• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • ঢাকা গুলশন হামলার মাস্টার মাইন্ড চিহ্নিত, গ্রেফতার ৪

ঢাকা গুলশন হামলার মাস্টার মাইন্ড চিহ্নিত, গ্রেফতার ৪

ঢাকার হোলি আর্টিজেন রেস্তোরাঁয় হামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য ও তাঁর পরিচারককে গ্রেফতার করল পুলিশ ৷

ঢাকার হোলি আর্টিজেন রেস্তোরাঁয় হামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য ও তাঁর পরিচারককে গ্রেফতার করল পুলিশ ৷

ঢাকার হোলি আর্টিজেন রেস্তোরাঁয় হামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য ও তাঁর পরিচারককে গ্রেফতার করল পুলিশ ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #ঢাকা: ঢাকার হোলি আর্টিজেন রেস্তোরাঁয় হামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য, তাঁর ভাগ্নে ও আবাসন ম্যানেজারকে গ্রেফতার করল পুলিশ ৷ একইসঙ্গে ঢাকা থেকেই জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগে নুরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তিকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

    নাশকতার আতুঁড়ঘর বিশ্ববিদ্যালয়। গুলশন হামলায় জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার ঢাকার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর। ঢাকায় সন্ত্রাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলরের নাম জড়ানোয় তোলপাড় বাংলাদেশের শিক্ষামহল। বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অংশই সন্ত্রাসের সঙ্গে জড়িত বলে বারেবারে অভিযোগ উঠেছে।  এবার জঙ্গি নাশকতায় প্রো-ভাইস চ্যান্সেলরের স্তরের শিক্ষাবিদের নাম জড়ানোয় তা আরও জোরালো হল।

    স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান তাঁর বিবৃতিতে জানান, ‘সরকার গুলশন হামলার মাস্টার মাইন্ড-কে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে ৷ হামলায় যুক্ত থাকার অভিযোগে মোট চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে ৷’

    গত ১ জুলাই ঢাকার অভিজাত গুলশন এলাকার এক রেস্তোরাঁয় হামলা চালায় আইএস জঙ্গিরা ৷ বছরের ১৯-এর ভারতীয় মেয়ে তারিশি জৈন সহ ২০ জন পণবন্দিকে কুপিয়ে খুন করে জঙ্গিরা ৷ জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে মৃত্যু হয় বাংলাদেশ গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলাম ও বনানীর ওসি সালাউদ্দিনের।

    আরও পড়ুন:

    গুলশনে হামলা চালানো এক জঙ্গি সেদেশের শাসক দলের নেতার পুত্র!

    তদন্তকারী অফিসাররা জানিয়েছেন, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডঃ গিয়াসুদ্দিন আহশানের বাড়িতে বসেই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারীতে হামলার পরিকল্পনা করে জঙ্গিরা। এমনকী, ওই বাড়িতে বসেই হামলার যাবতীয় প্রস্তুতি ও প্রশিক্ষণ নেয় তারা।

    এই অভিযোগে ঢাকার ভাটারা এলাকা এক বাড়ি থেকে শনিবার বিকালে ড. গিয়াস উদ্দিন আহসান, তার ভাইপো আলম চৌধুরী এবং ওই বাড়ির কেয়ারটেকার মেহবুর রহমান তুহিনকে ডিএমপি'র কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট গ্রেফতার করেছে ।

    আরও পড়ুন:

    ঢাকায় জঙ্গি হানায় মৃত ১ ভারতীয়, কোরান না বলতে পেরে জঙ্গির হাতে নিকেশ পণবন্দিরা

    বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, জঙ্গিদের বাড়ি খুঁজে আশ্রয় দিয়েছিলেন অধ্যাপক গিয়াসুদ্দিন ৷ জঙ্গিদের থেকে মান্থলি ২২ হাজার টাকা বাড়ি ভাড়া বাবদ ৪০ হাজার টাকা অগ্রিম হিসেবে পেয়েছিলেন তিনি ৷

    vlcsnap-2016-07-03-20h04m45s170

    ঢাকায় হামলার প্রস্তুতি ও পরিকল্পনা ওই বাড়ি থেকেই নেয় ১০ জন জঙ্গি ৷ এদের মধ্যে পাঁচজন আইএস কম্যান্ডো গুলশনের হোলি আর্টিজনে হামলা চালায় ৷

    ডিএমপির ডিসি (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান জানিয়েছেন, বাড়ি মালিক জিইউ আহসান তার বাড়ির ভাড়াটিয়াদের কোনো তথ্য সংশ্লিষ্ট থানায় সরবারহ করেননি। উপরন্তু জেনে শুনেই ওই বাসাই জঙ্গিদের ঠাঁই দিয়েছিলেন বলে সন্দেহ তদন্তকারীদের ৷ গুলশানে অপারেশন শুরু হওয়ার পরই পরিকল্পনা মতো বাকি সহযোগী জঙ্গিরা দ্রুত ওই বাড়ি ছেড়ে গা ঢাকা দেয় ৷

    দেখুন:

    ১৩ মিনিটের অপারেশন থান্ডারবোল্টে কীভাবে জঙ্গিমুক্ত ঢাকার হোলি আর্টিজেন, দেখুন ভিডিও

    অন্যদিকে, ঢাকা প্রশাসন সূত্রে খবর, পশ্চিম শেওড়াপাড়ায় আরেকটি বাড়ির হদিশ পাওয়া গিয়েছে, যেখানে গুলশন হামলার অস্ত্র লুকিয়ে রাখা হয়েছিল ৷ পুলিশের অনুমান, হামলার আগে ওই বাড়িতে চলত অস্ত্র তৈরি ৷ বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে হাতে তৈরি গ্রেনেড, জঙ্গিদের কালো রঙের পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জাম ৷ বাড়ির মালিক নুরুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

    তদন্তকারীদের অনুমান, জঙ্গিরা দু’দলে ভাগ হয়ে ঢাকায় বাড়ি ভাড়া নিয়েছিল ৷ একদল ছিল নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্যের বাড়িতে, অন্য দল যায় নুরুল ইসলামের বাড়িতে ৷

    আরও পড়ুন:

    এলিট স্কুলের ভালো ছাত্র, ভালো পরিবার থেকে আসা ঢাকা রেস্তোরাঁ হামলাকারীরা !

    ঢাকায় জঙ্গি হামলার মদত দেওয়ার অভিযোগে অধ্যাপক ডঃ গিয়াসুদ্দিন আহশান সহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে। আদালতের নির্দেশে তাদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করবে মামলার তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

    First published: