Home /News /entertainment /
Kalkokkho (House of Time): 'পথের পাঁচালি'-এর প্রযোজনায় ছিল 'অরোরা'! ফের ৪৫ বছর পর ফিরছে 'কালকক্ষ' নিয়ে

Kalkokkho (House of Time): 'পথের পাঁচালি'-এর প্রযোজনায় ছিল 'অরোরা'! ফের ৪৫ বছর পর ফিরছে 'কালকক্ষ' নিয়ে

Kalkokkho (House of Time): অভিনেতা অমিত সাহা বলেন, "পথের পাঁচালি, অযান্ত্রিক, রাইকমল, সিস্টার নিবেদিতা, জলসাঘর এইসব সিনেমা যে প্রযোজনা সংস্থার, সেই অরোরা প্রযোজনা সংস্থা আবার সিনেমা করছেন। কালকক্ষ। সেখানে অভিনয় করতে পারা আমার সৌভাগ্য।"

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #কলকাতা: অঞ্জন বসু নিবেদিত, শর্মিষ্ঠা মাইতি রাজদীপ পাল পরিচালিত, অরোরা ফিল্ম কর্পোরেশন- এর আসন্ন ছবি 'কালকক্ষ' (হাউস অফ টাইম) ঘিরে বাংলা সিনে প্রেমীদের উদ্দীপনা বহুদিনের! সমস্ত অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে গত ২৭ জুলাই অরোরা ফিল্ম কর্পোরেশনের ঐতিহ্যবাহী অফিসে সামনে আনা হল 'কালকক্ষ' ছবির অফিসিয়াল ট্রেলার। ছবিটি মুক্তি পেতে চলেছে ১৯ অগাস্ট কলকাতা এবং আরও কয়েকটি মেগাসিটির কিছু সিনেমা হলে। এই ছবির মাধ্যমে ৪৫ বছর পর সিনেমা নির্মাতা হিসেবে ফিরছে ১১৬ বছর পুরোনো চলচ্চিত্র সংস্থা অরোরা। ট্রেলার মুক্তি উপলক্ষে এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ছবির কলাকুশলীরা, উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রী তন্নিষ্ঠা বিশ্বাস, শ্রীলেখা মুখোপাধ্যায়, অভিনেতা জনার্দন ঘোষ, এবং আরও অনেকে।

    পরিচালক শর্মিষ্ঠা মাইতি জানান, "সাম্প্রতিক কালের একটি সিনেমা। তাই এর নাম কালকক্ষ। কাল অর্থ মৃত্যু, কাল মানে মহাকাল। ছবিটি সেই কালের যাত্রাকেই বয়ে নিয়ে যাচ্ছে। কক্ষ মানে হল একটি ক্ষণ, প্যান্ডেমিককালে আমরা এই কক্ষেই বন্দি হয়ে গিয়েছিলাম।" অন্য পরিচালক রাজদীপ পাল আবার জানিয়েছেন এটি মানুষে মানুষে ভালবাসার ছবি।

    আরও পড়ুন: সৌমিত্রহারা অর্কেস্ট্রা গ্রুপ! তিনি একচিলতে রিহার্সালের জায়গা খুঁজে না দিলে আজ শো করাই সম্ভব ছিল না

    অভিনেতা অমিত সাহা কিন্তু ভীষণভাবেই আনন্দিত এবং গর্বিত। "পথের পাঁচালি, অযান্ত্রিক, রাইকমল, সিস্টার নিবেদিতা, জলসাঘর এইসব সিনেমা যে প্রযোজনা সংস্থার, সেই অরোরা প্রযোজনা সংস্থা আবার সিনেমা করছেন। কালকক্ষ। সেখানে অভিনয় করতে পারা আমার সৌভাগ্য। অভিনেত্রী তন্বিষ্ঠা বিশ্বাস জানান, "গল্পটি তিনটি প্রজন্মকে দেখায়। গল্পটি ভীষণভাবেই আমাদের জীবনের গল্প। প্যান্ডেমিকে আমাদের মানসিক পরিস্থিতি ঠিক যেভাবে একটা জায়গার মধ্যে ঘোরাফেরা করছিল, সেই বিষয়কে নিয়েই ছবিটা"

    আরও পড়ুন: ফের সুপারহিট মালাইকা! লাস্যময়ী কালো পোশাকে নেট মাধ্যমে ঝড় তুললেন নায়িকা

    অতিমারির ভয়াবহতা যে কী আকার ধারণ করতে পারে আজকের দিনে দাঁড়িয়ে তা সকলেরই জানা। তবে অতিমারি বিধ্বস্ত পৃথিবীতে মানুষের মানসিক সুস্থতা ঠিক কতটা প্রয়োজনীয়, মানুষের মানবিক হওয়াটা ঠিক কতটা প্রয়োজনীয়, একে অপরের জন্যে থাকাটা ঠিক কতটা প্রয়োজনীয়, চিকিৎসকদের সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা কতটা প্রয়োজনীয় এবং ঠিক একইভাবে সমাজকে বাঁচিয়ে রাখতে চিকিৎসকদের সুস্থ থাকাটা যে কতটা প্রয়োজনীয় সেটা এই ছবি দর্শকদের শিখিয়ে দিয়ে যাবে। ছবিতে ডাক্তারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন জনার্দন ঘোষ, এছাড়াও ছবিতে অন্যান্য মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন তন্বিষ্ঠা বিশ্বাস, শ্রীলেখা মুখোপাধ্যায় এবং অহনা কর্মকার।

    Published by:Aryama Das
    First published:

    Tags: Bengali cinema, Tollywood

    পরবর্তী খবর