• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মাধ্যমিকের উত্তরপত্রের রিভিউ ও স্ক্রুটিনি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত মধ্যশিক্ষা পর্ষদের, জেনে নিন বিস্তারিত

মাধ্যমিকের উত্তরপত্রের রিভিউ ও স্ক্রুটিনি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত মধ্যশিক্ষা পর্ষদের, জেনে নিন বিস্তারিত

নির্দেশিকা জারি করে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে ১৭ অগাস্ট পর্যন্ত পর্ষদের রিজিওনাল অফিস গুলি মারফত রিভিউ অফ স্ক্রুটিনি জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে

নির্দেশিকা জারি করে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে ১৭ অগাস্ট পর্যন্ত পর্ষদের রিজিওনাল অফিস গুলি মারফত রিভিউ অফ স্ক্রুটিনি জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে

নির্দেশিকা জারি করে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে ১৭ অগাস্ট পর্যন্ত পর্ষদের রিজিওনাল অফিস গুলি মারফত রিভিউ অফ স্ক্রুটিনি জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে

  • Share this:

#কলকাতা: রিভিউ ও স্ক্রুটিনি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এবার থেকে রিভিউ ও স্ক্রুটিনীর আবেদনপত্র জমা দেবার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাক্ষর লাগবে না। তার বদলে অভিভাবকের স্বাক্ষর হলেই রিভিউ ও স্ক্রুটিনীর জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে। শুক্রবার রাজ্যের স্কুলগুলির উদ্দেশ্যে এমনই নির্দেশিকা জারি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

নির্দেশিকা জারি করে পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে ১৭ অগাস্ট পর্যন্ত পর্ষদের রিজিওনাল অফিস গুলি মারফত রিভিউ অফ স্ক্রুটিনি জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে। এতদিন সাধারণত ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাক্ষর নিয়েই রিভিউ ও স্ক্রুটিনির আবেদনপত্র জমা দেওয়া যেত। কিন্তু বর্তমানে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে স্কুলগুলি বন্ধ রয়েছে। বলতো এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে ছাত্রছাত্রীরা কিভাবে স্কুলে এসে রিভিউ ও স্ক্রুটিনীর আবেদনপত্রে স্বাক্ষর করবেন তা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। অবশেষে বিতর্কের জেরে পর্ষদ এই সিদ্ধান্তের সংশোধন করে নয়া নির্দেশিকা জারি করল।

অন্যদিকে বুধবারের পর শুক্রবার রাজ্যের স্কুলগুলি থেকে মাধ্যমিকের মার্কশিট ও সার্টিফিকেট দেওয়ার প্রক্রিয়া হল। অভিভাবকদের হাতে কিভাবে মার্কশিট ও সার্টিফিকেট দেওয়া হবে তা নিয়ে একগুচ্ছ গাইডলাইন জারি করেছিল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। সেই গাইড লাইন  মেনেই শুক্রবার কলকাতা ও শহরতলীর একাধিক স্কুল  অভিভাবকদের হাতে মার্কশিট ও সার্টিফিকেট তুলে দেয়।

এদিন দক্ষিণ কলকাতার বিনোদিনী গার্লস হাই স্কুল থেকে শুরু করে বালিগঞ্জ গভমেন্ট প্রত্যেকটি স্কুলে দেখা যায় অভিভাবকরা সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই দাঁড়িয়ে রয়েছেন। আবার কোনও কোনও স্কুলে অবশ্য মার্কশিট ও সার্টিফিকেট নেওয়ার জন্য যাতে অভিভাবকদের হুড়োহুড়ি না পড়ে যায় তাই নির্দিষ্ট দূরত্ব অন্তর অন্তর দিয়ে গোল করে নির্দিষ্ট জায়গা করা হয়েছিল অভিভাবকদের দাঁড়ানোর জন্য। অভিভাবকরা দূরত্ব বজায় রেখে চক দিয়ে গোল করা অংশে  লাইনে দাঁড়িয়ে তবেই মাধ্যমিকের মার্কশিট ও সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেছেন।

যদিও এদিন মার্কশিট ও সার্টিফিকেট সংগ্রহের সময় অবিভাবকদের অবশ্য  রিভিউ ও স্ক্রুটিনি সম্পর্কে নির্দিষ্টভাবে কিছু বলতে পারিনি স্কুলগুলি। শুক্রবার অবশ্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে রিভিউ ও স্ক্রুটিনি সম্পর্কে নির্দেশিকা বেরোনোর পর কার্যত অনেকটাই নিশ্চিত হতে পারল ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরা।

মূলত কোন বিষয়ের নম্বর নিয়ে যদি সন্তুষ্ট না হয় বা খাতা দেখার ক্ষেত্রে যদি সন্তুষ্ট না হয় তাহলে ছাত্রছাত্রীরা রিভিউ করে থাকেন এবং যদি খাতার নম্বর দেওয়ার ক্ষেত্রে যোগ- বিয়োগের ক্ষেত্রে ভুল হয় তাহলে ছাত্রছাত্রীরা স্ক্রুটিনীর জন্য আবেদন করে থাকেন। তবে একটি ছাত্র বা ছাত্রী একাধিক বিষয়ে রিভিউ ও স্ক্রুটিনীর জন্য আবেদন করতে পারেন।

Somraj Bandopadhyay

Published by:Elina Datta
First published: