Rahul Arunoday Banerjee : সঙ্গে চাই প্রিয়াঙ্কাকেও ! ‘নির্বোধ’ আলোকচিত্রীর সঙ্গে আর কাজ করতে চান না ক্ষুব্ধ রাহুল

রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়, ছবি-ফেসবুক

কাজের দুনিয়ায় তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হন কমবেশি সব অভিনেতাই ৷ ব্যতিক্রম নন রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়ও (Rahul Arunoday Banerjee) ৷ তাঁর সাম্প্রতিক এক কটু অভিজ্ঞতা অভিনেতা শেয়ার করেছেন ফেসবুকে ৷

  • Share this:

    কলকাতা : কাজের দুনিয়ায় তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হন কমবেশি সব অভিনেতাই ৷ ব্যতিক্রম নন রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়ও (Rahul Arunoday Banerjee) ৷ তাঁর সাম্প্রতিক এক কটু অভিজ্ঞতা অভিনেতা শেয়ার করেছেন ফেসবুকে ৷

    রাহুলের ক্ষোভের নিশানায় আলোকচিত্রী শান্তনু কর্মকার ৷ তাঁর সঙ্গে রাহুলের আলাপ রাজর্ষি দে-এর ছবির জন্য পোস্টার শ্যুট করতে গিয়ে ৷ রাহুলের দাবি, তাঁর ফোটোশ্যুট করার জন্য আগ্রহ দেখান শান্তনু ৷

    কাজের প্রয়োজন ছাড়া রাহুল ফোটোশ্যুট পছন্দ করেন না বলে জানিয়েছেন ৷ কিন্তু এখন তিনি ইনস্টাগ্রামেও আছেন ৷ সে কথা ভেবেই রাজি হয়ে যান আলোকচিত্রী কথায় ৷ রাহুলের মনে হয়, তাঁর নিজের কিছু ছবি তোলা হবে ৷ আবার ওই তরুণেরও উপকার হবে ৷ এই পর্যন্ত সবই ঠিক ছিল ৷

    সমস্যা দেখা দেয় এর পরই ৷ ফেসবুকে রাহুল লিখেছেন, তাঁকে শুক্রবার ফোন করেন ওই আলোকচিত্রী ৷ জিজ্ঞাসা করেন, ‘‘দাদা, প্রিয়াঙ্কাদিকে পাওয়া যাবে?’’ তাঁর ইচ্ছে, তা হলে শাড়ি পরা প্রিয়াঙ্কাকে নিয়ে ফোটোশ্যুট করবেন ৷

    প্রস্তাবে হতবাক রাহুল ৷ স্তম্ভিত শিল্পীর কথায়, ‘‘প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে আধ দশক ৷ যা মিডিয়ার কল্যাণে সবাই জানে ৷’’ এর পরেও এই ধরনের প্রস্তাবে তিনি বিস্মিত ৷ তিনি আর প্রিয়াঙ্কা আর একসঙ্গে নেই, শুধু সে জন্যই নয় ৷ পুরনো বিজ্ঞাপনী সংলাপ মনে করিয়ে রাহুলের স্পষ্টকথা, ‘‘আর যদি একসাথে থাকিও তাহলেও নবাব কিনলে আরাম free নয়|প্রত্যেকে নিজের যোগ্যতায় জায়গা করেছে|’’

    ওই আলোকচিত্রীকে ‘নির্বোধ’ বলে রাহুল জানিয়েছেন, তাঁর সঙ্গে কাজ করা সম্ভব নয় ৷ কিন্তু একইসঙ্গে এও জানিয়েছেন, তাই বলে তিনি ফোটোশ্যুট করবেন না, তা নয় ৷ তবে রাহুলের সাফ কথা, যদি কোনও আলোকচিত্রী শুধুমাত্র তাঁর সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী হন তবে তিনি অভিনেতার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন ৷

    রাহুলের পোস্টে মন্তব্য করেছেন টলিউডের অনেকেই ৷ কোনও কিছু না লিখে অভিনেতা অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায় কপাল চাপড়ানোর ইমোজি দিয়েছেন ৷ সুজয়প্রসাদ চট্টোপাধ্যায়ের পামর্শ, রাহুল যেন কখনওই এই ধরনের আব্দার করা মুখের প্রতি সদয় না হন ৷ দেবলীনা কুমারের কথায়, ‘‘দুঃখের কথা আর কী বলি! আমরা যেন সবাই প্যাকেজে আসি৷’’ আর এক অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা লিখেছেন, প্রস্তাব শুনে প্রথম প্রতিক্রিয়া কী হতে পারে, সেটা তিনি জানেন ৷ সাহিত্যিক-পরিচালক শ্রীজাতর মন্তব্য,‘‘দুটো মানুষ আলাদাই, সে তারা একসঙ্গে থাকুক আর না থাকুক। এই স্বাতন্ত্র্যের বোধ আমাদের কবে হবে কে জানে।’’ পাশাপাশি, অভিনেতা ঋত্বিকের সাবধানবাণী, ‘‘ স্যার তো কবেই বলেছেন,কাউকে বেশি লাই দিতে নেই সবাই চড়ে মাথায়’’ ৷

    পরিচালক রাজর্ষি তো ফেসবুকের মন্তব্যবাক্সেই রাহুলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন ৷ কারণ তাঁর ছবির পোস্টার শ্যুট উপলক্ষেই রাহুল এই তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন ৷ তবে রাজর্ষি জানান, তিনিও এই প্রথম বার শান্তনুর সঙ্গে কাজ করছেন ৷ তাঁকে রাহুল অনুরোধ করেছেন, এর মধ্যে না ঢুকতে ৷ সেইসঙ্গে বলেছেন, রাজর্ষি তাঁর বন্ধু ৷ কিন্তু এখানেই থেমে যাননি রাজর্ষি ৷ রাহুলের পোস্টের নীচেই সরাসরি তিরস্কার করেছেন আলোকচিত্রী শান্তনুকে ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: