• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Narada Scam Update: মুষড়ে পড়েছেন ফিরহাদ, প্রবল উৎকণ্ঠায় দিন কাটল সুব্রত- মদনদের

Narada Scam Update: মুষড়ে পড়েছেন ফিরহাদ, প্রবল উৎকণ্ঠায় দিন কাটল সুব্রত- মদনদের

মুক্তি না পেয়ে হতাশ ফিরহাদ- সুব্রতরা৷

মুক্তি না পেয়ে হতাশ ফিরহাদ- সুব্রতরা৷

নারদ কাণ্ডে (Narada Scam) ধৃত চার নেতার মধ্যে ফিরহাদ হাকিমই এখনও পর্যন্ত প্রেসিডেন্সি জেলে রয়েছেন৷

  • Share this:

#কলকাতা: মুক্তি মিলবে নাকি থাকতে হবে জেল হেফাজতেই? কলকাতা হাইকোর্টে নারদ মামলার শুনানি শেষ হওয়া পর্যন্ত প্রবল উৎকণ্ঠায় কাটালেন সিবিআই-এর হাতে ধৃত চার হেভিওয়েট নেতা৷ শেষ পর্যন্ত অবশ্য> হতাশই হতে হয়েছে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়দের৷ কারণ প্রায় আড়াই ঘণ্টা সওয়াল জবাব চলার পর এ দিনের মতো শুনানি মুলতুবি হয়ে যায়৷ স্বভাবতি জামিন হয়নি চার নেতার৷ আগামিকাল, বৃহস্পতিবার ফের কলকাতা হাইকোর্টে মামলার শুনানি হবে৷ ফলে এ দিনও জেল হেফাজতেই থাকতে হচ্ছে চার নেতাকে৷

চার নেতার মধ্যে ফিরহাদ হাকিমই এখনও পর্যন্ত প্রেসিডেন্সি জেলে রয়েছেন৷ যদিও তাঁরও বেশ কিছু শারীরিক সমস্যা রয়েছে৷ সোমবার রাতে জেলে নিয়ে যাওয়ার পরই মঙ্গলবার সকালে জ্বর আসে পরিবহণমন্ত্রীর৷ তাঁর কোলাইটিসের সমস্যাও রয়েছে৷ তার উপর এ দিন হাইকোর্টে শুনানি থাকায় সকাল থেকেই প্রবল উৎকণ্ঠায় ছিলেন ফিরহাদ৷ জামিন হবে কি হবে না, এই আশঙ্কাই গ্রাস করেছিল তাঁকে৷ জেল সূত্রে খবর, স্ত্রী এবং দুই মেয়ের সঙ্গেও দেখা করেছেন পরিবহণমন্ত্রী৷ কিন্তু বিকেলের পর খবর আসে, এ দিনও মুক্তি মিলছে না৷ এর পরেই ফিরহাদ হাকিম বেশ কিছুটা মুষড়ে পড়েন বলেই প্রেসিডেন্সি জেল সূত্রে খবর৷

অন্যদিকে এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আর এক প্রবীণ মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ও এ দিন সকাল থেকে প্রবল উৎকণ্ঠায় ছিলেন৷ হাইকোর্টে শুনানি ফলাফল কী হয়, সেটাই ছিল চিন্তার মূল কারণ৷ শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ভুগছেন পরিবহণমন্ত্রী৷ এ দিনও তাঁকে বার বার নেবুলাইজার দিতে হয়৷ চিকিৎসকরাও বার বার তাঁকে শান্ত করার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু দিনের শেষে হতাশই হতে হয়েছে তাঁকেও৷

এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি বাকি দুই নেতা বিধায়ক মদন মিত্র এবং প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়েও হাইকোর্টের রায়ের দিকে অধীর আগ্রহে তাকিয়ে ছিলেন৷ যে তিন সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে, তার সদস্যরাও তিন নেতাকেই বেশি চিন্তা না করার পরামর্শ দেন৷ কিন্তু হাইকোর্টের শুনানি শেষ না হওয়ায় মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত প্রায় প্রত্যেকেই৷ আবারও ফের বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টে কী হয়, তার অপেক্ষা৷

এ দিনও মদন মিত্রকে অক্সিজেন দিতে হয়৷ তাঁর সিটি স্ক্যানও করা হয় এ দিন৷ কয়েকদিন আগে করোনা আক্রান্ত কামারহাটির বিধায়ক মদনের ফুসফুসে সামান্য সমস্যা রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা৷

Abir Ghosal
Published by:Debamoy Ghosh
First published: