কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রথমে ন্যূনতম’ পরে ‘ব্যাপক’, আমফান নিয়ে রাজ্যপালের ট্যুইটে ফের বিতর্ক

প্রথমে ন্যূনতম’ পরে ‘ব্যাপক’, আমফান নিয়ে রাজ্যপালের ট্যুইটে ফের বিতর্ক

তবে এ ট্যুইটে শুধু রাজ্য ও রাজ্যপালের সংঘাত নয়, ক্ষোভে ফেটে পড়লেন নেটিজেনরা ৷

  • Share this:

#কলকাতা: ফের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের ট্যুইটে বিতর্ক ৷ তবে এ ট্যুইটে শুধু রাজ্য ও রাজ্যপালের সংঘাত নয়, ক্ষোভে ফেটে পড়লেন নেটিজেনরা ৷ সমালোচনার পরে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ১৮০ ডিগ্রি বদলে গেল রাজ্যপালের মন্তব্য ৷ বৃহস্পতিবার আমফানের তাণ্ডবলীলার ছবি ট্যুইট করে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় লেখেন, ন্যূনতম ক্ষতি হয়েছে বাংলার ৷ তাঁর এই মন্তব্যেই দলমত নির্বিশেষে নেটিজেনদের নিশানায় পড়েন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ৷ তার পরের ট্যুইটেই সম্পূর্ণ বিপরীত শব্দ ব্যবহার করে মন্তব্য ধনখড়ের ৷

ধনখড়ের ট্যুইটে বিতর্ক নতুন কিছু নয়৷ কিন্তু এদিন আমফান নিয়ে রাজ্যপালের ট্যুইট নিয়ে সমালোচনা ছিল অন্যমাত্রার ৷ সুপার সাইক্লোন আমফানের তাণ্ডবের পর প্রায় ২৪ ঘণ্টা কাটতে চলেছে ৷ এখনও বোঝা সম্ভব হয়নি ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৷ গ্রাম থেকে শহর আমফানে বিপুল ক্ষতিগ্রস্থ ৷ আয়লা, বুলবুল, ফণী....ক্ষতি হয়েছে অনেক। কিন্তু আমফান ছাপিয়ে গেছে সেসবকে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিধ্বংসী আমফানের সঙ্গে তুলনা টানা যায় শুধু ১৭৩৭ ও ১৮৬৪ সালের ঘূর্ণিঝড়ের। মৃত্যু সংখ্যায় নয়, ঝড়ের দক্ষযজ্ঞে। আমফানে তাণ্ডবে ধূলিসাৎ বহু গুড়িয়ে গিয়েছে দুই পরগণা ৷ তছনছ কলকাতা, পূর্ব মেদিনীপুর ৷ সুপার সাইক্লোন আমফানে মৃত্যু বহু মানুষের ৷ এখনও পর্যন্ত গোটা রাজ্যে ৭২ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে ৷ সাইক্লোন আমফানের জেরে খোদ কলকাতার বুকে ১৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে ৷ বহু এলাকা বিদ্যুৎহীন-টেলি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ৷ উপড়ে গিয়েছে লক্ষাধিক গাছ ৷ আমফানের তাণ্ডবলীলা দেখে মুখ্যমন্ত্রী মন্তব্য করেন, ধ্বংসস্তূপের মধ্যে দাঁড়িয়ে আছি ৷ কত ক্ষয়ক্ষতি বুঝতে বুঝতেই ৩-৪ দিন লেগে যাবে ৷

বৃহস্পতিবার ভোরের আলো ফুটতেই আর স্পষ্ট বিধ্বংসী সাইক্লোনের ধ্বংসলীলা ৷ এরপরই সামনে আসে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের ট্যুইট ৷ যেখানে তিনি বাংলায় লিখেছেন, ‘আমফানের প্রকোপে যে প্রাণহানি ঘটেছে বা সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে তার জন্যে আমি মর্মাহত । আমি গত কয়েকদিন ধরে ক্রমাগত বিভিন্ন এজেন্সির সাথে সম্পর্ক রেখে চলেছিলাম। তাদের দায়িত্ববোধ ফলে ন্যুনতম ক্ষতি হয়েছে।’ এই ট্যুইটের পরই বয়ে যায় সমালোচনা ঝড় ৷ শুধু রাজনৈতিক দলগুলির থেকেও বেশি ক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ মানুষ ৷ এর কিছুক্ষণের মধ্যেই নতুন করে ট্যুইট করেন রাজ্যপাল লেখেন, ‘সুপার সাইক্লোন আমফান ব্যাপক ও অভূতপূর্ব ক্ষতি করেছে। অবর্ণনীয় কষ্টের মধ্যে আছেন মানুষজন। NGOগুলি সমেত সকলকে অনুরোধ করছি রিলিফের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়তে। আমি @MamataOfficialএর পক্ষ থেকে রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছি যাতে @PMOIndia সত্ত্বর যথাযোগ্য পদক্ষেপ করতে পারেন।’

অনেকে একে বাংলা ভাষা বোঝার সমস্যা বলেও ব্যাখা করেছেন ৷ যে কারণে দুটো বিপরীত শব্দের ব্যবহারে দুটো ট্যুইটে আকাশপাতাল তফাৎ ৷ তবে এই প্রথম নয়, ট্যুইট করে ‘বাংলা’কে আহত আগেও করেছেন ৷ এর আগে বঙ্গভঙ্গকে বাংলার গৌরবময় দিন বলে অভিহিত করে ট্যুইট করেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় ৷

Published by: Elina Datta
First published: May 21, 2020, 10:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर