• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • PORI MONI DHAKA POLICE OFFICER IN TROUBLE AFTER INVOLVING WITH BANGLADESHI ACTRESS SANJ

Pori Moni: জেরার নামে পরীমনির সঙ্গে একান্তে ১৮ ঘণ্টা! শাস্তির মুখে গোয়েন্দা অফিসার...

পরীর প্রেমে গোয়েন্দা?

Pori Moni : পরীমনির জন‍্য ফেঁসেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিসের ADC নিজেই। জানা যাচ্ছে, পরীমনিকে জেরা করতে গিয়ে তিনি নিজেই তাঁর প্রেমে পড়ে গিয়েছেন।

  • Share this:

    #ঢাকা : বাংলাদেশি বিনোদন দুনিয়ায় চর্চার কেন্দ্রে এখন একটাই নাম, পরীমনি (Pori Moni)। নিজের বাড়িতে প্রচুর বেআইনি বিদেশি মদ ও মাদক দ্রব‍্য রাখার অপরাধে সম্প্রতি গ্রেফতার হয়েছেন এই মডেল অভিনেত্রী। আপাতত বনানী থানা হয়েছে তাঁর অস্থায়ী আশ্রয়। এদিকে পরীমনির জন‍্য ফেঁসেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিসের ADC নিজেই। জানা যাচ্ছে, পরীমনিকে জেরা করতে গিয়ে তিনি নিজেই তাঁর প্রেমে পড়ে গিয়েছেন। জেরার নাম করে মডেল অভিনেত্রীর সঙ্গে একান্তে ১৮ ঘন্টা সময় কাটান গোলাম সাকলায়েন নামে গোয়েন্দা পুলিসের ওই ADC। বিষয়টা প্রকাশ‍্যে আসার পরেই তদন্ত থেকে অপসারিত হয়েছেন তিনি।

    জুলাইতেই ঢাকার (Dhaka) অদূরে তুরাগতীরে বহুল আলোচিত বোট ক্লাব মামলার তদন্তের নেতৃত্বে ছিলেন পুলিশ আধিকারিক সাকলায়েন। ব্যবসায়ী নাসিরউদ্দিনের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থা মামলার তদন্ত চলাকালীন নায়িকা পরীমণির সঙ্গে তাঁর সখ্য তৈরি হয়। দেশের এলিট ফোর্স র‌্যাবের হাতে পরীমনি গ্রেপ্তারের পর গোয়েন্দা পুলিশের ঊর্ধ্বতন এই কর্মকর্তার সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতার বিষয়টি চাউর হয়ে যায়। এরই মধ্যে পরীমণি-সাকলায়েনকে নিয়ে একটি সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV footage) ফাঁস হয়েছে। তাঁদের অন্তরঙ্গ সম্পর্ক নিয়ে চলছে নানা গুঞ্জন।

    সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, রাজাবাগ পুলিশ অফিসার্স কলোনির মধুমতি ভবনের গেটের সামনে ১ আগস্ট সকাল ৮ টা ১৫ মিনিটে একটি সাদা গাড়ি এসে থামে। গাড়ি থেকে নামেন লাল টি-শার্ট পরিহিত এক ব্যক্তি। এরপর কোলে একটি কুকুর-সহ সাদা রংয়ের জামা পরে গাড়ি থেকে নামেন নায়িকা পরীমনি। রিসেপশনে থাকা সদস্যদের কাছ থেকে চাবি নিয়ে দু’জন লিফটে প্রবেশ করেন। পরে গাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া হয় একটি ট্রলি ব্যাগ। প্রায় ১৮ ঘণ্টা পর রাত দেড়টার দিকে ওই ভবনের সামনে আবার পরীমনির গাড়ি হাজির হয়। কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে যাওয়ার সময় পরীমনির পরনে ছিল কালো রংয়ের পোশাক।

    পরীমনির গাড়ি চালক নাজির হোসেনও গণমাধ্যমের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন। তিনি জানান, ”সকালে গিয়ে আমি তাঁকে দিয়ে চলে এসেছিলাম, আবার রাতে গিয়ে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছি।” চালক আরও জানিয়েছেন, পরীমণির বনানীর বাড়িতে যখন পুলিশ অফিসার সাকলায়েন যেতেন, তখন তিনি সিভিল ড্রেস (প্যান্ট-শার্ট) পরা থাকতেন। এছাড়া ঢাকার বিনোদন স্পট 'হাতিরঝিল' এলাকায় একই গাড়িতে দু’জন সময় কাটিয়েছেন, ঘোরাঘুরি করেছেন।

    প্রাথমিক তদন্তে সাকলায়েনের সঙ্গে পরীমনির সরকারি ফ্ল্যাটে প্রবেশ এবং দীর্ঘ সময় থাকার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ। আর তারপরই ঢাকা মহানগর পুলিশের (DMP) গোয়েন্দা গুলশন বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার মো. গোলাম সাকলায়েনকে বদলি করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে এডিসি সাকলায়েনকে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারের এক আদেশে ডিবি থেকে ডিএমপির পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্টে (দাঙ্গা দমন বিভাগ, পশ্চিম) বদলি করা হয়।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: