Home /News /kolkata /
Toto: রাজ্যে কি অতীত হতে চলেছে টোটো? জায়গা নেবে ই-রিকশা? মন্ত্রীর মন্তব্য়ে জল্পনা তুঙ্গে

Toto: রাজ্যে কি অতীত হতে চলেছে টোটো? জায়গা নেবে ই-রিকশা? মন্ত্রীর মন্তব্য়ে জল্পনা তুঙ্গে

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Toto: টোটো তুলে ই-রিক্সা পঞ্চায়েতের আগে বাস্তবায়ন নিয়ে সংশয়! 

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যে কত টোটো চলে তার কোন  হিসেবই  নেই রাজ্য  সরকারের কাছে। পরিবহন মন্ত্রী বলছেন, টোটো অনুমোদিত যাত্রী বহনযান বলে স্বীকৃত নয়। যাত্রী সুরক্ষার প্রশ্নেও টোটো নিরাপদ নয়। সে কারনে, রাজ্য সরকার টোটো তুলে দিয়ে সেই জায়গায় ই - রিক্সা চালাতে চায়।

 বৃহস্পতিবার বিধানসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে,  দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহ বলেন,  রাজ্যের প্রায় সব জেলায় ব্যাপক সংখ্যায় টোটো চলছে। এদের  পরিবহন নিগমের কোন অনুমতি নেই। অনুমতিহীন এই টোটোই রাস্তায় যানজটের অন্যতম কারণ।  সেই কারনে, টোটোকে রেগুরালাইজ করা একান্ত দরকার। বে- আইনী ভাবে চলাচলকারী টোটোর উৎপাদনকারী সংস্থা গুলির ওপরেও আইনি পদক্ষেপ করা দরকার। জবাবে মন্ত্রী হাকিম বলেন, টোটো বে- আইনি। যাত্রী সুরক্ষায় তা যথেষ্ট নয়। রাজ্যে টোটোকে তুলে দিয়ে  তার জায়গায় ই - রিক্সা চালানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু,  টোটো সংক্রান্ত একটি মামলা বর্তমানে আলিপুর কোর্টে বিচারাধীন। সে কারনে দ্রুত ঐ মামলার নিষ্পত্তি করে ই রিক্সা চালানোর জন্য রাজ্য পরিবহন চেষ্টা করছে। একই সঙ্গে রাজ্যে কত টোটো চালু রয়ছে তার হিসাব পেতে পরিবহন দপ্তর একটি সমীক্ষা শুরু করেছে। উদয়নের যানযটের অভিযোগ মেনে নিলেও , মন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে  এখনই কোন পদক্ষেপ না নিয়ে দ্রুত টোটো সংক্রান্ত মামলার নিষ্পত্তি করে আমরা বিষয়টির স্থায়ী সমাধান করার চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুন: উদ্বোধনের আগেই হতে পারে নাশকতা? পদ্মা সেতু নিয়ে হাসিনার আশঙ্কায় তুমুল শোরগোল

টোটো তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত মন্ত্রী জানালেও, তা নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলে প্রশ্ন অনেক। প্রশ্ন ১ --  টোটো তুলে দেওয়া হবে কি একলপ্তে না ধাপে ধাপে? প্রশ্ন ২ -- একলপ্তে হলে, তার দিনক্ষন কি স্থির করেছে সরকার? প্রশ্ন ৩ -- টোটো উঠে গেলে টোটো চালকদের পুনর্বাসন নিয়ে সরকারের পরিকল্পনা কী? প্রশ্ন ৪ -- প্রস্তাবিত ই রিক্সা পেতে টোটো চালকরা কি সরকার থেকে আর্থিক সাহায্য  বা অগ্রাধিকার পাবে? সিদ্ধান্ত কার্যকর করার আগে এসব প্রশ্নের মীমাংসা করতে হবে সরকারকে।

আরও পড়ুন: লিখিতভাবে দুঃখপ্রকাশ, সাত বিজেপি বিধায়কের সাসপেনশন প্রত্যাহার!

রাজনৈতিক মহলের মতে, জেলায় জেলায় টোটো এখন পরিবহণের অন্যতম এক বাহন।  টোটো চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন রাজ্যের  লক্ষাধিক মানুষ।  সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। নির্বাচনের মুখে জেলায় জেলায় টোটোর ওপর নির্ভরশীল লক্ষাধীক পরিবারকে উপযুক্ত পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দেওয়া বিচক্ষনতার পরিচয় হতে পারে না। ফলে, আদালতে নিষ্পত্তি হলেও, রাজ্যে আগামীবছর পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তা কার্যকর করা শক্ত।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Toto, Toto Driver

পরবর্তী খবর