Home /News /kolkata /
Mamata Banerjee: তালিকা ধরে কাজের অগ্রগতি জানতে চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, এ বার সেই পথে হাঁটছে নবান্নও

Mamata Banerjee: তালিকা ধরে কাজের অগ্রগতি জানতে চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, এ বার সেই পথে হাঁটছে নবান্নও

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফাইল ছবি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফাইল ছবি

Mamata Banerjee: তারই মধ্যে বিভিন্ন সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে অভিযোগগুলি জমা পড়ে তা বিভিন্ন দফতর গুলি কতটা দ্রুতগতিতে নিষ্পত্তি করছে ও জেলাগুলিই বা কতটা দ্রুতগতিতে নিষ্পত্তি করছে, তা নিয়ে পর্যালোচনা করা হবে।

  • Share this:

#কলকাতা: চলতি সপ্তাহেই বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে দীর্ঘদিন ধরে উদ্বোধন ও শিলান্যাস করা প্রকল্পগুলি কেন কাজ সম্পন্ন হয়নি তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তাই নয় লাইভ সম্প্রচার চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রী কোন কোন প্রকল্পের কাজ দীর্ঘদিন ধরে পড়ে রয়েছে, তার তথ্য-সহ তুলে ধরেন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্র সচিবের উপস্থিতিতে। এ বার তার জেরেই তৎপর হল নবান্ন। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা ও শিলান্যাস করা প্রকল্পগুলির অগ্রগতি কতদূর তা জানতে চাইল নবান্ন। প্রতিটি দফতর এবং প্রতিটি জেলার জেলাশাসকদের থেকে সেই স্টেটাস রিপোর্ট চাইল নবান্ন। পাশাপাশি জরুরি বৈঠক ডাকলেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। আগামী ৭ ই জুন বিকেল চারটে নাগাদ এই বৈঠক ডাকা হয়েছে বলেই নবান্ন সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: ছিল কড়া নির্দেশ, ফের সিবিআই ডেরায় অনুব্রত মণ্ডল! ঢোকার আগেই যা বললেন...

বিভিন্ন দফতরের সচিব এবং প্রতিটি জেলার জেলাশাসকদের এই বৈঠকে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয় মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন ও শিলান্যাস করা প্রকল্পগুলির বিস্তারিত দ্রুত রাজ্য সরকারের তৈরি করা "সমন্বয় পোর্টালে" আপলোড করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে প্রতিটি দফতর ও প্রতিটি জেলাকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দীর্ঘ পাঁচ থেকে ছয় বছর ধরে উদ্বোধন করা প্রকল্পগুলি কেনও কাজ হয়নি তা নিয়ে সম্প্রতি দুই জেলার প্রশাসনিক বৈঠক এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ছবি-সহ সেই প্রকল্পগুলি অগ্রগতি দেখান মুখ্যসচিবের সামনেই। তারপর এই গোটা বিষয়টি নিয়ে তৎপর হলেন নবান্নের শীর্ষ পর্যায়ের আধিকারিকরা, এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: নাড্ডা দাওয়াইয়ে নরম দিলীপ ঘোষ? অবশেষে চিঠি প্রাপ্তির কথা স্বীকার! অসন্তোষ নিয়ে তুমুল জল্পনা

তারই মধ্যে বিভিন্ন সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে অভিযোগগুলি জমা পড়ে তা বিভিন্ন দফতর গুলি কতটা দ্রুতগতিতে নিষ্পত্তি করছে ও জেলাগুলিই বা কতটা দ্রুতগতিতে নিষ্পত্তি করছে, তা নিয়ে পর্যালোচনা করা হবে। পাশাপাশি "বাংলা সহায়তা কেন্দ্র" গুলিকে আরও সচল কী ভাবে করা যেতে পারে তা নিয়ে আলোচনা হবে বলেই নবান্ন সূত্রে খবর। বাংলা সহায়তা কেন্দ্র গুলির মাধ্যমে বিভিন্ন দফতর কী ভাবে সাধারণ মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিতে পারে, তা নিয়েও বিস্তারিত রূপরেখা ঠিক করে দেওয়া হতে পারে আগামী ৭ ই জুনের বৈঠকে, মনে করা হচ্ছে এমনই। ইতিমধ্যেই আদিবাসী প্রধান অঞ্চলে দুয়ারে সরকার হবে বলে বুধবারই ভার্চুয়ালি বৈঠক করে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যসচিব। ১৩ ই জুন থেকে ৩১ শে জুলাই পর্যন্ত সপ্তাহে চারদিন করে দুয়ারে সরকার হবে। তারপরেই মুখ্যসচিবের এই জরুরি বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে প্রশাসনিক মহল।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: West Bengal Government

পরবর্তী খবর