‘সন্তান জন্মানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধর্ষণ স্বামীর, মনে হচ্ছিল আমি একটা মাংসপিণ্ড’, মারাত্মক অভিজ্ঞতা এই মহিলার

‘সন্তান জন্মানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধর্ষণ স্বামীর, মনে হচ্ছিল আমি একটা মাংসপিণ্ড’, মারাত্মক অভিজ্ঞতা এই মহিলার
Representative Image

স্বামী একাধিকবার মারধর করে, ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করে, আত্মহত্যার হুমকিও দেয়৷ ক্রমে সেসব অভ্যাস হয়ে গিয়েছিল ওই মহিলার

  • Share this:

#‎লন্ডন: ‘সন্তান জন্মানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আমাকে ধর্ষণ করেছিল স্বামী৷ আমার পেটে সেলাই ছিল৷ কিন্তু ও আমাকে ছেড়ে দেয়নি৷ বরং দিনের পর দিন আমার ওপর অত্যাচার করে গিয়েছে৷ আমি হাত জোড় করে, মুক্তি চেয়েছি, তবু মুক্তি পাইনি৷ আমার নিজেকে মূল্যহীন মনে হচ্ছিল, মনে হচ্ছিল আমি ওর কাছে একটা মাংসপিণ্ড ছাড়া আর কিছু না৷’ ১২ বছরের বৈবাহিক জীবন থেকে বেরিয়ে আসার পর ইংল্যান্ডের এক মহিলা শোনালেন এই ভয়ানক অভিজ্ঞতার কথা ৷

এমনভাবে সেদিন নিজের স্বামী তাঁকে ধর্ষণ করবেন? এমন নারকীয় অভিজ্ঞতা হবে, আন্দাজ ছিল না তাঁর৷ মাত্র ১৮ বছর বয়সে বিয়ে৷ স্বামীর বয়স তখন ৩২৷ আক্রান্ত মহিলা ভেবেছিলেন, ৩০ বছর বয়সে গিয়ে জীবনে থিতু হবেন৷ কিন্তু আগেই প্রেমে পড়ে বিয়ে করে নেন৷ নতুন বাড়ি, স্বামীর সন্তনা আছে একটি, আগের পক্ষের৷ সংসার শুরু হয়৷ প্রথমটায় স্বামীর এমন ব্যবহারের উদাহরণ খুব একটা পাননি তিনি৷

পরে ধীরে ধীরে সব বুঝতে পারেন৷ স্বামী একাধিকবার মারধর করে, ব্ল্যাকমেল করার চেষ্টা করে, আত্মহত্যার হুমকিও দেয়৷ ক্রমে সেসব অভ্যাস হয়ে গিয়েছিল ওই মহিলার৷

কিন্তু পরে সন্তান সম্ভবা হয়ে পড়েন তিনি৷ তারপর জন্ম দেন একটি শিশুর৷ সেই শিশুর বয়স এখন সাত৷ কিন্তু সাত বছর আগের সেই দিনটির কথা ভাবলেই শিউরে উঠছেন তিনি৷ চোখে জল এলেও বলছেন, ‘অপরাধীকে শাস্তি দিতে আমাকে এই সমস্ত কথা প্রকাশ্যে বলতেই হত৷ এতদিন বাদে এসে তাই আমি বললাম৷ সেদিন আমার শরীরে একাধিক সেলাই৷ সবে সন্তানের জন্ম হয়েছে৷ হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরে বাড়ি আসি৷ আর সেখানেই আমাকে ধর্ষণ করে স্বামী৷ মরণাপন্ন হয়ে আমি থামতে বলি, তাও মুক্তি পাইনি৷ ভয় করেছিল, সেলাই যে নষ্ট হয়ছে, তা চিকিৎসকের কাছে বলব কী করে? আমি তো এই ভয়নাক ঘটনার কথা বলতেই পারব না৷ শেষে বাধ্য হই মুখ খুলতে৷ না হলে আমার জীবন শেষ হয়ে যেত৷

First published: March 10, 2020, 7:50 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर