Home /News /ipl /

IPL 2021: দেশে ঢোকার অনুমতি নেই, কোথায় গেলেন অজিরা ?

IPL 2021: দেশে ঢোকার অনুমতি নেই, কোথায় গেলেন অজিরা ?

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার,কোচ এবং ধারাভাষ্যকারদের মালদ্বীপে পৌঁছে দেওয়া হল

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার,কোচ এবং ধারাভাষ্যকারদের মালদ্বীপে পৌঁছে দেওয়া হল

আপাতত ১৫ মে পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় ঢোকার অনুমতি নেই কারও। ফলে ডেভিড ওয়ার্নার থেকে শুরু করে স্টিভ স্মিথ, প্যাট কামিন্স, ড্যানিয়েল স্যামসরা এখন মালদ্বীপে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: কথা দিয়েছিল বিসিসিআই। সেই কথা রাখল তাঁরা। আইপিএল বন্ধ হয়ে যাওয়ার দুদিনের ভেতরে আটকে পড়া অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার, কোচ, সাপোর্ট স্টাফ, ধারাভাষ্যকারদের দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু করে দিল ভারতীয় বোর্ড। বৃহস্পতিবার দিল্লি থেকে বিশেষ বিমানে অস্ট্রেলিয়ানদের মালদ্বীপে রওনা করা হয়। সেখানে পৌঁছে আপাতত কয়েকদিন অপেক্ষা করবেন তাঁরা। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন জানিয়ে দিয়েছিলেন ভারত থেকে আপাতত ১৫ মে পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় ঢোকার অনুমতি নেই কারও। ফলে ডেভিড ওয়ার্নার থেকে শুরু করে স্টিভ স্মিথ, প্যাট কামিন্স, ড্যানিয়েল স্যামসরা এখন মালদ্বীপে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন।

    অপেক্ষা করবেন অস্ট্রেলিয়ার সীমা খোলার। তারপর নিষেধাজ্ঞা শেষ হলে যে যাঁর শহরে রওনা হবেন। স্কট মরিসন সরকারের এমন সিদ্ধান্তে আগেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন এক অস্ট্রেলিয়ান ধারাভাষ্যকার। প্রধানমন্ত্রীর এমন আচরণ মেনে নেওয়া যায় না এবং প্রধানমন্ত্রীর হাতে রক্ত লেগে আছে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। যদিও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় থেকে শুরু করে ব্রিজেশ প্যাটেল, প্রত্যেকেই অভয় দিয়েছিলেন ক্রিকেটারদের যতক্ষণ না বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, ততক্ষণ শেষ হবে না বোর্ডের দায়িত্ব।

    সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর জানিয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ধন্যবাদ জানিয়েছে বিসিসিআইকে। যদিও সুর নরম করেছেন স্কট মরিসন। নিষেধাজ্ঞা না উঠলেও, দেশে ফিরলে জেলে যেতে হবে, এই নিয়ম বাতিল করার মুখে তিনি। ডেভিড ওয়ার্নার আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন তাঁর মেয়ের আঁকা ছবি। সেখানে মেয়ে বাবাকে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসার কথা লিখেছে।

    বাকিদের পরিবারও অনিশ্চয়তায় ছিল। শেষপর্যন্ত মালদ্বীপ পৌঁছে যাওয়ায় কিছুটা হলেও সেই দুশ্চিন্তা দূর হল। তবে চেন্নাই সুপার কিংস দলের ব্যাটিং কোচ মাইক হাসি আপাতত ভারতেই আছেন। তাঁর শরীরে ভাইরাসের লক্ষণ দেখা গিয়েছে। এমনিতে সমস্যা না থাকলেও সাবধানতা অবলম্বন করেই তাঁকে দেশে পাঠানো হয়নি। সুস্থ হয়ে ওঠার পর অস্ট্রেলিয়া পাঠানো হবে তাঁকে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: Australian Cricketer, BCCI

    পরবর্তী খবর