Home /News /international /
Russia Ukraine War: এই শিশুটিকে চিনে রাখুন, ওর সাহসিকতা আর জীবনযুদ্ধ অবাক করেছে গোটা বিশ্বকে!

Russia Ukraine War: এই শিশুটিকে চিনে রাখুন, ওর সাহসিকতা আর জীবনযুদ্ধ অবাক করেছে গোটা বিশ্বকে!

কুর্নিশ জানাচ্ছে সকলে

কুর্নিশ জানাচ্ছে সকলে

Russia Ukraine War: ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে শিশুটির ছবি ভাইরাল হয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বলা হয় যুদ্ধ দুই দেশের মধ্যে হয় না, উভয় দেশেরই হাজার হাজার মানুষের জীবন-মৃত্যুর মধ্যে দিয়ে যুদ্ধ নিজের অস্তিত্ব জানান দিয়ে যায়। আমরা ভাবতেও শিউরে উঠি যে নিজেদের বাবা-মাকে ছেড়ে হঠাৎই একদিন অনেক দূরে অচেনা জায়গায় চলে যেতে হবে। কিন্তু ১১ বছর বয়সী, ইউক্রেনের এই শিশুকে তার বাবা-মায়ের কাছ থেকে ১০০০ কিলোমিটার দূরে একাই পালিয়ে যেতে বাধ্য হতে হয়েছে। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর সারা বিশ্বজুড়েই মানুষ এই নিষ্পাপ শিশুটির সাহসিকতার প্রশংসা করছেন। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে শিশুটির ছবি ভাইরাল হয়েছে।

ইউক্রেন এবং রাশিয়ার যুদ্ধ এই ছোট্ট শিশুটির মনকে এতটাই শক্তিশালী করেছে যে সে একাই ইউক্রেন থেকে স্লোভাকিয়া পর্যন্ত ভ্রমণ করেছে। এ সময়ে ছোট্ট ওই শিশুটির সঙ্গী তার মায়ের দেওয়া চিরকুট এবং বেঁচে থাকার অপরিসীম সাহস ও ইচ্ছা। তথ্য অনুযায়ী, শিশুটি দক্ষিণ-পূর্ব ইউক্রেনের জাপোরিঝজিয়া শহরের বাসিন্দা।

আরও পড়ুন:  'ওঁরাই ঠিক করুন, কী করবেন', স্পষ্ট বার্তা দিলীপ ঘোষের! তুমুল আলোড়ন বিজেপি-তে

মায়ের চিঠি হাতে আর পিঠে ব্যাগ

যে জায়গা থেকে শিশুটি এসেছে সেটি ইউরোপের সবচেয়ে বড় পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং বর্তমানে যুদ্ধের বাজারে সেটি রাশিয়ার দখলে। এই শহর থেকে মানুষ এখন অন্য শহরে পাড়ি জমাচ্ছেন। ওই শিশুটিকেও তার মা একটি ব্যাগপ্যাক দিয়ে হাতে একটি ফোন নম্বর ধরিয়ে দিয়েছিলেন। সম্প্রতি শিশুটির এই দুঃসাহসিক গল্প স্লোভাকিয়ার মন্ত্রণালয় মারফত শেয়ার করা হয়েছে। তারা জানিয়েছে- '১১ বছরের ছেলেটি ইউক্রেন থেকে স্লোভাকিয়ান সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসেছে। তার হাতে একটি প্লাস্টিকের ব্যাগ, পাসপোর্টের একটি চিট এবং ফোন নম্বর ছাড়া আর কিছুই ছিল না। তার বাবা-মা বর্তমানে ইউক্রেনে আছেন এবং বাচ্চাটি একাই এখানে এসেছে।

আরও পড়ুন: সাতসকালে দরজার সামনে হঠাৎ ফোঁস-ফোঁস শব্দ, যা দেখা গেল, হাড়হিম দৃশ্য ধূপগুড়িতে!

শিশুর সাহসিকতা সকলের মন জয় করে নিয়েছে

ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে শিশুটির নির্ভীকতা ও সরল হাসির পাশাপাশি সংকল্পের প্রশংসা করা হয়েছে এবং অনেকে তাকেই যুদ্ধের প্রকৃত নায়ক হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। শিশুটির বাবা-মায়ের সঙ্গেও সম্প্রতি যোগাযোগ করা হয়েছে। তার সাহসিকতা হয় তো মানুষের মন জয় করে নিচ্ছে কিন্তু তার সঙ্গে একটা প্রশ্নও রেখে যাচ্ছে– আর কতদিন ধরে এই নিষ্পাপ হাসি ছিনিয়ে নেওয়া হবে?

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Kids, Russia Ukraine War

পরবর্তী খবর