• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • মাধ্যমিকে কত পেল দীতিপ্রিয়া? দেখুন মার্কশিট

মাধ্যমিকে কত পেল দীতিপ্রিয়া? দেখুন মার্কশিট

দীতিপ্রিয়া রায় ৷ ছবি: দীতিপ্রিয়া রায়ের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলের সৌজন্যে৷

দীতিপ্রিয়া রায় ৷ ছবি: দীতিপ্রিয়া রায়ের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলের সৌজন্যে৷

  • Share this:

    #কলকাতা: পরণে চওড়া লাল পাড় গরদের শাড়ি ৷ গা ভর্তি সোনার গয়না ৷ এক মাথা ঘোমটা ৷ আর কপালে চকচক করছে ইয়াব্বড় সিঁদুরের টিপ ৷ তিনি করুণাময়ী রানি রাসমণি ৷ সকলের ভাল করার জন্য সদা তৎপর তিনি ৷ দুঃখী মানুষের দুঃখে সব সসময়ই ঝাঁপিয়ে পড়েন তিনি ৷ জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘করণাময়ী রানি রাসমনি’ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্রটি এমনই ৷ আর বিপদহন্তা রাসমণিরে চরিত্রে অভিনয় করছে দীতিপ্রিয়া রায় ৷ তার অভিনয় ইতিমধ্যেই সমস্ত দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছে ৷

    তবে এই দীতিপ্রিয়াই কয়েক মাস আগে ঘোর বিপদের মধ্যে পড়েছিল ৷ এত ছোট বয়সে এই রকম দৃঢ় অভিনয় চমকে দেন যে, সেই পড়েছিল মহা ফাঁপড়ে ৷ একদিকে, ধারাবাহিকের কড়া শ্যুটিং শিডিউল, অন্যদিকে আবার মাধ্যমিক পরীক্ষা ৷ দুইয়ে মিলে চিঁড়ে-চ্যাপ্টা অবস্থা হওয়ার জোগাড় হয়েছিল ৷ ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছে এই অভিনেত্রী ৷ এর সঙ্গে পড়াশোনাটাও তো চালিয়ে যেতে হবে ৷ এর জন্য কতরকম কাণ্ড-কারখানা ৷ যে করেই হোক পরীক্ষার রেজাল্টটা ভাল করতেই হবে ৷ এর জন্য কত রকম কাণ্ড-কারখানা ৷ শ্যুটিং স্পটে বই নিয়ে যাওয়া ৷ রাত করে শ্যুটিং সেরে বাড়ি ফিরেও ঘুমোতে না গিয়ে বইয়ে মুখ গুজে বসে থাকা ৷ আবার পরদিন সকাল সকাল কল টাইম ৷ পরীক্ষার সময়টা সব মিলিয়ে বড্ড কঠিন ছিল দীতিপ্রিয়ার কাছে ৷ তিনি বলেন,‘‘পরীক্ষার সময় একদিনও ছুটি পাইনি শ্যুটিং থেকে ৷ যা গিয়েছে, কী বলব! তবে, ইউনিটের সবাই আমায় খুব সাহায্য করেছিল ৷’’

    তবে তাঁর এই কঠিন পরিশ্রম কাজে এসেছে ৷ মাধ্যমিকে ফার্স্ট ডিভিশনে পাস করেছে এই অভিনেত্রী ৷ রেজাল্টের কথা জিজ্ঞাসা করতেই টেলিফোনের ওপার থেকে দীতিপ্রিয়া হেসে বলল, ‘‘জানো তো ভেবেছিলাম সেকেন্ড ডিভিশন হবে ৷ কেননা ঠিকমতো পড়তেই তো পারিনি ৷’’দীতিপ্রিয়া মা সুদীপ্তা রায় জানালেন, মেয়ের চেষ্টা ছিল ৷ আর তার ফল ও পেয়েছে ৷ মাধ্যমিকে কোন বিষয়ে কত নম্বর এসেছে জিজ্ঞাসা করাতে দীতিপ্রিয়া বলে, ‘‘ইংরেজি লেটার পেয়েছি ৷ ভূগোল আর জীবনবিজ্ঞানে পেয়েছি ৭২ নম্বর করে ৷ বাদ বাকি সব বিষয়েই ৬০ শতাংশের উপর নম্বর রয়েছে ৷ তবে, অঙ্কটায় একটু কম নম্বর এসেছে ৷ অঙ্কটা ভীষণ ভয় পাই ৷’’ তবে, তার এই সাফল্যের পিছনে তাঁর মা সুদীপ্তা ও বাবা অলক শঙ্কর রায়ের অনেকটা অবদান রয়েছে বলে জানিয়েছেন নায়িকা ৷ গতকাল বুধবারই প্রকাশিত হয়েছে মাধ্যমিকের রেজাল্ট ৷ হাতে সময় কম, এর মধ্যে শ্যুটিংও জারি রয়েছে ৷ তাই রেজাল্ট বেরনোর পরেরদিনই অর্থাৎ আজ বৃহস্পতিবার পাঠভবনে অ্যাডমিশন নিয়ে নিয়েছে দীতিপ্রিয়া ৷

    First published: