• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee: শ্রাবন্তী ইস্যুতে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ, সুর মেলালেন সুকান্তের সুরে! যা বললেন...

Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee: শ্রাবন্তী ইস্যুতে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ, সুর মেলালেন সুকান্তের সুরে! যা বললেন...

শ্রাবন্তী প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ

শ্রাবন্তী প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ

Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee: শুক্রবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, "ছবিতে কাজের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। তাই ওঁনারা চলে যাচ্ছেন। আর যা যা বললেন...

  • Share this:

    #কলকাতা: বৃহস্পতিবারই বিজেপি ত্যাগ করেছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। সেই প্রসঙ্গে শুক্রবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee) বলেন, "ছবিতে কাজের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। তাই ওঁনারা চলে যাচ্ছেন। এর পাশাপাশি তৃণমূলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেনি তিনি। ক্ষোভ উগরে দেন শাসকদলের বিরুদ্ধে। তীব্র কটাক্ষ করে তিনি বলেন, "তৃণমূলে একজনই পুরুষ, বাকিরা মহিলা।"

    আরও পড়ুন: ‘দেরি না করে চলে আসুন’, শ্রাবন্তীকে 'স্বাগত' বার্তা মদন মিত্রের! যা লিখলেন...

    প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবারই বিজেপি ত্যাগ করেছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। সেই প্রসঙ্গে এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ  (Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee)  বলেন, "ছবিতে কাজের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। তাই ওঁনারা চলে যাচ্ছেন। এর পাশাপাশি তৃণমূলকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেনি তিনি। সেইসঙ্গে দলবিরোধী মন্তব্য করলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন তিনি।

    বিক্ষুব্ধদের কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে দিলীপ ঘোষ এদিন বলেন, "কেউ কেউ পদে থেকে দায়িত্ব নিয়ে দলবিরোধী মন্তব্য করেন, এতে বেশি ক্ষতি হয়। অনেকে অনেক কিছু বলছেন। পদাধিকারীরা যদি এমন কাজ করেন তাহলে বেশি ক্ষতি হয় এবং সংগঠনেরও ক্ষতি করছেন তাঁরা। পদাধিকারী যদি এমন কথা বলে থাকে, তাঁকে পদ থেকে মুক্ত করে দেওয়া হবে। দল যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটা ঠিক।"

    আরও পড়ুন: 'BJP করলে টলিউডে কাজ মিলছে না': সুকান্ত, শ্রাবন্তীর দল ছাড়া নিয়ে মুখ খুললেন তথাগত-শমিকরা...

    শ্রাবন্তী প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ  (Dilip Ghosh Srabanti Chatterjee)  বলেন, "রাজনীতিতে এমন লোককে রাখা হয় তাঁকে চেনে বলে। জেতার সম্ভাবনা বেশি বলে। দল ভেবেছে এতে লাভ হবে। এমন সব দলই করে। তৃণমূলও করেছে। অনেকে জিতেছেন। সিনেমার তারকা বলেই তাঁকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। কারণ তাঁদের জনপ্রিয়তা আছে। এর আগে বাপ্পি লাহিড়ী ছিলেন। বাবুল সুপ্রিয় এসেছিলেন, তিনি ২ বার সাংসদ হয়েছেন। লকেট চট্টোপাধ্যায়ও তো সিনেমায় ছিলেন। তিনি আমাদের দলে এসেছেন। লড়াই করেছেন। দল তাঁকে গুরুত্ব দিয়েছে। যাঁরা রাজনীতিই বোঝেন না, তাঁরা আজ হতাশ হচ্ছেন। যেসব সেলেবরা চলে যাচ্ছেন একটাই কারণ তাঁদের কোনও ছবিতে অভিনয় করতে দেওয়া হচ্ছে না। তাই তাঁরা চলে যাচ্ছেন।"

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: