফলে আদতে কতখানি পড়া হচ্ছে সেই নিয়ে আগেই প্রশ্ন তুলেছিলেন বিশিষ্ট মহলের অনেকেই। অনলাইন ক্লাসের জন্য বাবা মায়েরা না চাইলেও একরকম বাধ্য হয়েই শিশুদের হাতে স্মার্টফোন তুলে দিতে হচ্ছে তাঁদের। ফলে অনেক কম বয়সেই স্মার্টফোনে আকৃষ্ট হচ্ছে তারা। এর প্রভাবও পড়ছে তাদের শারীরিক ও মানসিক গঠনে। সম্প্রতি বেশ কয়েকটি বেসরকারি সংস্থার শিশুদের নিয়ে করা পরিসংখ্যানেও স্পষ্টভাবে প্রতিফলিত হয়েছে এই ছবি। স্মার্টফোনে আকৃষ্ট হয়ে তাদের মস্তিষ্কের স্বাভাবিক বৃদ্ধি খর্ব হচ্ছে। পাশাপাশি শিশুরা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বাড়িতে আটকে থাকায় তাদের মধ্যে ধরা পড়ছে নানা মানসিক সমস্যাও। বাস্তবিক জগতের চেয়ে বেশি তাদের মন পড়ে রয়েছে ভার্চুয়াল জগতে। সারাক্ষণ মোবাইল বা কম্পিউটারের সামনে বসে থাকায় তাদের মুখের উপরেও প্রভাব পড়ছে বলে জানানো হয়েছে ওই জার্নালগুলিতে। একদিকে করোনার থাবা অন্যদিকে শিশুদের স্বাস্থ্য এই দুই নিয়ে চিন্তাগ্রস্ত শিশুদের বাবা - মায়েরাও।

    এই বিষয়ে হাওড়া শিবপুরের একটি বাচ্চাদের স্কুলের শিক্ষিকা স্বাগতা চক্রবর্তী জানান , "লকডাউনের ফলে অনলাইন ক্লাস চললেও , তাতে অফলাইন স্কুলের তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছে সিলেবাস।" পাশাপাশি , অনলাইন ক্লাসে শিশুদের মনোসংযোগেরও অনেকটাই অভাব রয়েছে বলে জানালেন ওই শিক্ষিকা। তার নিজের তৃতীয় শ্রেণীতে পাঠরত সন্তানের ক্ষেত্রেও এই একই জিনিস লক্ষ্য করেছেন তিনি।" তৃতীয় ঢেউয়ের সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে বাচ্চাদের মধ্যে।" গবেষণায় এই তথ্য আসার পর আরও কড়া শাসনে অভিভাবকরা রাখছেন তাঁদের সন্তানদের। তাই পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকেই যাচ্ছে বলে মনে করছেন শিশু বিশেষজ্ঞরা। তবে এই তৃতীয় ঢেউ এর হাত থেকে বাচ্চাদের বাঁচানোর উপায় কি? ডাক্তাররা এর জন্য ভ্যাকসিনেসনকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: