• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  •  জট কাটল, ১ মার্চ শহীদ মিনারে অমিত শাহের সভার অনুমতি দিল কলকাতা পুলিশ

 জট কাটল, ১ মার্চ শহীদ মিনারে অমিত শাহের সভার অনুমতি দিল কলকাতা পুলিশ

সিএএ নিয়ে টক্কর? শহীদ মিনারের জবাব অমিত শাহের, ইন্ডোরে মমতার?

সিএএ নিয়ে টক্কর? শহীদ মিনারের জবাব অমিত শাহের, ইন্ডোরে মমতার?

সিএএ নিয়ে টক্কর? শহীদ মিনারের জবাব অমিত শাহের, ইন্ডোরে মমতার?

  • Share this:
#কলকাতা: পুরভোটের মুখে আবার সিএএ নিয়ে তরজা বিজেপি, তৃণমূলে?  লাভ ওঠাবে কে তা নিয়েই প্রশ্ন দুই শিবিরে। সোমবার,  কলকাতায় অমিতের সভার অনুমতি দিল পুলিশ।   বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানান, সভার জন্য ''মৌখিক " অনুৃমতি দিয়েছে কলকাতা পুলিশ। পয়লা মার্চ শহীদ মিনারেই সভা করবেন অমিত শাহ। এদিকে, অমিতের সভার পরের দিনেই নেতাজী ইন্ডোরে পুরভোটকে সামনে রেখে সভা করবেন মমতা। পরীক্ষার মরশুমে মাইক বাজিয়ে সভা করা নিয়ে বিজেপির প্রস্তাবে রাজি হচ্ছিল না কলকাতা পুলিশ। সে কারনে,১ লা মার্চ কলকাতার শহীদ মিনারে সিএএ র সমর্থনে অমিত শাহের সভা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছিল। পুলিশের তরফে, প্রকাশ্য সভা না করে, হলসভা করার প্রস্তাবও দেওয়া হয়। কিন্তু, তাতে রাজি হয় নি বিজেপি। বরং, পুলিশকে পাল্টা যুক্তি দিয়ে বিজেপি দাবি করেছিল, পরীক্ষার মাইকবিধি সংক্রান্ত বিষয়টি অমিত শাহের সভাস্থলের ক্ষেত্রে খাটে না। কারণ, শহীদ মিনার কোন বসতি এলাকা নয়, যে সেখানে মাইক বাজিয়ে সভা করলে, পরীক্ষার্থীদের অসুবিধা হবে। দ্বিতীয়ত, অমিত শাহের সভা হবে ১ লা মার্চ, রবিবার। ফলে, তার জন্য শহরের বাকি জায়গায় যানজটেরও কোন সম্ভবনা নেই। শহীদ মিনারের জমি সেনাবাহিনীর। সেই সেনার তরফেও সভার অনুমতি পাওয়া গেছে। ফলে, অমিত শাহের সভার জন্য পুলিশ, প্রশাসনের কোন আপত্তি থাকার কারন নয়। এরপরেও, লালবাজার থেকে তাদের বিষয়টি নিয়ে তৎপরতা না দেখানোয়, বিজেপির তরফে আরও একটি চিঠিতে শাহের সভার দ্রুত অনুমতি দেবার আর্জি  জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়। ঐ চিঠিতে বিজেপি কৌশলে, পরীক্ষার মরশুমেই, ২০১৪ সালের ২৮ শে মার্চ,  শহীদ মিনারে রাহুল গান্ধীর সভার অনুমতি দেওয়ার বিষয়টির উল্লেখ করে। বিজেপির দাবি, এই চিঠি পাওয়ার পরেই, শহীদ মিনারে সভা করার ব্যাপারে অনুমতি দিতে বাধ্য হয় পুলিশ। যদিও, রাজনৈতিক মহলের মতে, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সভা করতে চাইলে রাজ্য পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে তা আটকানো কঠিন। ২৮ শে ভুবনেশ্বরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকের আগে, রাজনৈতিক ভাবে কেন্দ্রের সঙ্গে সংঘাত চান না মমতা। তবে, সরকার ও প্রশাসনিক স্তরে সংঘাতের রাস্তায় না গেলেও, রাজনৈতিক ভাবে বিজেপিকে পাল্টা দিতে তৈরি মমতা। পুরভোটের মুখে সি এএ নিয়ে কতটা সুর চড়ান অমিত, তার দিকেই তাকিয়ে আছে তৃণমূল।  তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে, শহীদ মিনারে অমিতের সওয়ালের জবাব, ২৪ ঘন্টার মধ্যেই দেবেন তৃনমূল নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। রাজনৈতিক মহলের মতে,  সিএএ নিয়ে রাজ্যে ব্যাকফুটে বিজেপি। পুরভোটের মুখে  সিএএ তর্জায় রাজ্যে এসে সুর চড়ালে, রাজনৈতিক ভাবে লাভবান হবে তৃণমূলই। ARUP DUTTA
Published by:Elina Datta
First published: