Home /News /entertainment /
Asha Bhosle: গাড়ির মধ্যে গলা সাধছিলেন আশা, ড্রাইভার ভাবলেন হাঁপানি! তার পর যা হল...

Asha Bhosle: গাড়ির মধ্যে গলা সাধছিলেন আশা, ড্রাইভার ভাবলেন হাঁপানি! তার পর যা হল...

স্টুডিও থেকে বাড়ি ফেরার পথে গাড়িতে বসে আশা গলা সাধছিলেন, যা শুনে ড্রাইভার বিচলিত হয়ে পড়েন।

  • Share this:

#মুম্বই: ৮৭ বছর বয়স হয়ে গিয়েছে তাঁর! সেই সঙ্গে দেশের সর্বত্র এখন অনেকেই ভুগছেন শ্বাসকষ্টে। এ হেন পরিস্থিতিতে ড্রাইভার যদি ভেবে থাকেন যে আশা ভোসলেও (Asha Bhosle) নিশ্বাস নিতে পারছেন না বলে হাঁপাচ্ছেন, ব্যাপারটাকে কি অস্বাভাবিক বলা যায়?

মজার ব্যাপার হল এই- আদতে ঘটনা কিন্তু কোভিড ১৯ ভাইরাসের সারা বিশ্ব জুড়ে আক্রমণ চালানোর অনেক আগের, সঠিক ভাবে বললে ১৯৬৬ সালের। সেই বছরেই মুক্তি পেয়েছিল বলিউডের অন্যতম বড় হিট ছবি তিসরি মঞ্জিল (Teesri Manzil)। সেই ছবির আজা আজা ম্যায় হুঁ পেয়ার তেরা (Aaja Aaja Main Hoon Pyar Tera) গানটার কথা মনে আছে? যে গানে মহম্মদ রফি (Mohammed Rafi) আর আশা ভোসলের শ্বাস ফেলতে ফেলতে কথা উচ্চারণ করার কায়দা হইচই ফেলে দিয়েছিল? সেই গানের অনুশীলন করতে গিয়েই গোলমাল বেধেছিল বলে জানিয়েছেন এবার বর্ষীয়ান গায়িকা।

আশা সম্প্রতি ইন্ডিয়ান আইডল ১২-র (c) বিচারক হিসেবে দেখা দিয়েছেন ছোটপর্দায়। সেখানেই সম্প্রতি আজা আজা ম্যায় হুঁ পেয়ার তেরা গানটি গাইছিলেন নিহাল তৌরো (Nihal Tauro)। এই প্রসঙ্গে আশা গানটি গাওয়ার নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেন সকলের সঙ্গে।

আশা জানিয়েছেন যে আর ডি বর্মণ (R.D. Burman) অন্য গানের মতোই একদিন এই গানটাও তাঁকে একটু বাজিয়ে শুনিয়েছিলেন, বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে ঠিক কী ভাবে শ্বাস ফেলতে ফেলতে গাইতে হবে। আশার মনে হয়েছিল যে ব্যাপারটা একটু কঠিন, এর জন্য দিন কয়েকের মহড়া দরকার। তাই তিনি তিন-চার দিন সময় চেয়ে নেন এবং যখনই সময় পান গানটা প্র্যাকটিস করতে থাকেন। এভাবেই একদিন স্টুডিও থেকে বাড়ি ফেরার পথে গাড়িতে বসে আশা গলা সাধছিলেন, যা শুনে ড্রাইভার বিচলিত হয়ে পড়েন। তাঁর বোঝার কথা নয় যে ওটাই গানের কায়দা! তাই তিনি জানতে চান আশার কাছে- বাড়ি না ফিরে গাড়ি হাসপাতালের দিকে ঘোরাবেন কি না! তাঁর মনে হয়েছিল যে আশা হাঁপানির চোটে গান গাইতে পারছেন না!

Published by:Simli Raha
First published:

Tags: Asha Bhosle

পরবর্তী খবর