• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Subrata Mukherjee Death: 'ওঁর মতো মানুষ হয় না', সুব্রতর প্রয়াণে কেঁদে উঠছে ফুটপাতবাসী জরিনাও

Subrata Mukherjee Death: 'ওঁর মতো মানুষ হয় না', সুব্রতর প্রয়াণে কেঁদে উঠছে ফুটপাতবাসী জরিনাও

চলে গেলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়

চলে গেলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়

Subrata Mukherjee Death: কেউ বললেন, সুব্রত মুখোপাধ্যায় অমায়িক লোক ছিলেন। তিনি সবাইকেই যথেষ্ট সম্মান করতেন। প্রশাসনিক কাজকর্ম তাঁর মতো অনেক কম মানুষই বুঝতেন।

  • Share this:

#কলকাতা: কলকাতা কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নাম জ্বলজ্বল করছে আজও। তাই তাঁর স্মৃতিতে ভারাক্রান্ত কর্পোরেশনের কর্মীরা। তিনি যখন মেয়র ছিলেন তখনকার বেশিরভাগই কর্মী অবসর নিয়েছেন। তবে যাঁরা এখনও আছেন, তাঁরা প্রত্যেকে সুব্রত বাবুর সুনাম করছেন। কেউ বললেন, সেই সময় মাসের বেতন হত হাতে-হাতে। সুব্রত বাবু প্রথম বেতন সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ব্যবস্থা করে দেন। কেউ বললেন, সুব্রত বাবু অমায়িক লোক ছিলেন। তিনি সবাইকেই যথেষ্ট সম্মান করতেন। প্রশাসনিক কাজকর্ম তাঁর মতো অনেক কম মানুষই বুঝতেন।

আরও পড়ুন: 'সুব্রত দা'র দেহ দেখতে পারব না', পুজো ফেলে হাসপাতালে ছুটে এলেন মমতা

কর্পোরেশনের সামনে ফুটপাথে থাকেন জরিনা। তিনি ১৯৬০ সাল থেকে এখানেই থাকেন। তিনি বললেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু সংবাদ তাঁকেও যথেষ্ট কষ্ট দিয়েছে। একবার সামনের পার্ক পরিষ্কার করে গাছ লাগানোর সময়, পৌর কর্মীরা সবকিছু পরিষ্কার করতে গিয়ে, তাঁর বাসস্থান ওখান থেকে তুলে ফেলে দিচ্ছিল। সেই সময় সুব্রত মুখোপাধ্যায় তাঁকে ওখান থেকে তুলতে দেননি। সুব্রত বাবু তাঁকে ওখানেই থাকতে বলেছিলেন। কর্পোরেশনের অলিন্দে এখনও সুব্রত বাবুর অনেক কৃতিত্ব পড়ে রয়েছে। সুব্রত বাবু আর নেই। সবই স্মৃতি এখন।

আরও পড়ুন: 'এত বড় দুর্যোগ আসেনি জীবনে', সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ছাত্র আন্দোলন থেকে কলকাতার মেয়র, প্রশাসক, দলের নেতা, গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী, পুজো প্রিয় সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের জন্য লেখা শোকবার্তায় বিভিন্ন দিক থেকে একজন দক্ষ মানুষ ও শিক্ষক হওয়ার কথাই মনে করিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বাংলার রাজনীতিতে একজন বর্ণময় চরিত্র এবং তাঁর হাতেই কলকাতা পুরসভার স্বর্ণযুগের শুরু।

আরও পড়ুন: প্রশংসা করেছিলেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যও, মেয়র হিসেবে মাত্র পাঁচ বছরেই নিজেকে প্রমাণ করেন সুব্রত

দীপাবলির রাতে বাংলার রাজনৈতিক মহলে অন্ধকার নামিয়ে প্রয়াত হলেন রাজ্যের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন-সহ চারটি দফতরের মন্ত্রী, কলকাতার প্রাক্তন মেয়র সুব্রত মুখোপাধ্যায় (Subrata Mukherjee Death)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। আর দীর্ঘদিনের সহকর্মী সুব্রত 'দা'-র প্রয়াণে শোকস্তব্ধ হয়ে হাসপাতালে ছুটে এসেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এরপর হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, ''এমন আলোর দিনে অন্ধকার নেমে আসবে ভাবতেও পারিনি। অনেক দুর্যোগ এসেছে, কিন্তু এটা ভীষণ বড় দুর্যোগ। সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের মতো মানুষ, এত প্রাণবন্ত তিনি, পার্টি অন্ত প্রাণ আর হবে কিনা জানি না।''

Published by:Suman Biswas
First published: