Home /News /india-china /
চিন আগ্রাসন দেখালে, আমরাও আগ্রাসী হতে পারি: ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান আরকেএস ভাদোরিয়া

চিন আগ্রাসন দেখালে, আমরাও আগ্রাসী হতে পারি: ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান আরকেএস ভাদোরিয়া

If China can get aggressive in Ladakh then we can too says Indian Air Force chief RKS Bhadauria

If China can get aggressive in Ladakh then we can too says Indian Air Force chief RKS Bhadauria

এলএসি-তে বিরাট সংখ্যায় চিনা সেনা মোতায়েন রয়েছে৷ তাদের কাছে রয়েছে বহু র‍্যাডার, সারফেস টু এয়ার মিসাইল ও সারফেস টু সারফেস মিসাইল৷ ভাদোরিয়া জানিয়ে দিয়েছেন যে, ভারত প্রস্তুত আছে৷ তাঁর বক্তব্য, "চিনা সৈন্য শক্তি বাড়িয়েছে, আমরাও যাবতীয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে রেখেছি৷

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #যোধপুর: শনিবার থেকে রাফাল যুদ্ধবিমানে ভারত-ফ্রান্সের যৌথ মহড়া শুরু হল৷ ভারতীয় বিমান বাহিনীর যোধপুর বিমান ঘাঁটিতে পাঁচ দিন ধরে চলবে 'ডেজার্ট নাইট ২১'৷

    এদিন সাংবাদিক বৈঠক করেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর প্রধান চিফ অফ এয়ার স্টাফ, এয়ার চিফ মার্শাল আরকেএস ভাদোরিয়া৷ এদিন তাঁর কাছে দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে চলা পূর্ব লাদাখের ভারত-চিন অশান্তি(India-China Standoff) প্রসঙ্গে লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) ভারতের অবস্থান জানতে চাওয়া হয়েছিল৷ ভাদোরিয়া বলেন, "চিন আগ্রাসন দেখালে, আমরাও আগ্রাসী হতে পারি"৷

    ভাদোরিয়া এদিন বলছেন যে, এলএসি-তে বিরাট সংখ্যায় চিনা সেনা মোতায়েন রয়েছে৷ তাদের কাছে রয়েছে বহু র‍্যাডার, সারফেস টু এয়ার মিসাইল ও সারফেস টু সারফেস মিসাইল৷ ভাদোরিয়া জানিয়ে দিয়েছেন যে, ভারত প্রস্তুত আছে৷ তাঁর বক্তব্য, "চিনা সৈন্য শক্তি বাড়িয়েছে, আমরাও যাবতীয় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে রেখেছি৷" গত সপ্তাহে ভাদোরিয়া জানিয়ে ছিলেন যে, আন্তর্জাতিক আঙিনায় ভারত-চিন ভয়ঙ্কর বৈরিতা চিনের জন্য ভাল নয়৷

    অন্যদিকে ভাদোরিয়া রাফালের প্রসঙ্গে জানিয়েছেন যে, ভারত ১১৪টি মাল্টিরোল ফাইটার এয়ারক্রাফ্ট কিনবে, তার মধ্যে রাফাল অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী৷ যোধপুরে ফ্রান্সের আরও কিছু রাফাল রয়েছে ট্রেনিংয়ের জন্য৷ ভাদোরিয়া মনে করছেন ২০২৩-এর মধ্যে ভারত সবক'টি রাফাল পেয়ে যাবে৷ প্রায় ৪ বছর আগে ফ্রান্স সরকারের সঙ্গে ভারতের ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি হয় ৫৯ হাজার কোটি টাকায়৷ চুক্তি মতোই ধাপে ধাপে আসছে রাফাল যুদ্ববিমানগুলি৷

    ভাদোরিয়া আরও জানিয়েছেন যে, ভারত অ্যাডভান্সড মিডিয়াম কমব্যাট এয়ারক্রাফ্ট (এএমসিএ) প্রকল্পের আওতায় ডিফেন্স রিসার্চ ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ডিআরডিও) সঙ্গে কাজ করছে ফিফথ-জেনারেশন যুদ্ধবিমানের ওপর, ভবিষ্যতে সিক্সথ-জেনারেশন নিয়েও কাজ করার ইচ্ছা আছে ভারতের৷ তবে এখন ফোকাসে ফিফথ-জেনারেশন যুদ্ধবিমান৷

    Published by:Subhapam Saha
    First published:

    Tags: Indian Air Force

    পরবর্তী খবর