Raveena Tandon: বাদুড়, পেঁচা, বাঁদর-সহ অসংখ্য পশুর আশ্রয়, রবিনার ‘নীলায়া’ যেন ‘ডক্টর ডুলিটলের বাড়ি’

রবিনা টন্ডন, ছবি-ফেসবুক

তাঁর বাসা ‘নীলায়া’ এখন ‘ডক্টর ডুলিটল-এর বাড়ি’ ৷ লিখেছেন রবিনা টন্ডন (Raveena Tandon) ৷

  • Share this:

    মুম্বই : তাঁর বাসা ‘নীলায়া’ এখন ‘ডক্টর ডুলিটল-এর বাড়ি’ ৷ লিখেছেন রবিনা টন্ডন (Raveena Tandon) ৷ কারণ, সেখানে এখন পশুপাখির মেলা ৷ তারকার বাড়িতে ঠাঁই পেয়েছে ৩ টি পেঁচা, একটি বাঁদর, একটি বাদুড়ছানা, অসংখ্য পায়রা, টিয়াপাখি এবং বিড়ালের ছানার দল ৷ প্রসঙ্গত, ‘ডক্টর ডুলিটল’ চরিত্রটি হলিউডের ৷ একাধিক ছবির কেন্দ্রে থাকা কাল্পনিক চরিত্রটি চিত্রনাট্য অনুযায়ী পশুপাখিদের ভাষা বুঝতে পারে ৷ তাদের সঙ্গে বাক্যালাপও চলে তাঁর ৷

    বাস্তবের ‘ডুলিটল’ রবীনা জানিয়েছেন তিনি অতিথিদের কীভাবে পেয়েছেন ৷ বলেছেন, পেঁচারা উড়ে এসেছিল তাঁর বাড়িতে ৷ বাঁদরটিকে দেখতে পান বাগানের গাছে ৷ সেটির গলায় কলার থেকে ঝুলছিল বকলস ৷ রবিনার ধারণা, অসহায় প্রাণীটিকে কেউ অন্যায়ভাবে বন্দি করে রেখেছিল ৷ কোনও মতে পালিয়ে এসেছে ৷ বাদুড়ছানাটি কোনওভাবে তার বাসা থেকে পড়ে গিয়েছিল রবিনাদের টেরেসে ৷ পায়রা, টিয়ার ঝাঁক আশ্রয় নিয়েছে তাঁদের বাড়ি ও বাগানে বিভিন্ন অংশে ৷ বিড়ালের ছানারাও ওই বাড়িতে খুঁজে পেয়েছে নিরাপদ আশ্রয় ৷

    তবে বন্যপ্রাণগুলিকে পাঠানো হয়েছে নিরাপদ নিশ্চিন্ত আশ্রয়ে ৷ তাদের পুনর্বাসনের বিষয়ে তাঁকে সাহায্য করার জন্য রবিনা ধন্যবাদ জানিয়েছেন ‘পেটা ইন্ডিয়া’-র কর্মীদের ৷ পেঁচা তিনটি অবশ্য রাতের অন্ধকারে নিজেরাই উড়ে গিয়েছে ৷ বাঁদরকে পাঠানো হয়েছে জঙ্গলের মধ্যে নিরাপদ আশ্রয়ে ৷ বাদুড়-সহ বাকিদের দত্তক নিয়েছেন পশুপ্রেমীরা ৷ ফেসবুকে রবীনা যে ছবি দিয়েছেন, সেখানে আছে কুকুরছানা এবং খরগোশের ছবিও ৷

    বলিউডের ‘মস্ত গার্ল’ রবিনা অনেক দিকেই ছকভাঙা অন্যরকম ৷ ১৯৯৫ সালে তাঁর এক আত্মীয়া দুই কন্যাসন্তানকে রেখে প্রয়াত হন ৷ মাতৃহীন দুই কন্যা, পূজা ও ছায়াকে দত্তক নেন ২১ বছর বয়সি রবিনা। বলেই দিয়েছিলেন, তাঁকে যিনি বিয়ে করবেন, তাঁকে রবিনার দুই পালিত কন্যা ও পোষ্য কুকুরদের নিয়েই বিয়ে করতে হবে। তাদের ছাড়া তিনি শ্বশুরবাড়িতে পা রাখবেন না।

    সেই শর্তেই ফিল্ম ডিস্ট্রিবিউটর অনিল থাড়ানিকে ২০০৪-এ বিয়ে করেন রবিনা ৷ বিয়ের আগে তাঁদের প্রেমপর্ব সংক্ষিপ্ত, মাত্র ১ বছরের ৷ ২০০৫ সালে জন্ম তাঁদের মেয়ে ‘রাশা’ এবং ২০০৮ সালে জন্ম ছেলে, রণবীরবর্ধনের। দত্তককন্যাদের বিয়ে দিয়ে ইতিমধ্যেই শাশুড়ি হয়ে গিয়েছেন রবিনা ৷ তাঁর বড় মেয়ে পূজার বিয়ে হয়েছে ২০১১ সালে ৷ ছোট মেয়ে ছায়ার বিয়ে রবিনা দেন ২০১৬-য় ৷

    কিছু দিন আগে রবিনা ছবি দিয়েছিলেন বান্ধবগড় জাতীয় উদ্যান ভ্রমণের ৷ জঙ্গলের গভীরে সপরিবার রবিনার সঙ্গে দেখা হয় খোদ রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের ৷ সামাজিক মাধ্যমে রবিনার শেয়ার করা ছবি ও ভিডিয়ো ঘিরে উচ্ছ্বসিত ছিলেন নেটিজেনরা ৷ অভিনেত্রীকে তাঁরা বাহবা জানিয়েছেন তাঁর সাম্প্রতিক পোস্টেও ৷ বন্যপ্রাণের প্রতি তাঁর ভালবাসায় মুগ্ধ নেটিজেনরা ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: