• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • CHANCELLOR WILL HAVE TO ADHERE TO NEW RULES SET BY EDUCATION MINISTER AC

আচার্যের ক্ষমতা নিয়ে নয়া বিধি মানতে হবে উপাচার্যদের: শিক্ষা মন্ত্রী

শুক্রবার উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে জানিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সরাসরি কোনো নির্দেশ দিতে পারবেন না আচার্য। শিক্ষা দপ্তর কে তা জানিয়ে করতে হবে

  • Share this:

SOMRAJ BANERJEE #কলকাতা: আচার্যের ক্ষমতা নিয়ে নয়া বিধি উপাচার্যদের মানতে হবে। শুক্রবার উপাচার্যদের সঙ্গে বৈঠকে জানিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীনতায় কোনো হস্তক্ষেপ করা হবে না। তবে সমাবর্তনে আচার্য কে ডাকবেন কী ডাকবেন না তা বিশ্ববিদ্যালয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।মঙ্গলবাড়ী উচ্চশিক্ষা দফতর আচার্যের ক্ষমতা নিয়ে বিবি জারি করার ৭২ ঘন্টার মধ্যেই শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী বৈঠকে বসেন রাজ্যের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের নিয়ে। আগামী ২৪শে ডিসেম্বর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সমাবর্তন করতে পারবে বলেও উপাচার্য সুরঞ্জন দাস কেউ জানিয়ে দিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রী। আচার্যের ক্ষমতা বিশ্ববিদ্যালয়গুলির ওপর নিয়ে জারির পরপরই উঠেছে একাধিক প্রশ্ন। বিরোধীদের অভিযোগ বিশ্ববিদ্যালয়গুলির ওপর আচার্যের ক্ষমতা খর্ব করা হয়েছে। মূলত নয়া বিধিতে বলা হয়েছে - ১) রাজ্যপাল বা আচার্য চাইলেই কোন উপাচার্যকে ফোন করতে বা কোনো নির্দেশ দিতে পারবেন না। ২) বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সরাসরি কোনো নির্দেশ দিতে পারবেন না আচার্য। শিক্ষা দপ্তর কে তা জানিয়ে করতে হবে ৩) কোন কমিটিতে আচার্যের মনোনীত সদস্য কে হবেন তার জন্য শিক্ষা মন্ত্রী তিনজনের নাম দেবেন। তার মধ্যে থেকে একজনকে বেছে নিতে হবে আচার্যকে। ৪) কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল সিলেট বাস সিন্ডিকেটের বৈঠক হলে শিক্ষামন্ত্রী উচ্চ শিক্ষা দপ্তরের অনুমতি নিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আচার্যকে শুধু জানিয়ে দিলেই হবে। মঙ্গলবার-ই এই সংক্রান্ত বিধি জারি হওয়ার পর শুক্রবার উপাচার্যদের নিয়ে বৈঠকে বসেন শিক্ষামন্ত্রী। বৈঠকে অবশ্য জানিয়ে দেওয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আচার্যকে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ডাকবেন কি ডাকবেন না তা বিশ্ববিদ্যালয় সিদ্ধান্ত নেবে। এ প্রসঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, "আজ উচ্চ শিক্ষা সংসদের বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় গুলিকে বিধি সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে। কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া বিধি নিয়ে কোন বিভ্রান্তি নেই"। এদিকে নয়া বিধি জারির পরপরই রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন স্থগিত হয়ে গেছে। শুক্রবারের বৈঠকে সমাবর্তন করতে পারবেন বলেও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সৈকত মিত্র কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে কবে তারা সমাবর্তন করবেন তা ঠিক করবেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আগামী ২৪শে ডিসেম্বর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সমাবর্তন করতে পারবেন তাদের নিয়ম মেনে বলেও উপাচার্য সুরঞ্জন দাস কে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। শুক্রবারের বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে যে শূন্যপদ পড়ে রয়েছে এখনও পর্যন্ত তা দ্রুত পূরণ করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে উপাচার্যদের।তার সঙ্গে সিবিসিএস নিয়ে যে সমস্যা চলছে তা নিয়ে উপাচার্যদের কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে বৈঠক করার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: