• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • Viral News|| অটোপাইলট মোডে চলছে গাড়ি! সামনের সিটে বসে কন্যা সন্তানের জন্ম দিলেন মহিলা!

Viral News|| অটোপাইলট মোডে চলছে গাড়ি! সামনের সিটে বসে কন্যা সন্তানের জন্ম দিলেন মহিলা!

গাড়িতে শিশুর জন্ম। সংগৃহীত ছবি।

গাড়িতে শিশুর জন্ম। সংগৃহীত ছবি।

woman gives birth child in front seat of Tesla car runs on autopilot mode: নার্সরা শিশুটির নাম দেন ‘টেসলা বেবি’, যদিও কিটিং ও ইয়ান মেয়ের নাম রেখেছেন মেইভ।

  • Share this:

    #পেনসিলভেনিয়া: বিশ্বের প্রথম 'টেসলা বেবি'র জন্ম। বাড়ি থেকে বড় ছেলের স্কুলের উদ্দেশ্যে  রওনা হয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে পৌঁছনোর আগে 'টেসলা' গাড়ির সামনের সিটে বসে সন্তানের জন্ম দিলেন পেনসিলভেনিয়ার এক মহিলা। ইলেক্ট্রিক টেসলা গাড়িটি সেই সময়ে অটোপাইলট মোডে চলছিল। ৯ সেপ্টেম্বর ভূমিষ্ঠ হয় 'টেসলা বেবি'। এখন তাঁর বয়স সাড়ে তিনমাস। জানা গিয়েছে, প্রসব যন্ত্রনা বাড়তে থাকায় মহিলার স্বামী তাঁদের গাড়িটিকে অটোপাইলট মোডে দিয়ে দেন। তারপরে স্ত্রীকে প্রসবে সাহায্য করেন। স্বচালিত গাড়ির ইতিহাসে এমন ঘটনা প্রথম।

    জানা গিয়েছে, শিশুটির মায়ের নাম ইয়ান শেরি এবং বাবা কেটিং শেরি। দম্পতি জানান, ৯ সেপেম্বর বড় ছেলেকে স্কুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছিলেন দম্পতি। রাস্তায় জ্যামে আটকে পড়েন। সেই সময়েই আচমকাই ইয়ানের 'ওয়াটার ব্রেক' শুরু হয়। তাঁরা হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা দেন হিকই কিন্তু বুঝতে পেরেছিলেন হাস্পাতালে পৌঁছনোর আগেই সন্তান ভূমিষ্ঠ হয়ে যেতে পারে। কারণ রাস্তায় খুবই ট্রাফিক জ্যাম ছিল।

    আরও পড়ুন: 'পুলিশ ঘুষ নেয়, কাজও করে', ভরা ক্লাসরুমে পুলিশ আধিকারকের মন্তব্যে সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড়!

    ফলে স্বাভাবিকভাবেই সময়ে হাসপাতালে পৌঁছোতে পারেননি। সেই সময়ে পরিস্থিতি বুঝে কিটিং টেসলা গাড়িকে সেলফ ড্রাইভিং মুডে দিয়ে দেন নেভিগেশন সেট করে, যাতে তিনি স্ত্রীকে সহযোগিতা করতে পারেন। হাসপাতালের পথে টেসলা গাড়িটি নিজে থেকেই চলতে থাকে। যখন তারা হাসপাতালের কাছাকাছি পৌঁছে যান। ইয়ান আনন্দে চিৎকার করে ওঠেন। ততক্ষণে অবশ্য পৃথিবীর আল দেখে ফেলেছে 'টেসলা বেবি'। ভাগ্যক্রমে একজন শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ সে সময়ে হাসপাতালের বাইরেই ছিলেন। তিনি গাড়ির মধ্যেই সদ্যজাতের নাড়ি কেটে দেন।

    আরও পড়ুন: হাড় কাঁপানো ঠান্ডায় নাজেহাল আমজনতা, আরও শীতের পূর্বাভাস, হলুদ সতর্কতা জারি...

    পরবর্তী সময়ে নার্সরা শিশুটির নাম দেন ‘টেসলা বেবি’, যদিও কিটিং ও ইয়ান মেয়ের নাম রেখেছেন মেইভ। দম্পতি জানিয়েছেন, এই গাড়িটি তাঁরা মেয়েকে দিয়ে যাবেন। উল্লেখ্য, দম্পতির প্রথম সিন্তানের বয়স ৩ বছর বয়সী। সে ফিলাডেলফিয়ার একটি প্রি-স্কুলে পড়ে।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: