• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MAMATA BANERJEE GIVES HELPLINE NUMBER FOR LAXMI BHANDAR PROKOLPO SB

Laxmi Bhandar Prokolpo: 'লক্ষ্মীর ভান্ডারে' চুরি নয়, বেনিয়ম রুখতে অভিযোগ জানানোর নম্বর দিলেন মমতা

বেনিয়ম রুখতে কড়া মমতা

Laxmi Bhandar Prokolpo: লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে কোন অভিযোগ এলে সেই অভিযোগ জানানোর জন্য ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসে সরাসরি ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে।

  • Share this:

#কলকাতা: দুয়ারে সরকার কর্মসূচির অধীনেই শুরু হবে 'লক্ষ্মীর ভান্ডার' প্রকল্প। এবার সেই প্রকল্প নিয়ে সতর্কতা নিল নবান্ন। বৃহস্পতিবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে বেশকিছু ঘোষণা করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন " লক্ষীর ভান্ডার এর জন্য বিনামূল্যে ফর্ম পাওয়া যাবে। কোন ট্যাক্স দিতে হবে না। দুয়ারে সরকারেই এই কাজ করা যাবে। এই আবেদনপত্র নকল করা যাবে না। একটা ইউনিক computer-generated নম্বর থাকবে ওই আবেদন পত্রে। একমাত্র দুয়ারে সরকারের লক্ষ্মীর ভান্ডার এর কাউন্টার থেকেই এই আবেদন পত্র পূরণ করা যাবে। তবেই সেটা মান্যতা পাবে।" তবে সে ক্ষেত্রে লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে কোন অভিযোগ এলে সেই অভিযোগ জানানোর জন্য ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে সরাসরি ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে। এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন " যদি কোন অভিযোগ থাকে তাহলে ১০৭০/২২১৪৩৫২৬ নম্বরে ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে। অভিযোগের নিষ্পত্তি করা হবে।"

এদিন মুখ্যমন্ত্রী লক্ষ্মীর ভান্ডার এর আবেদন পত্র নিয়ে যদি কোনো নকল হয় সে নিয়েও সতর্ক করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন "যে ইউনিক নম্বর দেওয়া থাকবে সেই নম্বর নকল করে কেউ কিছু করতে পারবে না। বাইরে থেকে কেউ আবেদনপত্র নিয়ে এলে বা কোন এজেন্সিতে কে নিয়ে এলে ওই আবেদনপত্রগুলো কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না।" এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন "যেভাবে আমরা দিদিকে বলো করেছিলাম সেভাবেই ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে।" ইতিমধ্যেই লক্ষীর ভান্ডার নিয়ে নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য শিশু সুরক্ষা ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর।

মূলত রাজ্যে শিশু সুরক্ষা ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর মহিলাদের প্রত্যেক মাসে ৫০০ টাকা করে ও এসসি-এস টি দের ক্ষেত্রে ১০০০ টাকা করে দেওয়ার নির্দেশিকা জারি করেছে। তবে সে ক্ষেত্রে যে নির্দেশিকা জারি হয়েছে সেখানে একাধিক নিয়মের কথা বলা হয়েছে। মূলত বয়স ২৫ থেকে ৬০ এর মধ্যে হতে হবে। রাজ্যের বাসিন্দা হতে হবে। সরকারি কর্মচারী অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কেন্দ্রের ও রাজ্যের, কোন স্বশাসিত সংস্থা, সরকারি নিয়ন্ত্রিত কোন সংস্থা, পঞ্চায়েত, মিউনিসিপালিটি, শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, সরকারি স্কুল গুলির ক্ষেত্রে যদি কেউ নিয়মিত বেতন বা পেনশন পান তারা এই সুবিধা পাবেন না।এক্ষেত্রে সরাসরি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আর্থিক সুবিধা ট্রান্সফার করা হবে। এক্ষেত্রে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আঁধার লিঙ্ক থাকতে হবে। আগামী ১৬ ই আগস্ট থেকে দুয়ারে সরকার ফের শুরু করছে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই মুখ্যসচিব জেলাশাসকের নির্দেশ দিয়েছে লক্ষীর ভান্ডার নতুন প্রকল্প শুরু হচ্ছে তাই বিভিন্ন ক্যাম্পে মহিলাদের প্রচুর ভিড় হতে পারে। সেক্ষেত্রে যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হয় সেই বিষয়েও ইতিমধ্যেই মুখ্যসচিব নির্দেশ পাঠিয়েছেন জেলাশাসকদের বলেই নবান্ন সূত্রে খবর।

Published by:Suman Biswas
First published: