Home /News /kolkata /
Indian Railways: অগ্নিপথে অগ্নিগর্ভ, দালালদের পোয়াবারো, বাড়ি ফিরতে চেয়ে অসহায় মানুষের দুর্ভোগ

Indian Railways: অগ্নিপথে অগ্নিগর্ভ, দালালদের পোয়াবারো, বাড়ি ফিরতে চেয়ে অসহায় মানুষের দুর্ভোগ

trains getting cancelled for agnipath middle man are harrasing people

trains getting cancelled for agnipath middle man are harrasing people

ট্রেন বাতিলে যাত্রী ভোগান্তির সঙ্গে শুরু হয়েছে টিকিটের দালালদের উৎপাত।

  • Share this:

#হাওড়া:  গত দু'দিন ধরে হাওড়া স্টেশন থেকে বিহার মুখী ট্রেনগুলো বাতিল হচ্ছে।ট্রেন ধরতে এসে প্লাটফর্মে বসে রয়েছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। কেউ হয়তো এ রাজ্যের বাসিন্দা। টিকিট কেটেছিলেন অন্য রাজ্যে যাবেন বলে।বেশিরভাগ রয়েছেন কলকাতায় ভিন রাজ্য থেকে কাজে আসা মানুষেরা। সবের মধ্যে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে দূরপাল্লার ট্রেন যাত্রীদের।

সকাল থেকে ট্রেনের টিকিট কাউন্টারে টিকিটের টাকা ফেরত নেওয়ার ভিড়। অন্যদিকে বহু যাত্রী রয়েছেন যাঁদের দুদিনে টাকা প্রায় শেষ। এখনও বহু যাত্রী রয়েছে যারা দিল্লি কিম্বা পুনে যাবেন বলে উত্তরবঙ্গ থেকে মালদহ পর্যন্ত এসেছিলেন। মালদহে আসার পর তারা জানতে পারে বিহার অভিমুখে যাওয়ার সব ট্রেন বাতিল। অনেক আশা নিয়ে তাঁরা চলে এসেছিলেন হাওড়া স্টেশনে। এখানে আসার পর সেই একই পরিস্থিতির শিকার তাঁরা।

আরও পড়ুন - Viral Video: মরা জলহস্তীর ওপর দাঁড়িয়ে কাঁপছে সিংহী, চারদিকে ঘিরে রয়েছে ৪০ টি কুমীর, দেখুন

পিঙ্কি চক্রবর্তী বালুরঘাট থেকে একইভাবে মালদহ হয়ে হাওড়া স্টেশনে এসে পৌঁছেছেন। তাঁর কথায় মালদহ থেকে আসার সময় ট্রেনে টিকিট লাগেনি। কিন্তু পুলিশ মাথাপিছু চারজনের কাছ থেকে ২০০ টাকা করে নিয়েছে। হাওড়ায় পৌঁছানোর পর, রাতের বেলা পাশেই একটি হোটেলে সবাই মিলে ছিলেন। তাঁদেরও হাতের টাকা প্রায় শেষ। তাঁর অভিযোগ, স্টেশনে দালালে ভর্তি হয়ে গেছে। কানপুর পর্যন্ত দালালরা টিকিট কেটে দেবে। দালালকে জনপ্রতি টিকিটের ভাড়া অতিরিক্ত ৫০০ টাকা করে দিতে হবে।    দেখা গেল হাওড়া স্টেশনে মানুষের ট্রেন পাওয়া এবং টিকিট পাওয়ার যেরকম তাড়াহুড়ো রয়েছে।তার সঙ্গে পোয়াবারো হয়ে দাঁড়িয়েছে ট্রেনের টিকিটের দালালদের।

বিহারের মজফফরপুর কয়লা বকরি গ্রাম থেকে কুড়ি জনের দল এসেছে।তাঁরা রবিবার নিয়ে তিন দিন স্টেশনেই রয়েছে। যা টাকা ছিল প্রায় শেষ।তাঁদের দাবি সকালবেলা পেয়ারা কিনে তারা খিদে নিবারণ করছেন। তাঁদেরও একটা কথা স্টেশনে টিকিট কাটতে গেলে কাউন্টারে বলছে টিকিট নেই। দালালরা টিকিটের দ্বিগুণ, তিনগুণ টাকা চাইছে,সঙ্গে ঘুমানোর উপায় নেই। ঘুমিয়ে পড়লে চোর চুরি করে নিয়ে পালাচ্ছে সঙ্গের জিনিস।  বাড়ি ফিরবেন কবে? ট্রেন কবে যাবে? এই প্রশ্ন অনুসন্ধান কাউন্টার থেকে টিকিট কাউন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে প্রতিটি যাত্রীর।

SHANKU SANTRA
Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Agnipath, Indian Railways

পরবর্তী খবর