corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউন ! বাড়ি ফেরা হলো না কাশ্মীরি পড়ুয়ার, আপাতত ঠিকানা যাদবপুরের আন্তর্জাতিক হোস্টেল

লকডাউন ! বাড়ি ফেরা হলো না কাশ্মীরি পড়ুয়ার, আপাতত ঠিকানা যাদবপুরের আন্তর্জাতিক হোস্টেল

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সব হোস্টেল খালি। লকডাউন এর জেরে আটকে পড়েছেন শুধুমাত্র এই দুই ভিন রাজ্য থেকে আসা পড়ুয়া।

  • Share this:

#কলকাতা: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সব হোস্টেল খালি। লকডাউন এর জেরে আটকে পড়েছেন শুধুমাত্র এই দুই ভিন রাজ্য থেকে আসা পড়ুয়া।মূলত কাশ্মীরের ছাত্র হাসিম আহমেদ এবং উত্তরপ্রদেশের অভিজিৎ কুমার।আপাতত তাদের ঠিকানা হয়েছে কলকাতাই।এই দুই পড়ুয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক হোস্টেলে থাকা-খাওয়ার সাময়িক ব্যবস্থা করা হয়েছে। গত ২৩ শে মার্চ তাদের যাওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত ট্রেনের টিকিট বাতিল হয়ে যাওয়ায় তারা ফিরতে পারেননি। কিছুটা হলেও বাড়ি ফিরতে না পারায় মন খারাপই করে আছেন এই দুই পড়ুয়া। তার জেরেই চিন্তিত হয়ে বাবা-মার ভিডিও কল আসছে এই দুই পড়ুয়ার কাছে। তবে এই দুই পড়ুয়া আপাতত কলকাতাকে নিরাপদ স্থান হিসেবে দাবি করছেন। এ প্রসঙ্গে কাশ্মীরী পড়ুয়া হাসিম আহমেদ বলেন "এমনিতেই কাশ্মীরের পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নয়। তার ওপরে লকডাউন চলায় অনেকদিন ধরেই বাড়ি যেতে পারিনি। এখন একটাই অপেক্ষা করছি কবে লকডাউন উঠবে।"

দেশজুড়ে ক্রমশই করোনা আক্রান্তের ছবির বদল হচ্ছে। পাল্লা দিয়ে বেড়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করার জন্য দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে।পরবর্তী ক্ষেত্রে এই লকডাউন বাড়তে পারে বলেও জল্পনা চলছে। লকডাউন ঘোষণার পরপরই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। এরই মাঝে লকডাউন এর জেরে বাড়ি ফিরতে পারলেন না যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্র। বিশ্ববিদ্যালয় হোস্টেল গুলিতে সব মিলিয়ে দু হাজারের কাছাকাছি পড়ুয়া থাকে। লকডাউন ঘোষণার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয় তরফে সব ছাত্র ছাত্রীদের হোস্টেল খালি করতে বলা হয়। সব ছাত্রছাত্রী বাড়ি ফিরে গেলেও ফেরা হলো না কাশ্মীরের বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন টেকনোলজির ছাত্র হাসিম আহমেদের। গত কয়েক মাস ধরেই কাশ্মীরের পরিস্থিতি ঠিকঠাক ছিল না। তার উপরে এই লকডাউন কার্যত মানসিক অবসাদে ফেলে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের এই কাশ্মীরি পড়ুয়াকে।

আপাতত বাড়ি ফিরতে না পারায় এই কাশ্মীরি পড়ুয়াকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক হোস্টেলে সাময়িক ভাবে রাখা হয়েছে। একই অবস্থা উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুর এর বিশ্ববিদ্যালয় চতুর্থ বর্ষের ছাত্র অভিজিৎ কুমারের। আপাতত এই লকডাউন এ অনলাইনে পড়াশোনা, গান শুনেই দিন কাটাচ্ছে এই পড়ুয়ারা। তবে অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় কলকাতায় এখন তাদের কাছে নিরাপদ বলেই দাবি করছেন।

First published: April 9, 2020, 1:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर