Sex Toy: মহিলা যাত্রীর ব্যাগ ভর্তি সেক্স টয়, স্ক্যানারে পাওয়া ছবি নিয়ে যা করলেন নিরাপত্তারক্ষী...

সিকিউরিটি গার্ড জানান, ওই মহিলার ব্যাগের ভিতরে একটি চাবুক, একটি ডিলডো এবং অন্যান্য বিভিন্ন যৌন খেলনা তিনি দেখেছিলেন।

সিকিউরিটি গার্ড জানান, ওই মহিলার ব্যাগের ভিতরে একটি চাবুক, একটি ডিলডো এবং অন্যান্য বিভিন্ন যৌন খেলনা তিনি দেখেছিলেন।

  • Share this:

#বেজিং: এক মহিলা যাত্রীর লাগেজে থাকা যৌন খেলনা তথা সেক্স টয়ের ছবি শেয়ার করে এ বার বিপাকে পড়লেন এক সিকিউরিটি গার্ড। জানা গিয়েছে, চিনের গুয়াংঝু মেট্রোর (Guangzhou Metro) এক মহিলা যাত্রীর ব্যাগে ছিল সেক্স টয়। সেই ব্যাগ যখন লাগেজ স্ক্যানারে এক্স-রে হয়, তখন তার ছবি নিয়ে তা একটি গ্রুপ চ্যাটে শেয়ার করেন ওই মেট্রো স্টেশনের এক সিকিউরিটি গার্ড।

৭মে, একজন Weibo ব্যবহারকারী সেই গ্রুপ চ্যাটের স্ক্রিনশট পোস্ট করেন, যে স্ক্রিনশটে রয়েছে ওই মহিলা যাত্রীর ব্যাগের এক্স-রে স্ক্যানের পোস্ট করা ছবিটি। যা কি না শেয়ার করেছেন ওই সিকিউরিটি গার্ড। এবিষয়ে গুয়াংঝু-ফোশন সাবওয়েতে (Guangzhou-Foshan subway) কর্মরত ওই সিকিউরিটি গার্ড জানান, ওই মহিলার ব্যাগের ভিতরে একটি চাবুক, একটি ডিলডো এবং অন্যান্য বিভিন্ন যৌন খেলনা তিনি দেখেছিলেন।

প্রতিবেদন অনুসারে, যে ব্লগার ওই সিকিউরিটি গার্ডের গ্রুপ চ্যাটের স্ক্রিনশটটি শেয়ার করেন, তিনি পুলিশ এবং মেট্রো স্টেশনে ওই গার্ডের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করেন। গার্ডের এই আচরণ প্রকাশ্যে আসার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন নেটিজেনরা। তাঁরা জানতে চান, কী ভাবে একজন সিকিউরিটি গার্ড একজন মহিলার গোপনীয়তা লঙ্ঘন করতে পারেন এবং কোনও গ্রুপ চ্যাটে এই ধরনের ছবি পোস্ট করতে পারেন।

একজন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীর কথায়, “এইরকম অভদ্র-আচরকারী কেউ কী ভাবে সিকিউরিটি গার্ড হিসাবে যোগ্য হতে পারে? যাত্রীদের ব্যক্তিগত জিনিসপত্রের ছবি তোলার এবং অনুপযুক্ত মন্তব্য করার অধিকার আপনাকে কে দিয়েছে? ” যদিও বেশ কিছু যাত্রী এই সেক্স টয়গুলিকে ‘অবজ্ঞাপূর্ণ’ বলে মন্তব্য করেছেন।

যদিও ওই ব্লগারের এই স্ক্রিনশট পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পরেই ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন সিকিউরিটি গার্ড। তাঁর কথায়, তিনি কোনও এক বন্ধুকে এই ছবিটি পাঠিয়েছিলেন। তাঁর অজান্তেই সেই বন্ধু এই ছবিটি গ্রুপে শেয়ার করেন। গুয়াংঝু মেট্রো ওই গার্ডকে বরখাস্ত করে ৭মে তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

Published by:Shubhagata Dey
First published: