Home /News /life-style /

বদলে ফেলা হল মশার জিন ! ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া ঠেকাতে ৭৫ কোটি নতুন মশা ছাড়া হচ্ছে !

বদলে ফেলা হল মশার জিন ! ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া ঠেকাতে ৭৫ কোটি নতুন মশা ছাড়া হচ্ছে !

Image for representation

Image for representation

সাধারণত মহিলা মশারাই ভাইরাস বা রোগ বহন করতে সক্ষম । এই নতুন জিনগত সংশোধিত মশার স্ত্রী মশারা লাভা অবস্থাতেই মারা যাবে।

  • Share this:

    #ফ্লোরিডা: সারা বিশ্ব এখন করোনা মহামারীর সঙ্গে লড়াই করছে। এই ভাইরাস ঘটিত রোগের ভ্যাকসিন এখনও বাজারে আসেনি। তবে আশা করা যাচ্ছে খুব শীঘ্রই সাফল্য পাবে মানুষ।  শুধু করোনা নয় আমাদের দেশসহ সারা বিশ্বেই মশা বাহিত রোগ যেমন ডেঙ্গু, চিকেন গুনিয়া, জিকা, ইয়েলো ফিভারের মতো রোগ প্রতিবছর বহু মানুষের প্রাণ কাড়ে। এই রোগ গুলিও মহামারীর আকার ধারণ করতে পারে যেকোনও সময়। তাই এই মশা বাহিত রোগকে কাবু করতে মশারই সাহায্য নিচ্ছে ফ্লোরিডা।

    মশা দিয়েই মারা হবে মশা বাহিত রোগ। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। এই মশা জেনেটিক্যালি মডিফাইড। অর্থাৎ জিনগত তফাত থাকছে এদের শরীরে। যার ফলে এই মশা কোনও রোগ বহন করবে না। এবং যে ভাইরাস মশা বহন করার ক্ষমতা রাখে, তাকে মারবে এই নতুন মশা। এই মশার নাম রাখা হয়েছে ওএক্স৫০৩৪, যা জিনগত ভাবে সংশোধিত। ২০২০ ২০ ২১ জুড়ে প্রায় ৭৫ কোটি মশা ছাড়া হবে পরিবেশে ।

    সাধারণত স্ত্রী মশারাই ভাইরাস বা রোগ বহন করতে সক্ষম । এই নতুন জিনগত সংশোধিত মশার, স্ত্রী মশারা লাভা অবস্থাতেই মারা যাবে। পুরুষ মশারা সাধারণত মধু বা পরাগ খেয়েই বেঁচে থাকে। তাই রোগ ছড়াবে না। এই প্রোজেক্টটি অনুমোদন পেয়েছে মে মাসে Environment Protection Agency তরফ থেকে। এই প্রথমবার ইউএস-এ জেনেটিক্যালি পরিবর্তীত মশা ছাড়ার কথা ভাবা হয়েছে। এদেরকে তৈরিও করা হয়েছে দীর্ঘ রিসার্চ করে। তবে সাধারণ মানুষ এই মশা ছাড়ায় আপত্তি জানিয়েছেন। এই বিষয়টা হিতে বিপরীত হলে বিপদ বাড়বে মানুষেরই।

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Dengu, Florida, Genetically Modified Mosquitoes

    পরবর্তী খবর