Home /News /kolkata /
TMC: স্বেচ্ছামৃত্যু! পাঁচ রাজ্যের ফলের পরই ফুঁসে উঠল তৃণমূল, নিশানা করল কাকে?

TMC: স্বেচ্ছামৃত্যু! পাঁচ রাজ্যের ফলের পরই ফুঁসে উঠল তৃণমূল, নিশানা করল কাকে?

তীব্র আক্রমণ তৃণমূলের

তীব্র আক্রমণ তৃণমূলের

TMC: কংগ্রেসের ভূমিকার সমালোচনা করে দলীয় মুখপত্রে সম্পাদকীয় লিখল তৃণমূল।

  • Share this:

#কলকাতা: কংগ্রেসের ভূমিকা নিয়ে তীব্র সমালোচনা তৃণমূল কংগ্রেসের। তৃণমূল কংগ্রেস তাদের দলীয় মুখপত্র ''জাগো বাংলা"র সম্পাদকীয়তে "স্বেচ্ছামৃত্যু" বলে একটি প্রতিবেদেন লিখেছে। ২০ লাইনের সেই প্রতিবেদনের ছত্রে ছত্রে কংগ্রেসর রাজনৈতিক ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে। জাগো বাংলা-র সম্পাদকীয়তে উল্লেখ করা হয়েছে, "দলটা যদি মেরুদণ্ড সোজা করে, নেতৃত্ব বদল করে লড়াইয়ে নামে তাহলে তবু একটা সম্ভাবনা থাকে। আর যদি আজকের বৈঠকেও গান্ধী নামের প্রতি প্রেম উথলে ওঠে, তাহলে কংগ্রেস স্বেচ্ছামৃত্যর দিকে ক্রমশ এগিয়ে যাবে।"

প্রসঙ্গত, আজকেই কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক আছে। পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবি নিয়ে আলোচনা হবে রবিবাসরীয় বৈঠকে। তৃণমূল মুখপত্রের সম্পাদকীয়তে উল্লেখ হয়েছে, "শতাব্দী প্রাচীন ভারতের জাতীয় কংগ্রেসের মধ্যে বিদ্রোহের সুর। শুধু বিদ্রোহ বললে ভুল হবে, চরম বিদ্রোহের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে সর্বত্র। পাঁচ রাজ্যে ভরাডুবি হওয়ার পর পরিস্থিতি বড্ড গোলমেলে।" এই প্রসঙ্গে পাঞ্জাব ও গোয়ার কথা উল্লেখ হয়েছে সম্পাদকীয়তে। লেখা হয়েছে, একটা জেতা রাজ্যকে কীভাবে বিরোধীদের হাতে তুলে দিতে হয়, তা দেখিয়ে দিলেন কংগ্রেস নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: ইনিই বিশ্বের ভয়ঙ্করতম স্নাইপার! পৌঁছলেন ইউক্রেনে, ক্ষমতা শুনে কাঁপছে রুশ বাহিনী

তৃণমূল তাদের মুখপত্রে সমালোচনা করেছে, কংগ্রেস নেতৃত্বের। সেখানে উল্লেখ হয়েছে, "উত্তরপ্রদেশের মতো সারা রাজ্য ঘুরে বেড়ালেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। দিনের শেষে আসন মাত্র দুই! সর্বকালীন রেকর্ড। এই যে মনে করা হচ্ছিল ইন্দিরার উত্তরসূরি প্রিয়াঙ্কা তা সমূলে প্রপাতধরণীতল হল ভোটে.......দিনের শেষে শূন্য কলসি। বর্ষীয়ান নেতারা দলের নেতৃত্ব পরিবর্তন করার কথা বলছেন। এই দাবিটা অনেক আগেই তোলা উচিত ছিল। তাহলে হয়তো কংগ্রেসটা বেঁচে যেত। সঙ্গে বর্ষীয়ান নেতাদেরও রিটায়ারমেন্টের চিঠি ধরানো উচিত৷ রাহুল পার্টটাইম পলিটিশিয়ান। প্রিয়াঙ্কা সদ্য এসেছেন। ফলে ছেলে-মেয়ের নেতিবাচক দিক ঢাকতে অসুস্থ সোনিয়াকে দলের হাল ধরতে হয়েছে। ফল যা হওয়ার তাই হচ্ছে।"

আরও পড়ুন: একদিনে-একসঙ্গে ৮১ জন, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরে 'রেকর্ড' সৌদি আরবের! কিন্তু কেন?

তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায় বলেন, ''কংগ্রেস নিয়ে যত কম কথা বলা যায় ততই ভালো। উত্তরপ্রদেশের অধিকাংশ আসনে কংগ্রেসের জামানত জব্দ হয়েছে। গোয়ায় আমরা জোট করতে আগ্রহী ছিলাম। তারা তা করতে দিলেন না। কংগ্রেস কত দিন থাকে, সেটাই দেখুন। যারা প্রতিষ্ঠিত নেতা তাদের কেঁটে ছেঁটে এখন দিল্লি থেকে চাপিয়ে দেওয়া নেতৃত্বের কারণে এই অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কংগ্রেসকে আগামীদিনে বাইনোকুলার দিয়ে দেখতে হবে।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Congress, Jago Bangla, TMC

পরবর্তী খবর