Home /News /jalpaiguri /
Jalpaiguri: দু'হাজার জন মানুষের জন্য ৪ টি কমিউনিটি টয়লেট! বিষয় গড়াল নবান্নতে

Jalpaiguri: দু'হাজার জন মানুষের জন্য ৪ টি কমিউনিটি টয়লেট! বিষয় গড়াল নবান্নতে

title=

জলপাইগুড়ি পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডে ব কমিউনিটি টয়লেট বেহাল। দীর্ঘদিন ধরে সেগুলির দড়জা কিংবা চাল নেই। এই অবস্থায় এলাকাবাসীরা একটি গন দাবী পত্র নবান্নে পাঠিয়ে ছিলেন।

  • Share this:

    জলপাইগুড়িঃ জলপাইগুড়ি পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডে ব কমিউনিটি টয়লেট বেহাল। দীর্ঘদিন ধরে সেগুলির দড়জা কিংবা চাল নেই। এই অবস্থায় এলাকাবাসীরা একটি গন দাবী পত্র নবান্নে পাঠিয়ে ছিলেন। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নবান্ন থেকে একটি ইমেল আসে জলপাইগুড়ি পৌরসভায়। জানা গেছে ১২ নং ওয়ার্ডের জয়ন্তী পাড়া এলাকার একটি বিস্তীর্ণ অংশ জুড়ে রয়েছে হরিজন বস্তি, হঠাৎ বস্তি এবং জয়ন্তী বস্তি। এই তিনটি বস্তি মিলিয়ে অত্যন্ত হাজার দুয়েক দরিদ্র মানুষ বসবাস করে। দীর্ঘদিন আগে এই এলাকার বাসিন্দাদের জন্য জলপাইগুড়ি পৌরসভার পক্ষ থেকে ৪ টি কমিউনিটি টয়লেট বানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে এই টয়লেট গুলির অত্যন্ত বেহাল দশা। যা মানুষের ব্যাবহারের অযোগ্য। অভিযোগ এলাকার কোনও মহিলা শৌচকর্ম করতে গেলে তিনি অন্য মহিলাকে পাহাড়া রেখে তারপর শৌচকর্ম সারেন। কিন্তু আর অন্য কোনও উপায় না থাকায় এলাকার মানুষেরা এই টয়লেটই ব্যাবহার করে আসছিল।

    প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা গত মে মাসে একটি গণদাবী পত্র স্থানীয় কাউন্সিলর মনীন্দ্র নাথ বর্মনের কাছে নিয়ে আসে৷ এরপর সেই দাবীপত্রে তিনি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবার সুপারিশ করে দেন। এরপর এলাকাবাসীরা সেই দাবীপত্রর অনুলিপি জলপাইগুড়ি পৌরসভা, জেলাশাসক ও নবান্নে পাঠায়। এরপর নবান্নের পক্ষ থেকে জলপাইগুড়ি পৌরসভায় ইমেল পাঠিয়ে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়।

    আরও পড়ুনঃ মামার বাড়িতে বেড়াতে এসে মাছ ধরতে গিয়ে জলে ডুবে নিখোঁজ শিশু!

    স্থানীয় কাউন্সিলর মনীন্দ্র নাথ বর্মন বলেন এবার পৌর ভোটে আমি দাঁড়াবার পর যখন ওই এলাকায় ভোট চাইতে যাই তখন স্থানীয় মানুষ আমাকে চেপে ধরে৷ তাদের কমিউনিটি টয়লেট এর বেহাল দশা দেখায়। তখন আমি বলি আমি নির্বাচিত হলে নিশ্চয়ই এই বিষয়গুলি সমাধান করবো। এরপর এলাকার মানুষ তাদের দাবীপত্র নিয়ে এলে তাতে আমি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সুপারিশ করি।

    আরও পড়ুনঃ ডেঙ্গু কিছুটা নিয়ন্ত্রনে আসলেও ফের সংক্রমণ আটকাতে জোর মশা দমনে

    এরপর তারা তাদের দাবী পত্র নবান্নে পাঠায়। পৌরসভা থেকে ইঞ্জিনিয়ার গিয়েছিল। জানতে পারলাম অত্যন্ত দ্রুততার সাথে এই টয়লেট গুলি নির্মান করা হবে। এই বিষয় জলপাইগুড়ি পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান সৈকত চ্যাটার্জীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন নবান্ন থেকে ইমেল এসেছে। আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করে দিয়েছি।

    Geetashree Mukherjee
    First published:

    Tags: Jalpaiguri, Nabanna

    পরবর্তী খবর