Home /News /international /
UK Heatwave: ৪০ ডিগ্রিতে বাকিংহাম প্রাসাদের সামনে রানির রক্ষীর জলপান, তাপপ্রবাহ ও চড়া গরমে নাভিশ্বাস ইংল্যান্ডের

UK Heatwave: ৪০ ডিগ্রিতে বাকিংহাম প্রাসাদের সামনে রানির রক্ষীর জলপান, তাপপ্রবাহ ও চড়া গরমে নাভিশ্বাস ইংল্যান্ডের

তাপপ্রবাহ ও চড়া গরমে নাভিশ্বাস ইংল্যান্ডের

তাপপ্রবাহ ও চড়া গরমে নাভিশ্বাস ইংল্যান্ডের

UK Heatwave:এই পরিস্থিতিতে জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ড সরকার

  • Share this:

    লন্ডন : তাপমাত্রা পৌঁছেছে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে৷ চলতি গ্রীষ্মের মরশুমে গ্রেট ব্রিটেনে সোমবার ছিল উষ্ণতম দিন ৷ অসহনীয় পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে বাকিংহাম প্রাসাদের সামনে রানির রক্ষীকেও কর্তব্যরত অবস্থায় জলপান করাতে হল! লন্ডনের রাজপথে এ দৃশ্য এখন ভাইরাল৷ ব্রিটেনের হেল্থ সিকিওরিটি এজেন্সি এবং আবহাওয়া অফিস এই প্রথম রেড অ্যালার্ট জারি করেছে৷ চূড়ান্ত তাপমাত্রায় প্রাণ বাঁচাতে জারি করা হয়েছে সতর্কতা৷ হেল্থ সিকিয়োরিটি এজেন্সির তরফে ইংল্যান্ডে সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হিট হেল্থ ওয়ার্নিং জারি করা হয়েছে চতুর্ত স্তর পর্যন্ত ৷

    এই পরিস্থিতিতে জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ড সরকার৷ আবহবিদদের পূর্বাভাস, মঙ্গলবার তাপপ্রবাহ শীর্ষবিন্দুতে উঠবে৷ তবে কিছুটা স্বস্তি দিয়ে বুধবারবৃষ্টির পূর্বাভাস আছে৷ রেল সংস্থাগুলি দেয় এমন সংস্থাগুলি বাধ্য হচ্ছে পরিষেবা বাতিল করতে ৷ বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুলও৷ স্বাস্থ্য পরিষেবা যেখানে দেওয়া হয় সেখানে জারি রাখা হয়েছে অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা৷

    আরও পড়ুন : তিনিই হবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী? দলের নেতা নির্বাচনের প্রথম ধাপে জয়ী ঋষি সুনক

    ডাউনিং স্ট্রিট থেকে জানানো হয়েছে নেটওয়ার্কের কিছু অংশে তাপমাত্রার জন্য ক্ষতি এড়াতে কিছু নিয়ন্ত্র জারি করা হয়েছে৷ কারণ অত্যধিক গরমে রেলপরিষেবা, বিদ্যুৎপরিবাহী তার, সিগন্যালিং ব্যবস্থা-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে ৷ নেটওয়ার্ক রেল-এর তরফে জানানো হয়েছে প্রতিকূল আবহাওয়ায় পরিষেবা বিলম্বিত হতে পারে এবং অনেক বেশি সময় লাগতে পারে ৷ সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন করা হয়েছে জরুরি প্রয়োজন না থাকলে সোমবার ও মঙ্গলবার বাডি় থেকে না বার হতে ৷

    আরও পড়ুন : ৭৩ এ চলে গেলেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রথম স্ত্রী, আবেগতাড়িত স্বামী যা বললেন

    দেশবাসীর স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিয়েও চিন্তিত ব্রিটেনের আবহাওয়া দফতর ৷ মনে করা হচ্ছে এই চড়া তাপমাত্রায় শুধু হাই রিস্ক গ্রুপে থাকা মানুষজনই নন, অসুস্থ হতে পারেন সুস্থ ও স্বাভাবিকরাও৷ স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ও কর্মপদ্ধতিতে কিছউ পরিবর্তন আনা বাঞ্ছনীয় বলে মনে করা হচ্ছে৷ বিদ্যুৎ, জল ও মোবাইল ফোন পরিষেবা ব্যাহত হতে পারে বলেও আশঙ্কা ৷ তবে পরিস্থিতি মোকাবিলায় তারা প্রস্তুত বলেও জানানো হয়েছে ব্রিটিশ সরকারের তরফে৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published:

    Tags: England, United Kingdom

    পরবর্তী খবর