Home /News /life-style /
Covid19 | Explained : ভারতেও ডেল্টা-ওমিক্রনের সংমিশ্রিত স্ট্রেন? সংক্রমণের উপসর্গগুলি জানুন আগেই

Covid19 | Explained : ভারতেও ডেল্টা-ওমিক্রনের সংমিশ্রিত স্ট্রেন? সংক্রমণের উপসর্গগুলি জানুন আগেই

Covid

Covid

Covid19 | Explained : প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে কমপক্ষে ৫৬৮টি রিকম্বিন্যান্ট সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে ভারতের সাতটি রাজ্যে কোভিড রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে। সেই রাজ্যগুলি হল- কর্নাটক, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র, গুজরাত, পশ্চিমবঙ্গ, তেলঙ্গানা এবং নয়াদিল্লি, যা নতুন কোভিড সংক্রমণ এবং এর উপসর্গগুলিকে ঘিরে বেশ কয়েকটি নতুন প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। এই রিকম্বিন্যান্ট হল ডেল্টা এবং ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সংমিশ্রণ, যা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) সম্প্রতি সতর্ক করেছিল। গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত একটি অনলাইন প্রেস ব্রিফিংয়ে হুবলেছিল যে রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেন সম্পর্কে আরও জানতে গবেষণা করা হচ্ছে।

ভারতে যদিও কোভিড রিকম্বিন্যান্ট সংক্রমণ সম্পর্কে কোনও সরকারি বিবৃতি দেওয়া হয়নি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে কমপক্ষে ৫৬৮টি রিকম্বিন্যান্ট সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছে। একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুসারে কর্নাটকে ২২১টি সংক্রমণ সনাক্ত করা হয়েছে। তারপরে রয়েছে তামিলনাড়ু (৯০), মহারাষ্ট্র (৬৬), গুজরাত (৩৩), পশ্চিমবঙ্গ (৩২), তেলঙ্গানা (২৫) এবং নয়াদিল্লি (২০)।

একটি রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেন কী?

রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেন হল দুটি বিদ্যমান স্ট্রেইনের সংমিশ্রণ। রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেনে উভয় স্ট্রেইনের জেনেটিক উপাদান থাকে। হু যে কারণে রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেনের উপর নজরদারি করতে আগ্রহী তা হল ডেল্টা এবং ওমিক্রন অত্যন্ত সংক্রামক ছিল। ডেল্টা স্ট্রেন বিশ্বব্যাপী মারণ সংক্রমণ ছড়িয়েছিল, চিকিৎসা ব্যবস্থাকে প্রায় বিকল করে দিয়েছিল। ওমিক্রন এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রমণযোগ্য প্রজাতি। এখনও পর্যন্ত তিনটি রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে। গত সপ্তাহে, হু একটি নতুন রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের আবির্ভাব (Recombinant Virus) নিশ্চিত করেছে যা BA.1 এবং BA.2 ওমিক্রন (Omicron) স্ট্রেনের সংমিশ্রণ।

ভাইরাসের পুনর্মিলনের কারণ কী?

পুনর্মিলন ঘটে যখন কমপক্ষে দুটি ভাইরাল জিনোম (Viral Genomes) একই হোস্ট কোষকে সংক্রমিত করে এবং জেনেটিক অংশগুলি বিনিময় করে। একই ভাইরাস প্রকারের সদস্যদের মধ্যে পুনর্মিলন ঘটে। ভাইরাসে বিভিন্ন ধরণের পুনর্মিলন রয়েছে- হোমোলোগাস রিকম্বিনেশন (Homologous Recombination), নন-হোমোলোগাস রিকম্বিনেশন (Non-Homologous Recombination) এবং এলোমেলো পুনর্বিন্যাস।

রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাসের প্রভাব কী?

নিঃসন্দেহে রিকম্বিনেশন আরও নতুন ভাইরাস এনে ভাইরাসের পরিসরকে প্রসারিত করে। এটি ভাইরাসের বিবর্তনে সহায়তা করে গবেষক এবং বিশেষজ্ঞদের সামনে আরও চ্যালেঞ্জ তৈরি করে। প্রকৃতপক্ষে, ভাইরাল হোস্ট রেঞ্জের বিস্তৃতি, নতুন ভাইরাসের আবির্ভাব, ট্রান্সমিশন ভেক্টরের বৈশিষ্ট্যের পরিবর্তন, ভাইরাস এবং প্যাথোজেনেসিস বৃদ্ধি, টিস্যু ট্রপিজমের পরিবর্তন, হোস্ট অনাক্রম্যতা অপসারণ এবং প্রতিরোধের বিবর্তনের সঙ্গে পুনর্মিলন যুক্ত।

আরও পড়ুন- ভারতে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে আইন, পশ (POSH) আইন কী? বিস্তারিত জানুন

রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেনগুলি কি আগেরগুলির চেয়ে বেশি সংক্রামক?

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন যে রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেনের প্রকাশ হতেই থাকবে এবং তাই এটিকে হালকাভাবে নেওয়া উচিত নয়। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও গুরুতর সংক্রমণ বা উপসর্গ সামনে আসেনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন (Soumya Swaminathan) রবিবার ট্যুইটে লেখেন, "রিকম্বিন্যান্টগুলি প্রত্যাশিত। কারণ করোনাভাইরাস এখনও মানুষ এবং অনেক প্রাণীর মধ্যে ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে। পরীক্ষা, নজরদারি, সিকোয়েন্সিং এবং ডেটা শেয়ারিং এখনও অতিমারীর উপরে নজর রাখতে এবং নতুন রূপের উদ্ভব হলে প্রাথমিক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।"

কোভিড রিকম্বিন্যান্ট স্ট্রেনের উপসর্গগুলি কী কী?

এখনও পর্যন্ত কোনও বিশেষ উপসর্গ (Symptoms) দেখা যায়নি। সম্ভবত সাধারণ কোভিড উপসর্গগুলি বা অনেক ক্ষেত্রে ডেল্টা প্রজাতির নির্দিষ্ট উপসর্গগুলি দেখা যেতে পারে। যেমন স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়া বা ওমিক্রন প্রজাতির ক্ষেত্রে গলায় ব্যথা।

কখন টেস্ট করা উচিত?

একবার উপসর্গ দেখা গেলে কোনও কিছু চিন্তা না করেই একজনের কোভিড টেস্ট করা উচিত। কোভিডের সাধারণ উপসর্গগুলি হল ঠান্ডা লাগা (Cold), জ্বর (Fever), মাথাব্যথা (Headache), বমি বমি ভাব (Nausea), দুর্বলতা (Weakness), গলা ব্যথা (Sore Throat), গন্ধ এবং স্বাদ হ্রাস (Loss Of Smell And Taste)। এগুলি ছাড়াও, কোভিডের কিছু অস্বাভাবিক লক্ষণ রয়েছে। যেমন ত্বকে টান, পায়ের আঙুল ও ত্বকে ফুসকুড়ি, চোখ লাল হয়ে যাওয়া ইত্যাদি। শ্বাসকষ্ট (Shortness Of Breath), কথাবার্তা বা চলাফেরার ক্ষমতা হ্রাস বা বিভ্রান্তি বা বুকে ব্যথার (Chest Pain) মতো গুরুতর উপসর্গ থাকলে টেস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

রিকম্বিন্যান্ট ভাইরাস সম্পর্কে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কী প্রতিক্রিয়া?

রিকম্বিন্যান্টগুলির আবির্ভাবের পিছনের কারণ সম্পর্কে মারিয়া ভ্যান খেরখোভ বলেছেন, "রিকম্বিন্যান্টগুলিও প্রত্যাশিত। আমরা আরও রিকম্বিন্যান্ট দেখব বলে আশা করি। ডব্লিউএইচও এটি সম্পর্কে অবগত। আমরা এটি পর্যবেক্ষণ করছি।" কেরখোভ সারা বিশ্বে টেস্টিং, জিনোম সিকোয়েন্সিং (Genome Sequencing), সঠিক ভৌগোলিক উপস্থাপনের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Coronavirus Covid19

পরবর্তী খবর