• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Money Heist Season 5 Volume 2 Review: আর্তুরিতো কী ভাবে মরবে? প্রফেসর, বার্লিন কী জয়ের গল্প বলতে পারলেন? চোখে জল আনা রুদ্ধশ্বাস 'মানি হাইস্ট' !

Money Heist Season 5 Volume 2 Review: আর্তুরিতো কী ভাবে মরবে? প্রফেসর, বার্লিন কী জয়ের গল্প বলতে পারলেন? চোখে জল আনা রুদ্ধশ্বাস 'মানি হাইস্ট' !

money heist season 5 volume 2

money heist season 5 volume 2

Money Heist Season 5 Volume 2 Review: কেমন হল মানি হাইস্ট সিজন ৫ ভলিউম ২? জিততে পারবেন প্রফেসর! হার না মানা 'বাজিগর' তিনি !

  • Share this:

    #মুম্বই:  হেরে যাচ্ছেন প্রফেসর (Money Heist Season 5 Volume 2 Review)। যা যা ভেবে রেখেছিলেন তিনি কিছুই মিলছে না। তাঁর বুদ্ধিতে এঁকে রাখা ছবির বাইরে চলতে থাকে গোটা বাস্তবটা। বদলে যেতে থাকে চারপাশের পৃথিবী। টোকিও, নাইরোবির মৃত্যু। মানি হেইস্ট দলের সব থেকে বড় সম্বল 'বিশ্বাস ও ভরসা'-এ চিড় ধরতে শুরু করে। প্রফেসর, বার্লিন, পালমেরোর স্বপ্ন ভেঙে চুরমার হয়ে যেতে থাকে! রক্ত, মৃত্যুতে হতাশা গ্রাস করে। এই অবস্থায় কি আর ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব? কারও জন্যই হয়ত নয়। কিন্তু প্রফেসরদের ক্ষেত্রে বিষয়টা একেবারে অন্য। তাঁরা তো হারের কথা বলেন না।

    মানি হাইস্ট(Money Heist Season 5 Volume 2 Review)। এই স্প্যানিশ সিরিজটি নেটফ্লিক্স নেওয়ার আগে, স্পেনের একটা টেলিভিশন ক্রাইম-ড্রামা হয়েই থেকে গিয়েছিল। কিন্তু নেটফ্লিক্স এই সিরিজকে তুলে এনে সকলের সামনে রাখে। বেশ কয়েক মাস পর শোরগোল শুরু হয় গোটা বিশ্বে। রাতারাতি এই সিরিজের ভক্ত হয়ে ওঠেন নানা দেশের সেলেব থেকে সাধারণ মানুষ। টান টান উত্তেজনা ছিল এই সিরিজের প্রথম চারটে পার্টে। এর পর প্রায় এক বছরের বিরতির পর সিরিজের ৫ নম্বর পার্ট আসে। যা আশাহত করে মানুষকে। প্রফেসরদের হার , রক্ত, মৃত্যু দেখে ক্লান্ত হতে থাকেন মানুষ। ভরসা ছিল ৫ নম্বর পার্টের শেষ ভাগে।

    শুক্রবার নেটফ্লিক্স (Money Heist Season 5 Volume 2 Review)এই লাস্ট পার্টটি রিলিজ করে। এই সিরিজ কি জয়ের গল্প বলবে? শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আপনি জানবেন এটা হেরে যাওয়ার গল্প। আর জয় হবে না একটা চোর দলের। দেশের বিরুদ্ধে গিয়ে আপনার মন যখন জিতিয়ে দিতে চাইবে প্রফেসরদের ঠিক সেই সময় হারের কথা বলতে থাকে 'মানি হাইস্ট।"

    গল্পের প্রতিটা দৃশ্যে বার বার হেরে যাওয়ার ভয়, মৃত্যু ভয় ভিতরে ভিতরে খুবলে খেতে থাকে। এর মাঝেই বার বার পর্দায় ফিরে আসে বার্লিনের জীবন। যা ভীষণ ভাবে মানানসই। যখন বার্লিনের জন্য আপনি কাঁদতে শুরু করবেন হাউ হাউ করে ঠিক তখনই প্রফেসর ও তাঁর দলে এমন এক বিপর্যয় নামে যা মনকে ফের অন্য দিকে নিয়ে যায়(Money Heist Season 5 Volume 2 Review)।

    তবে সব শেষে যেন পর্দায় ধ্বনিত হয় সেই সংলাপ 'হারকে জিতনে ওয়ালে কো বাজিগর ক্যাহতে হে"! হ্যাঁ, বাজিগর ছবির শাহরুখের মুখের এই সংলাপ আপনার মনে পড়বেই। এ ঠিক তেমন এক জয়ের গল্প। সিরিজ দেখতে দেখতে মন চাইবেই এমন এক ঐতিহাসিক চুরির সাক্ষী হতে। কিংবা প্রাণ চলে গেলেও ওই দলের এক সদস্য হতে চাইবে মন(Money Heist Season 5 Volume 2 Review)।

     আরও পড়ুন: বিয়ের প্রথা ভাঙলেন কনে ! কনকাঞ্জলির চাল দিয়ে মাকে ফ্রায়েড রাইস রেঁধে রাখতে বললেন! ভাইরাল ভিডিও

    যে আর্তুরিতোকে নিয়ে এত কথা? কী ভাবে মরবে সে? তাঁকে গোটা সিরিজে এক ঝলকও দেখা যাবে না এবার(Money Heist Season 5 Volume 2 Review)। যায়নি তার যুক্তি সম্মত কারণ রয়েছে। আর্তুরিতো এই পার্টে অপ্রয়োজনীয়। যদিও মাঝে মধ্যে মনে হতে পারে গল্পটা আপনি বুঝে ফেলেছেন। কিন্তু তার পরেও এক বারও চোখ সরবে না পর্দা থেকে। এতটাই টান টান উত্তেজনা ধরে রাখা হয়েছে। সেই সঙ্গে রয়েছে প্রতিটা চরিত্রের একাত্ব হয়ে ওঠার আলাদা বৈশিষ্ট। যা এই সিরজের প্রাণ।

    আরও পড়ুন: 'কাঁচা বাদাম' থেকে 'কুসু কুসু' ! এবার বাদামের মালা পরে বাদাম-কাকু স্যান্ডি সাহা ! ভিডিওতে হাসির ঝড়

    তবে প্রফেসরের মতো একজন মেন্টর বোধহয় সকলের জীবনে দরকার। এমন ভাবে আগলে রাখার জন্য কাউকে পেতে মন কেঁদে উঠবেই। টোকিও ফ্ল্যাশব্যাকে সে কথাই মনে করিয়ে দেবেন। আর বার্লিন তাঁর জীবনের করুণ ঘটনা ভাবাবে। বাবা ছেলের সম্পর্কে ভাঙন ধরাবে একটা মেয়ে। যে কিনা সম্পর্কে বার্লিনের স্ত্রী। তাতিয়ানাকে নিয়ে থাকছে নতুন চমক। এই গল্পের জিতটা এভাবে হতই না, যদি না হিসেবের বাইরে তাতিয়ানা বদলে দিত ছক। সেই সঙ্গে অ্যালিসিয়ার দক্ষতা।

    একটা দেশকে কী ভাবে জ্বালে জড়িয়ে, শেষ পর্যন্ত জিতে নেওয়া যায়। তা দেখে অবাক হতে হয় বইকি(Money Heist Season 5 Volume 2 Review)। এই সিরিজ নিয়ে আর কারও মনে কোনও প্রশ্ন থাকতে পারে না। শেষ বারের সব অভিযোগের নিষ্পত্তি ঘটিয়েছেন পরিচালক। তবে এটাই মানি হাইস্ট-এর শেষ গল্প। চুরি আর হবে না। কেন হবে না, তা জানতে হলে শেষ পর্যন্ত রুদ্ধশ্বাসে গিলে নিতে হবে এই সিরিজ। তবে বার্লিন নিজে একটা সিরিজ ডিমান্ড করেন। তবে প্রফেসররা আবার ফিরবেন। বার্লিনের হাত ধরে ২০২৩ সালে। ফের একবার অন্য ছকে মাতাবেন প্রফেসর, বার্লিন, পালমেরো, টোকিও, নাইরোবি, লেসবন, রিও, ডেনভার, স্টক হোম, হেলসিঙ্কিরা!

    Published by:Piya Banerjee
    First published: