Home /News /kolkata /
Partha Chatterjee || Fruits: প্রতিদিন বাছাই করা ফল, খাদ্যরসিক পার্থর মাস প্রতি ফল-খরচ নাকি লক্ষ লক্ষ টাকা! এখন সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিক্রেতা...

Partha Chatterjee || Fruits: প্রতিদিন বাছাই করা ফল, খাদ্যরসিক পার্থর মাস প্রতি ফল-খরচ নাকি লক্ষ লক্ষ টাকা! এখন সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিক্রেতা...

ইডি তদন্তে পার্থ চট্টোপাধ্যায় Representative Image

ইডি তদন্তে পার্থ চট্টোপাধ্যায় Representative Image

Partha Chatterjee || Fruits: পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ফল খাওয়ার পরিমাণ শুনে মাথায় হাত দিচ্ছেন সবাই। প্রতিদিনের হিসাব পেরিয়ে যাচ্ছে লোক মুখে। দুর্নীতি কাণ্ডে গ্রেফতার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ফলাহার কাহন কতটা সত্যি?

  • Share this:

কলকাতা : ইডি হেফাজতে কী খাচ্ছেন পার্থ? একে বাঙালি, তার উপর প্রকৃতই খাদ্যরসিক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সূত্রের খবর পার্থ তার অগাধ টাকার বেশ মোটা অংশ খরচ করতেন প্রতিদিন বহুমুল্যের ফল খেয়ে (Partha Chatterjee || Fruits)। কেউ বলছেন মাসে ৩:৫০ লক্ষ টাকার ফল খেতেন পার্থ, কেউ বলছেন নিউ মার্কেটের দোকান থেকে প্রতিদিন চার হাজার টাকার ফল যেত পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের (Partha Chatterjee )বাড়িতে।

আদতে প্রাক্তন মন্ত্রীর বাড়িতে নিয়মিত ফল যেত নিউমার্কেট থেকে। কোন দোকান থেকে কেনা হত ফল? সূত্র মারফত জানা গিয়েছে নিউ মার্কেটের ফলপট্টিতে বাদশার ফলের দোকান থেকে ফল যেত পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে (Partha Chatterjee || Fruits)। ওখানকার অন্যান্য ফলের দোকানদারদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে, তারা স্বাভাবিক ভাবেই  কথা বলেন। কিন্তু পার্থ নিয়ে কেউ মুখ খুলতে চাননি।

আরও পড়ুন : কঙ্গন-বালা-আংটি থেকে গোল্ড-পেন! 'শৌখিন' অর্পিতার খাজানায় আরও 'কত' কী! যে নেশায় মেতেছিলেন মধ্যবিত্ত বাঙালি মেয়ে..

নিউ মার্কেটের ফলপট্টির বেশির ভাগ ফল দোকান বিদেশ থেকে আমদানি করা ফল রাখে, সঙ্গে দেশীয় ফলও রাখে। নেতা,মন্ত্রী আমলাদের ফল এখান থেকেই যায়। বিভিন্ন ধরনের দামী ও টাটকা ফল পাওয়া যায় এই দোকানগুলিতে। তা যেমন মানে ভালো তেমনই দামও চড়া। তবে ওখানকার নির্দিষ্ট একটি দোকানের ফল অত্যন্ত নামকরা। নিত্য প্রয়োজনে এই দোকানেই ভিড় করেন অনেকেই। এটিই হল বাদশার ফলের দোকান।

আরও পড়ুন : কাল থেকেই নিতে হবে একগুচ্ছ পদক্ষেপ! ডেঙ্গি-বৈঠকে খাল পরিষ্কারে জোর নবান্নের

তবে এদিন বাদশা বা তাঁর ছেলে মহিউদ্দিনের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তারা কিন্তু তেলে বেগুনে জ্বলে ওঠেন। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ফল যাওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করতেই বাদশার ছেলে মইনুদ্দিন বলেন কোনও মন্ত্রী এলে কিংবা তার কেউ এলে তো বিশেষ কোনও ড্রেস পড়ে আসেনি, "কে ফল কিনতে এসেছে কী করে বুঝব? সাধারণ পোষাকে এসেছিল সবাই। আমার দ্বারা এত কিছু বলা সম্ভব না'  নিউ মার্কেটের এক ফল বিক্রেতা সন্দীপ চিনে বলেন, 'একটি পরিবারের পক্ষে দিনে চার হাজার টাকা বা তার বেশি টাকার ফল খাওয়া সম্ভব। তবে ফলের দাম অনেক বেশি হলেও দু থেকে আড়াই হাজার টাকার বেশি ফল খাওয়া সম্ভব না, এক জনের পক্ষে (Partha Chatterjee || Fruits)।

তবে খাদ্য বিশেষজ্ঞদের ধারণা, ফলের দাম বেশি হলেও সেই ফলের খাদ্যগুণ অনেক বেশি।তাতে যে পরিমাণ ক্যালরি থাকে তার থেকে শরীর খারাপ হতে পারে। উল্লেখ্য পার্থ চট্টোপাধ্যায়-এর মধুমেহ রোগ আছে। কেমন দাম এখানকার আপেল থেকে আঙুরের? জানা গেল আপেলের দাম সব থেকে বেশি ৩৫০ টাকা। বিদেশি আঙুর রয়েছে যা ১৬০০ টাকা কেজি। অভোগাডো ফল ১৫০০-১৮০০ টাকা কেজি।

তবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় নিয়ে নিউ মার্কেটে ফলের দোকানদাররা মুখে কুলুপ এঁটেছে। যদিও তারা প্রত্যেকেই দোকানদার, তাদের কাছে একটাই বক্তব্য, বাজারে দোকান খুলেছেন বিক্রির জন্য। কোন খরিদ্দার আসছেন সেটা তারা খেয়াল রাখেন না। তবে একই খরিদ্দার বারে বারে এলে তাদের সঙ্গে পরিচিতির সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আশেপাশের দোকানদারদের মতে, আসলে তদন্তের খাতিরে যদি ইডির ডাক পরে তাহলে সেই হেনস্থার কথা চিন্তা করেই ভয়ে রয়েছেন দোকানদাররা। অন্য দিকে ফলের দোকানের বিক্রির চালান থেকে শুরু করে হিসাবের গড়মিল সংক্রান্ত বিষয় নিয়েও ভয় পাচ্ছে দোকানদার। আর তাতেই মুখে কুলুপ এঁটেছেন তাঁরা।

Published by:Sanjukta Sarkar
First published:

Tags: Fruits, Partha Chatterjee

পরবর্তী খবর