Home /News /life-style /
দাবদাহের বৈশাখে বানিয়ে ফেলুন আমের মোরব্বা; জিভের তৃপ্তি হবে, গরমে সুস্থ থাকবে শরীরও

দাবদাহের বৈশাখে বানিয়ে ফেলুন আমের মোরব্বা; জিভের তৃপ্তি হবে, গরমে সুস্থ থাকবে শরীরও

দাবদাহের বৈশাখে বানিয়ে ফেলুন আমের মোরব্বা; জিভের তৃপ্তি হবে, গরমে সুস্থ থাকবে শরীরও

দাবদাহের বৈশাখে বানিয়ে ফেলুন আমের মোরব্বা; জিভের তৃপ্তি হবে, গরমে সুস্থ থাকবে শরীরও

Aam Ka Murabba Recipe: বানিয়ে শিশিতে ভরে রেখে দিলেই হবে। গোটা গরম কালটাই উপভোগ করা যাবে তারিয়ে তারিয়ে।

  • Share this:

#কলকাতা: সারা বছর সব কিছু পাওয়া গেলেও আমের দেখা মেলে এই গরমেই। অবশ্য এখন কাঁচা আমই বেশি। আম পাকতে এখনও খানিক দেরি। গরমে মন ও শরীর দুই-ই ঠান্ডা রাখতে এই সময় বানানো যায় কাঁচা আমের মোরব্বা। বানিয়ে শিশিতে ভরে রেখে দিলেই হবে। গোটা গরম কালটাই উপভোগ করা যাবে তারিয়ে তারিয়ে (Aam Ka Murabba Recipe)।

উপকরণ: ১ কেজি আম, ১ কেজি চিনি, ২ লিটার জল, ২ টেবিল চামচ নুন, ২-৩ ফোঁটা সাইট্রিক অ্যাসিড এবং ৪ থেকে ১০টা এলাচ।

প্রণালী: ১। আমগুলো ভাল করে ধুতে হবে। কমপক্ষে ১২ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে জলে।

২। এবার জল থেকে বের করে আমগুলো ভালো করে শুকিয়ে নিতে হবে।

৩। খোসা ছাড়িয়ে কাটতে হবে বড় বড় টুকরোয়।

৪। কাঁটাচামচ বা টুথপিক দিয়ে আমের টুকরোগুলোয় ছিদ্র করে দিতে হবে।

৫। এবার একটা পাত্রে পর্যাপ্ত পরিমাণ জল নিয়ে কাটা আমের টুকরোগুলো দিয়ে তাতে নুন মিশিয়ে নিতে হবে।

৬। এই নুন জলে অন্তত ১২ ঘণ্টা আমের টুকরোগুলিকে ভিজিয়ে রাখতে হবে।

৭। এবার নুন জল থেকে আমের টুকরোগুলো নিয়ে ধুয়ে নিতে হবে সাধারণ জলে। অতিরিক্ত জল বের করে দিতে ছাঁকনির ব্যবহার করা যায়।

৮। পাত্রে জল নিয়ে তাতে চিনি এবং সাইট্রিক অ্যাসিড দিয়ে আমের টুকরোগুলো সেদ্ধ করতে হবে।

৯। সিরাপ যথেষ্ট ঘন হয়ে গেলে এবং আমের টুকরোগুলো নরম হয়ে এলে বন্ধ করে দিতে হবে ওভেন। তবে আমের টুকরোগুলো অন্তত ১২ ঘণ্টা ওইভাবে সিরাপেই থাকবে।

১০। এবার আমের টুকরোগুলো সিরাপ থেকে তুলে নিয়ে তার উপর এলাচ গুঁড়ো ছড়িয়ে দিতে হবে।

১১। এই অবস্থায় আঁচে বসিয়ে আমের টুকরোগুলো আর একবার সেদ্ধ করে নিয়ে নামিয়ে নিতে হবে।

১২। এবার ঠান্ডা করতে হবে ঘরের তাপমাত্রায়।

ব্যস, আমের মোরব্বা প্রস্তুত। এবার পরিবেশন করা যায় কিংবা সংরক্ষণ করা যায় এয়ার টাইট জারে। তবে পরিবেশনের আগে ভাজা বা গ্লাঞ্চ করা বাদাম উপরে ছড়িয়ে দিলে দেখতে ভাল লাগবে, স্বাদেও আলাদা মাত্রা যোগ হবে।

তবে শুধু স্বাদে নয়, এই আমের মোরব্বার অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতাও আছে।

ক্যানসার: স্তন, প্রোস্টেট, লিউকোমিয়া এবং কোলন ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়াই করে আম। এতে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেমন গ্যালিক অ্যাসিড, আইসোক্যারসিট্রিন, ফিসেটিন, মিথাইলগালাট, কোয়ারসেটিন এবং অ্যাস্ট্রাগালিন শরীরকে এই চার ধরনের ক্যানসার থেকে রক্ষা করে।

কোলেস্টেরল: আমের মোরব্বা সিরাম কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে পারে কারণ এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, পেকটিন এবং ফাইবার থাকে। ফলে সারা বছর কোলস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোরব্বা কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারে।

চোখ: সবাই জানে, ভিটামিন এ চোখের জন্য কতটা উপকারী। আম ভিটামিন এ সমৃদ্ধ, প্রকৃতপক্ষে, এক কাপ কাটা আম ভিটামিন এ-এর ২৫ শতাংশের সমান। এটা রাতকানা রোগ প্রতিরোধে, শুষ্ক চোখের সমস্যা নিরাময়ে এবং ভাল দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

হজম: আমের মোরব্বা হজমে দারুণ সহায়ক। এতে প্রোটিন-হজমকারী এনজাইম রয়েছে। এর ফাইবার উপাদান বিপাকে সাহায্য করে। যা সামগ্রিক হজম শক্তি বাড়ায়।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: আম রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় ও শক্তিশালী করে। এতে পঁচিশ প্রকারের ক্যারোটিনয়েড, ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি রয়েছে, যা ইমিউন সিস্টেমকে সুস্থ এবং সচল রাখতে সাহায্য করে।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Mango

পরবর্তী খবর