অ্যান্টার্কটিকা রহস্য! অর্ধশতাব্দী আগে হারানো মানিব্যাগ ফিরল নৌসেনার ঘরে

অ্যান্টার্কটিকা রহস্য! অর্ধশতাব্দী আগে হারানো মানিব্যাগ ফিরল নৌসেনার ঘরে
প্রতীকী ছবি

৫৩ বছর আগে অ্যান্টার্কটিকায় নিজের মানিব্যাগ হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। সেটিই অদ্ভুত ভাবে এত বছর পর ফিরে পেয়েছেন তিনি। ভাবলেই অবাক হয়ে যেতে হয় যে, এত বছর পর কী ভাবে তিনি তা ফিরে পেলেন গল্পটাও কিন্তু দারুণ আকর্ষণীয়।

  • Share this:

    #ওয়াশিংটন: মার্কিন নৌসেনার আবহাওয়াবিদ হিসেবে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করেছেন তিনি। এখন তিনি প্রাক্তন। ৫৩ বছর আগে অ্যান্টার্কটিকায় নিজের মানিব্যাগ হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। সেটিই অদ্ভুত ভাবে এত বছর পর ফিরে পেয়েছেন তিনি। ভাবলেই অবাক হয়ে যেতে হয় যে, এত বছর পর কী ভাবে তিনি তা ফিরে পেলেন গল্পটাও কিন্তু দারুণ আকর্ষণীয়।

    ৯১ বছর বয়সী পল গ্রিশাম নামের ওই সেনা অফিসার নিজেই ভুলে গিয়েছিলেন মানিব্যাগ হারিয়ে যাওয়ার কথা। সম্প্রতি ই-মেলের মাধ্যমে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন এক ব্যক্তি। প্রথমে এমন ই-মেল পেয়ে মনেই করতে পারেননি এমন কোনও ঘটনার কথা। ২০১৪ সালে রস দ্বীপে বিজ্ঞানসম্মত ভাবে ভাঙচুর চালানোর সময়ই পলের মানিব্যাগটি খুঁজে পাওয়া যায়। সেই এলাকায় ১৯৬৭-র অক্টোবর থেকে ১৯৬৮-র নভেম্বর পর্যন্ত আবহাওয়াবিদ হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি।

    একটি লকারের পিছনে একটি কৌটোর ভিতর মানিব্যাগটি রাখা ছিল। নৌসেনার পরিচয়পত্র, তাঁর ড্রাইভিং লাইসেন্স, একটি বিয়ার কেনার রেশন কার্ড এবং একটি কাগজ ছিল সেই ব্যাগে। কাগজে লেখা ছিল, রাসায়নিক হামলা হলে কী করতে হবে সেনাকে তার নিয়মাবলী। গ্রিশাম বলেছেন, এমন ভাবে অর্ধশতাব্দী পর ফের এই ব্যাগ ফিরে পারেব তা কোনওদিন ভাবেননি তিনি। ব্যাগটি ফিরিয়ে দেওয়া ওই ব্যক্তি অত্যন্ত বিনয়ী বলেই মনে করছেন তিনি।


    অ্যান্টার্কটিকার ওই দ্বীপে খনন চালানো দলের এক বিনয়ী পরে নৌসেনার পরিচয় বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করে গ্রিশামের ঠিকানা বের করে। ই-মেলের মাধ্যমে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। নাভাল ওয়েদার সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে কথা বলে গ্রিশামকে খুঁজে পান তাঁরা। পরে মেয়ের সঙ্গে সময় ঠিক করে গ্রিশামের হাতে ওই মানিব্যাগটি তুলে দেওয়া হয়।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: