• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • অমিত শাহের কলকাতার সভায় ড্রোনে ‘না’, নিরাপত্তার কারণেই আপত্তি কলকাতা পুলিশের

অমিত শাহের কলকাতার সভায় ড্রোনে ‘না’, নিরাপত্তার কারণেই আপত্তি কলকাতা পুলিশের

File Photo

File Photo

যত কান্ড কী সব মেয়ো রোডে। রাজ্য রাজনীতির যা ভাবগতিক, একথা বলা যেতেই পারে। মেয়ো রোডে অমিত শাহের সভা নিয়ে ঘনঘন পট পরিবর্তন।

  • Share this:

    #কলকাতা: যত কান্ড কী সব মেয়ো রোডে। রাজ্য রাজনীতির যা ভাবগতিক, একথা বলা যেতেই পারে। মেয়ো রোডে অমিত শাহের সভা নিয়ে ঘনঘন পট পরিবর্তন। শেষ পর্বে ড্রোন নিয়ে জমজমাট বিতর্ক। নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় ড্রোন ব্যবহার থেকে পিছিয়ে আসছে বিজেপি।

    কলকাতা পুলিশই এবার বড় বাঁচা বাঁচাল। পুলিশের পরামর্শের দোহাই দিয়ে শেষ মুহূর্তে কোনও রকমে মুখরক্ষা রাজ্য বিজেপির।

    আরও পড়ুন: বীরভূমে ফের বিস্ফোরক উদ্ধার, গাড়ি থেকে মিলল সাড়ে ৪ হাজার ডিটোনেটর

    অমিত শাহের সভায় থাকছে না ড্রোন। তাই ভিড় কত হল সঠিকভাবে বোঝারও উপায় নেই। মেয়ো রোডে কিছুটা ভিড় দেখাতে পারলেই এবারের মতো নিশ্চিন্ত। মনে মনে নিশ্চয় পুলিশকে ধন্যবাদই দিচ্ছেন রাজ্য বিজেপি নেতারা। -অমিতের সভায় ড্রোন ব্যবহার না করারই পরামর্শ -নিরাপত্তার কারণেই বিজেপিকে পরামর্শ পুলিশের -শনিবারের সভায় ১০ থেকে ১২টি ড্রোন ব্যবহারের পরিকল্পনা -পুলিশের পরামর্শে পরিকল্পনায় বদল - সভায় ড্রোন ব্যবহার না করারই সিদ্ধান্ত ড্রোন ব্যবহার করার নির্দেশ এসেছিল দিল্লি থেকে। রাজ্য নেতাদের ভাবগতিকে খুশি নন অমিত শাহ, কৈলাশ বিজয়বর্গীরা। গত কয়েকটি সভায় ভিড় বেশি দেখানো হয়েছিল বলেই রিপোর্ট পান অমিত শাহরা। তারপরই ভিড় নিয়ে সঠিক তথ্য পেতে ড্রোন ব্যবহারের নির্দেশ আসে।

    আরও পড়ুন: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীজোটে যোগ দেবে না আপ, জানিয়ে দিলেন কেজরিওয়াল প্রথমে সভাস্থল নিয়ে চাপানউতোর। মেয়ো রোডে সভার প্রস্তুতি শুরুর পরই আবার অন্য বিপত্তি। রাতারাতি হাইজ্যাক হয়ে যায় মেয়ো রোড। অমিত শাহের সভাস্থলের বড় অংশই নিজেদের ফ্লেক্স ও হোডিংয়ে ঢেকে দেয় তৃণমূল। যদিও শনিবারের সভাকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিচ্ছেন বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব। মেদিনীপুরে প্রধানমন্ত্রীর সভার সাফল্য ধরে রাখতেও নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নিয়েছেন অমিত শাহ।

    আরও পড়ুন: ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীজোটে যোগ দেবে না আপ, জানিয়ে দিলেন কেজরিওয়াল

    ড্রোন ব্যবহার হলে ভিড়ের সঠিক তথ্য সামনে আসত। প্রত্যাশা মাফিক ভিড় না হলে ফের রগড়ানি। পুলিশের সৌজন্যে সেই আশঙ্কা অন্তত থাকল না।

    আরও পড়ুন: আগ্রাসী মেজাজে বামকর্মী-সমর্থকরা, আইন অমান্য ঘিরে ধুন্ধুমার রাজ্যে

    First published: