করোনার পরে এবার চিনে দেখা দিল প্লেগ, লেভেল-৩ সতর্কতা জারি

করোনার পরে এবার চিনে দেখা দিল প্লেগ, লেভেল-৩ সতর্কতা জারি
২০২০-র শেষ পর্যন্ত এই ওয়ার্নিং জারি থাকবে

২০২০-র শেষ পর্যন্ত এই ওয়ার্নিং জারি থাকবে

  • Share this:

    #বেজিং: বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এখনও কোনও ভাবেই রাশ টানা যাচ্ছে না আক্রান্তের সংখ্যায়। এর মধ্যেই চিনে হাজির নতুন আতঙ্ক। ছড়াতে পারে প্লেগ। জারি করা হয়েছে লেভেল-৩ ওয়ার্নিং।

    রবিবার, উত্তর চিনের একটি শহরে দু’জন বিউবনিক প্লেগে (Bubonic plague) আক্রান্ত হয়েছেন বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। তার পরেই বিশেষ সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে চিনে। এরপরই বায়ানুর নামের ওই জায়গায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। চিনের মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, এখনও দু’জন এই প্লেগে আক্রান্ত হয়েছেন ৷ কিন্তু আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে কারণ মানুষ থেকে মানুষে এই রোগ ছড়াতে পারে। তাই শহরে ওয়ার্নিং জারি করা হয়েছে।

    বায়ানুরের একটি হাসপাতালে শনিবার ওই দু’জনকে ভর্তি করা হয়। তারপর তাঁদের টেস্ট করা হয়। ল্যাব টেস্ট রেজাল্ট ইতিমধ্যেই প্লেগের উপস্থিতি নিশ্চিত করেছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজনের বয়স ২৭ বছর ও অন্যজন তাঁরই ভাই, যার বয়স ১৭ বছর। এদের দু’জনকে দুটি আলাদা হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা চালানো হচ্ছে। স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ ঘোষণা করেছে যে, ২০২০-র শেষ পর্যন্ত এই ওয়ার্নিং জারি থাকবে। বর্তমানে এই প্লেগের মহামারীর আকার ধারণ করার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই মানুষকে সতর্ক হতে হবে। অসুস্থ বোধ করলেই হাসপাতালে যেতে হবে। এছাড়া সাধারণ মানুষকে ইঁদুরের মাংস খেতে নিষেধ করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'বর্তমানে শহরে প্লেগ রোগ মহামারির আকার নেওয়ার মতো আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে আত্মসুরক্ষায় তৎপর এবং সচেতন থাকতে হবে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিষয়ে কোনও অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে তা স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্র বা সংশ্লিষ্ট সরকারি অফিসে জানাতে হবে।'


    জানা গিয়েছে, দ্বিতীয় জন ইঁদুরের মাংস খেয়েছিল। আর তার জেরেই এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটে।

    বিউবনিক প্লেগ একটি ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগ। ঠিক সময়ে চিকিৎসা না হলে, খুব কম সময়ের মধ্যে মানুষের মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর