ন্য়ায়বিচার পেলেন বাংলাদেশের মুক্তমনা ব্লগার অভিজিৎ, মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত পাঁচ

ন্য়ায়বিচার পেলেন বাংলাদেশের মুক্তমনা ব্লগার অভিজিৎ, মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত পাঁচ
মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত অভিজিৎ রায়ের খুনীরা।

২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারির ঘটনা। ঢাকার অমর একুশে বইমেলা থেকে ফেরার সময় কুপিয়ে খুন করা হয় অভিজিৎ রায়কে।

  • Share this:

    #ঢাকা: মৃত্যুর ৬ বছর পর ন্যায়বিচার পেলেন বাংলাদেশের মুক্তমনা ব্লগার অভিজিৎ রায়। তাঁর হত্যায় জড়িত থাকার অপরাধে পাঁচজনকে মৃত্যুদণ্ড দিল বাংলাদেশের আদালত। মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতরা বলেন, মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক, আকরাম হোসেন, আবু সিদ্দিকি, মোজাম্মেল হোসেন, আরাফাত রহমান। এছাড়াও সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ আদালত যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন শফিউর রহমান ফারাবিকে। এরা প্রত্যেকেই জঙ্গি সংগঠন আনসারউল্লাহ বাংলা দলের সদস্য ছিল।

    ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারির ঘটনা। ঢাকার অমর একুশে বইমেলা থেকে ফেরার সময় মৌলবাদীরা টিএসসি এলাকায় অভিজিৎকে ঘিরে ধরে। কুপিয়ে খুন করা হয় তাঁকে। অভিজিত মুক্তচিন্তা ও যুক্তিবাদের পক্ষে ব্লগ লিখতেন, এই ছিল তাঁর 'অপরাধ'।

    দুষ্কৃতীরা অভিজিৎকে খুন করেই ক্ষান্ত হয়নি। হামলা চালানো হয় অভিজিতের স্ত্রী রফিদা আহমেদের উপরেও। শাহবাগ থানায় এফআইআর করেন অভিজিতের বাবা।


    সরকারি আইনজীবীদের মতে গোটা ঘটনার ব্লু প্রিন্ট তৈর্ করেছিলেন সৈয়দ জিয়াউল হক। অভিজিৎ ছাড়াও আরও বহু সমাজকর্মী, মুক্তমনা মানুষকে খুন করেছে সৈয়দের সংস্থা আনসারউল্লাহ বাংলা।

    Published by:Arka Deb
    First published: