Man-eater Crocodile| ৮০ জনের প্রাণ নিয়েছে রাক্ষুসে কুমির 'ওসামা'! ভয়ে কাঁপছে এই গ্রাম...

মানুষখেকো কুমিরটির নাম ওসামা বিন লাদেন।

Man-eater Crocodile| একজন দুজন নয়, অন্তত ৮০ জন গ্রামবাসী তার পেটে গিয়েছে। ১৬ ফুট লম্বা এক জঙ্গি কুমিরটি অবশেষে ধরা পড়েছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: রাক্ষুসে কুমির,  নাম ওসামা বিন লাদেন। গ্রামবাসীরাই তার এমন নাম দিয়েছে তার জঙ্গি স্বভাবের জন্য। হ্যাঁ, শুনতে অবাক করা হলেও সত্যি, আফ্রিকার পূর্বাঞ্চলের দেশ উগান্ডার ভিক্টোরিয়া লেকের মানুষখেকো কুমিরের নাম ওসামা। তার বয়স ৭৫। একজন দুজন নয়, অন্তত ৮০ জন গ্রামবাসী তার পেটে গিয়েছে। ১৬ ফুট লম্বা এক জঙ্গি কুমিরটি অবশেষে ধরা পড়েছে।

    ১৯৯১ থেকে ২০০৫ রীতিমতো সন্ত্রাস চালায় ওসামা । তার মূল লক্ষ্য ছিল ছোট ছোট শিশুরা। লুগানগা নামক একটি গ্রামের ১/১০ ভাগ লোকই এই কুমিরের পেটে গিয়েছে বলে বলেন গ্রামবাসীরা। এমনকি মৎস্যজীবীদের ট্রলারে উঠে-পড়ে ও হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে সে। পরে সেই সব মৎস্যজীবীর দেহাবশেষ কিরে এসেছে উপকূলে।

    দ্যা সিডনি মর্নিং হেরল্ড নামক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পল নামক এক ব্যক্তি এই কুমিরের বিস্তারিত বর্ণনা দেন। এ বিষয়ে তাঁর প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা তিনি জানান সংবাদকর্মীদের। তাদের মাছ ধরার ট্রলারের উঠে পড়ে লাদেন। পলের ভাই পিটারকে ছিনিয়ে নিয়ে গিয়েছিল এই ঘাতক কুমিরটি। সোজা নৌকায় উঠে পড়ে পিটারের পা ধরে হ্যাঁচকা টান মারে কুমিরটি। ট্রলার না ছাড়তে চেয়ে মরিয়া পিটার যুদ্ধও চালায়। লাদেন পিটারের পা ভেঙে দিয়েছিল। একটা সময় পিটারের নড়াচড়ার শক্তি ছিল না। তখন তাঁকে টেনে নিয়ে যায় এই কুমিরটি। পরে তাঁর দেহাবশেষ মেলে।

    আপাতত উগান্ডা ক্রস লিমিটেড নামক সংস্থা লাদেনকে কিনে নিয়েছে। এই সংস্থাটি কুমিরের চামড়া দিয়ে হাতব্যাগ বানায়। ইতালি এবং দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে সেই ব্যাগের চাহিদা প্রচুর। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের পক্ষে যারা, তারা এ ঘটনার সমালোচনা করছেন। কিন্তু এ কথাও ঠিক,  লুগানগার বাসিন্দারা হাঁফ ছেড়ে বাঁচছেন।

    Published by:Arka Deb
    First published: